ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের অর্থনীতিতে জনশক্তি রপ্তানির গুরুত্ব আলোচনা কর ।

[ad_1]

অথবা , জনশক্তি রপ্তানির অর্থনৈতিক প্রভাব আলোচনা কর ।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের অর্থনীতিতে জনশক্তি রপ্তানির গুরুত্ব আলোচনা কর ।

উত্তর- ভূমিকা : বাংলাদেশ একটি জনবহুল উন্নয়নশীল দেশ । এদেশে কর্মসংস্থানের তেমন ব্যবস্থা না থাকায় বেকারত্ব ব্যাপক রূপ ধারণ করে । এ কারণে সরকার বিদেশে জনশক্তি রপ্তানি করে দেশের জনসংখ্যার চাপ কমাতে পারে । একই সাথে রেমিট্যান্স এর পরিমাণও বাড়ে ।

জনশক্তি রপ্তানির গুরুত্ব : নিম্নে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে জনশক্তি রপ্তানির গুরুত্ব আলোচনা করা হলো :

১. বেকার সমস্যার সমাধান : উচ্চ জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার এবং দেশে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা তেমন না থাকায় বিদেশে জনশক্তি রপ্তানির কোন বিকল্প নেই । বিদেশে জনশক্তি রপ্তানি যতই বাড়ে দেশে বেকার সমস্যা ততই হ্রাস পায় ।

২. বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন : বেকার সমস্যা সমাধানের পাশাপাশি জনশক্তি রপ্তানি করে বাংলাদেশ প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে । তাছাড়া বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের দ্বিতীয় বৃহত্তম উৎস হচ্ছে রেমিট্যান্স ।

৩. লেনদেনের উদ্বৃত্তের ঘাটতি দূরীকরণ : বাংলাদেশ যে পরিমাণ দ্রব্য রপ্তানি করে তার থেকে বেশি দ্রব্য আমদানি করে । ফলে লেনদেনের ঘাটতি দেখা দেয় । এ ঘাটতি দূরীকরণে জনশক্তি রপ্তানির মাধ্যমে যে রেমিট্যান্স পাওয়া যায় তার দ্বারা উক্ত ঘাটতি পূরণ করা সম্ভব হয় ।

৪. জাতীয় আয় বৃদ্ধি : জনশক্তি রপ্তানির ফলে যে রেমিট্যান্স বাংলাদেশে আসে তা জাতীয় আয়ের সাথে যুক্ত হয় এর ফলে জাতীয় আয় বৃদ্ধি পায় ।

৫. জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধি : জাতীয় আয় বৃদ্ধির ফলে মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি পায় । ফলে মানুষ উন্নত মানের দেশি বিদেশি পণ্যের সাথে পরিচিত হয় । ভোগ বৃদ্ধি পায় , জীবনযাত্রার মান উন্নত হয় ।

৬. সঞ্চয় ও মূলধন গঠনে সহায়ক : জাতীয় আয় বৃদ্ধির সাথে যেমন মানুষের জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধি পায় তেমনি মানুষের সঞ্চয় প্রবণতাও বৃদ্ধি পায় । ফলে মূলধন গঠনের হারও বৃদ্ধি পায় ।

৭. কৃষি উন্নয়ন : বাংলাদেশ কৃষি প্রধান দেশ । কিন্তু এদেশের কৃষি তেমন উন্নত নয় । কারণ কৃষিতে উন্নত যন্ত্রপাতি , সার , কীটনাশক , উচ্চ ফলনশীল বীজ প্রভৃতি বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয় । বিদেশ থেকে উক্ত উপকরণসমূহ আমদানিতে বৈদেশিক রেমিট্যান্স গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে ।

৮. শিল্প উন্নয়ন : শিল্পের যন্ত্রপাতি ও কাঁচামাল বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয় । আর এ আমদানি ব্যয় মিটাতে জনশক্তি রপ্তানির মাধ্যমে অর্জিত রেমিট্যান্স গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে ।

৯. উন্নত মানের পণ্যসামগ্রীর সরবরাহ বৃদ্ধি : ওয়েজ আর্নাস স্কিমের আওতায় প্রবাসীদের অর্জিত বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয়ে উন্নত ভোগ্যপণ্য বিদেশ থেকে আমদানি করতে পারে । ফলে দেশে উন্নতমানের ভোগ্যপণ্যসামগ্রীর সরবরাহ বৃদ্ধি পায় ।

১০. দক্ষতা বৃদ্ধি : দেশে অনেক শ্রমিক আছে যারা অল্প শিক্ষিত । ফলে তাদের দক্ষতাও কম । বিদেশে সাধারণত দক্ষ ও অদক্ষ উভয় জনশক্তি রপ্তানি করা হয় । ফলে যেসব শ্রমিক অদক্ষ কাজ করার ফলে তাদের দক্ষতা বৃদ্ধি পায় ।

১১. জনসংখ্যা সমস্যার সমাধান : বাংলাদেশ একটি জনবহুল দেশ । এদেশের বিভিন্ন সমস্যার মধ্যে জনসংখ্যা সমস্যা অন্যতম । জনশক্তি রপ্তানির মাধ্যমে আমরা জনসংখ্যার চাপ কিছুটা হলেও হ্রাস করতে পারি ।

১২. দারিদ্র্য বিমোচন : বিভিন্ন পরিসংখ্যান হতে দেখা যায় যে , যেসব এলাকার জনগণ বেশি বিদেশে কর্মরত তাদের আর্থিক অবস্থা খুবই ভালো । তাদের জীবনযাত্রার মানও উন্নত । তাছাড়া প্রবাসীদের প্রেরিত অর্থের সাহায্যে সরকার নানারকম কর্মসূচি গ্রহণ করে দারিদ্র্য বিমোচনে ভূমিকা রাখে ।

উপসংহার : সুতরাং উপযুক্ত আলোচনা থেকে একথা বলা যায় যে , আমাদের মতো জনবহুল উন্নয়নশীল দেশে জনশক্তি রপ্তানির গুরুত্ব অপরিসীম ।

[ad_2]



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!