ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের অর্থনীতিতে মুদ্রাস্ফীতির প্রভাব আলোচনা কর ।

[ad_1]

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের অর্থনীতিতে মুদ্রাস্ফীতির প্রভাব আলোচনা কর ।

উত্তর ৷ ভুমিকা : বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল জনবহুল দেশ । স্বাধীনতার এত বছর পার হওয়া সত্ত্বেও আমাদের দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার তেমন উন্নয়ন হয় নি । এর অন্যতম কারণ হলো মুদ্রাস্ফীতি ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি । বাংলাদেশের অর্থনীতিতে মুদ্রাস্ফীতির প্রভাব : বাংলাদেশের অর্থনীতির বিভিন্ন ক্ষেত্রে মুদ্রাস্ফীতির প্রভাব সম্পর্কে নিম্নে আলোচনা করা হলো :

১. উৎপাদনের উপর প্রভাব : দেশের উৎপাদন খাতের উপর মুদ্রাস্ফীতির প্রভাব নিম্নরূপ :

ক . কৃষি : মুদ্রাস্ফীতির ফলে কৃষিতে উৎপাদিত দ্রব্যের মূল্যের তুলনায় উপকরণের মূল্য তেমন বৃদ্ধি পায় নি । ফলে কৃষিতে অনুকূল প্রভাব পড়েছে ।

খ . শিল্প : শিল্পের কাঁচামালের তুলনায় শিল্পে উৎপাদিত দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধি পাওয়ায় শিল্পপতিরা লাভবান হয়েছে কিন্তু সাধারণ জনগণ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ।

গ. সেবাখাত : মুদ্রাস্ফীতি সেবাখাতের উপর অনুকূল প্রভাব ফেলেছে । মুদ্রাস্ফীতির ফলে বিভিন্ন পেশাজীবী লোকদের উৎপাদিত সেবাকর্মের মূল্যবৃদ্ধি পাওয়ায় তাদের মুনাফা বৃদ্ধি পেয়েছে এবং সেবাখাতে পরিমাণগত ও গুণগত মান অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে ।

২. কর্মসংস্থানের উপর প্রভাব : মুদ্রাস্ফীতির ফলে দেশে দেশে কর্মসংস্থানের ব্যাপক সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে । নতুন নতুন শিল্প কলকারখানা , অফিস আদালত গড়ে উঠায় কর্মসংস্থান বৃদ্ধি পেয়েছে । কিন্তু রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা , দুর্নীতি , দুর্বল প্রশাসনিক কাঠামো ও সুষ্ঠু পরিকল্পনার অভাবে যে পরিমাণ কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হওয়ার কথা সেরূপ কর্মসংস্থান হয় নি ।

৩. আয় ও সম্পদ কটনের উপর প্রভাব : দেশের আয় ও সম্পদ বণ্টনের উপর মুদ্রাস্ফীতির অনুকূল ও প্রতিকূল প্রভাব পরিলক্ষিত হয় । যেমন

ক . সীমিত আয়ের লোক : মুদ্রাস্ফীতির ফলে দেশের সীমিত আয়ের লোকদের প্রকৃত আয় হ্রাস পেয়েছে ফলে তারা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ।

খ . কৃষক শ্রেণী : মুদ্রাস্ফীতির ফলে ধনী কৃষকরা লাভবান হয়েছে এবং গরিব কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ।

গ. শ্রমিক শ্রেণী : শ্রমিকদের মজুরি মুদ্রাস্ফীতি যে হারে বৃদ্ধি পেয়েছে সে হারে বৃদ্ধি না পাওয়ায় তারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ।

ঘ. ত্রেতা ও ভোক্তা : মুদ্রাস্ফীতির ফলে ভোক্তার প্রকৃত আয় হ্রাস পাওয়ায় তারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ।

ও . করদাতা ও করগ্রহীতা : দামস্তর বৃদ্ধির ফলে একজন করদাতা পূর্বাপেক্ষা কম দ্রব্য বিক্রি করে কর পরিশোধ করতে পারে বলে সে লাভবান হয় । পক্ষান্তরে করগ্রহীতা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ।

চ . বিনিয়োগকারী : মুদ্রাস্ফীতির কারণে বিনিয়োগকারিগণ সাধারণ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে । ফলে বিনিয়োগ কম হচ্ছে ।

ছ . ঋণদাতা ও ঋণগ্রহীতা : মুদ্রাস্ফীতির কারণে ঋণদাতা প্রদত্ত ঋণের সমপরিমাণ অর্থ ফেরত পেলেও তা দিয়ে পূর্বের চেয়ে কম পরিমাণ দ্রব্যসামগ্রী ক্রয় করতে পারে । ফলে ঋণদাতা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এবং ঋণগ্রহীতা লাভবান হচ্ছে ।

৪. সামাজিক প্রভাৰ : মুদ্রাস্ফীতির ফলে সমাজে ধনী ও দারিদ্র্যের মধ্যে দিন দিন বৈষম্য বৃদ্ধি পাচ্ছে । ফলে সমাজে নানারকম অস্থিরতা বাড়ছে , আইনশৃঙ্খলার অবণতি হচ্ছে । সমাজবিরোধী কার্যকলাপ বৃদ্ধি পাচ্ছে ।

৫. রাজনৈতিক প্রভাব : মুদ্রাস্ফীতির ফলে দ্রব্যসামগ্রীর মূল্যবৃদ্ধির ফলে জনজীবনে অসন্তোষের সৃষ্টি হচ্ছে তার সুযোগ ব্যবহার করে রাজনৈতিক দলসমূহ দেশে অস্থিরতার সৃষ্টি করছে ।

উপসংহার : সুতরাং মুদ্রাস্ফীতির ফলে দেশের আর্থসামাজিক ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয় এবং অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব দেখা দেয় ।

[ad_2]



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!