ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079

সামাজিক গবেষণায় তত্ত্বের ভূমিকা উল্লেখ কর

প্রশ্ন৷২৮৷ সামাজিক গবেষণায় তত্ত্বের ভূমিকা উল্লেখ কর।
অথবা, সামাজিক গবেষণায় তত্ত্বের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ কর।
অথবা, সামাজিক গবেষণায় তত্ত্বের গুরুত্ব লিখ।
অথবা, সামাজিক গবেষণায় তত্ত্বের তাৎপর্যসমূহ লিখ।


উত্তর৷ ভূমিকা :
তত্ত্ব গবেষণায় বিকাশ, পরিচালনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে । তত্ত্বের ভূমিকা ও কার্যাবলি সম্পর্কে বিভিন্ন তাত্ত্বিক বিভিন্ন মন্তব্য প্রকাশ করেছেন। Good and Hatt মনে করেন, ‘“তত্ত্ব কতকগুলো বিশেষ ভূমিকা পালন করে। বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রায় তত্ত্ব একটি প্রধান কৌশল হিসেবে এ ভূমিকা রাখে।”

সামাজিক গবেষণায় তত্ত্বের ভূমিকা : নিম্নে তত্ত্বের ভূমিকা বা কার্যাবলি আলোচনা করা হলো :
১. তত্ত্ব অনুসন্ধানের দিকনির্দেশনা দেয় : একটি তত্ত্ব গবেষক বা বিজ্ঞানীরা অনুসন্ধানের দিকনির্দেশনা দেয় । অর্থাৎ প্রতিটি পর্যবেক্ষণের পিছনেই একটি তাত্ত্বিক দৃষ্টিকোণ বা কাঠামো কাজ করে। গবেষক কোনো ধরনের ঘটনা বা তথ্য পর্যবেক্ষণ ও লিপিবন্ধ করবেন তা নির্ধারিত হয় তত্ত্বের আলোকে ।


২. শ্রেণিবিন্যাস এবং ধারণাগত কাঠামো নির্মাণে তত্ত্ব : তত্ত্ব ঘটনাবলি শ্রেণিবিন্যাস এবং ধারণা গঠনে সাহায্য করে । বস্তুত জ্ঞানকে সুসংবন্ধ করতে হলে একটি পদ্ধতির প্রয়োজন হয়; যার সাহায্যে তথ্যসমূহকে শ্রেণিবিন্যস্ত ও সংক্ষিপ্ত করা চলে।


৩. তথ্যের সংক্ষিপ্তকরণে তত্ত্ব : তত্ত্বের আরেকটি কাজ হলো সংক্ষিপ্তকরণ । কোনো একটি বিষয় সম্বন্ধে অনুসন্ধান করে আজ পর্যন্ত যে জ্ঞান অর্জিত হয়েছে, তত্ত্বের কাজ হলো তা সংক্ষিপপ্তভাবে প্রকাশ করা।

৪. তত্ত্ব তথ্য সম্পর্কে পূর্বানুমানে সাহায্য করে : তত্ত্ব তথ্য সম্পর্কে পূর্বানুমানে সাহায্য করে। তত্ত্ব গবেষককে কতকগুলো দিক নির্দেশ দেয় যার মাধ্যমে গবেষক বুঝতে পারেন তিনি কি ধরনের তথ্য পর্যবেক্ষণ করতে সমর্থ হবেন।

উপসংহার : উপর্যুক্ত আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে বলা যায় যে, সমাজ গবেষণায় তত্ত্ব তথ্যের সাধারণীকরণ ও পূর্বানুমান সাহায্যের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তত্ত্বের মাধ্যমেই গবেষণা সংশ্লিষ্ট বিষয়াদি বিশ্লেষণ ও পর্যালোচনা করা হয় এবং গবেষণা কর্মটির শেষে একটি তাত্ত্বিক কাঠামো বিনির্মাণ করা হয়।



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!