Download Our App


ডিগ্রী অনার্স মাস্টার্স পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে পেতে Whatsapp এ ম্যাসেজ করুন। Whatsapp 01979786079

ডিগ্রী অনার্স বই App এ পেতে Whatsapp এ nock করে User ID নিয়ে Login করুন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

প্রশ্নের উত্তর

শ্রেণি সচেতনতা সম্পর্কে মার্কসীয় নারীবাদ কী?

অথবা, শ্রেণি সচেতনতা বিষয়ে মার্কসীয় নারীবাদ বলতে কী বুঝ?
অথবা, শ্রেণি সচেতনতা বিষয়ক মার্কসীয় নারীবাদ কাকে বলে?
অথবা, শ্রেণি সচেতনতা বিষয়ে মার্কসীয় নারীবাদে কী বলা হয়েছে?
অথবা, মার্কসীয় নারীবাদে শ্রেণি সচেতনতা সংক্ষেপে আলোচনা কর।
অথবা, মার্কসীয় নারীবাদে শ্রেণি সচেতনতা সম্পর্কে তুমি কী জান? সংক্ষেপে লিখ।
উত্তর৷ ভূমিকা :
রাষ্ট্রচিন্তার ইতিহাসে যে সমস্ত দার্শনিক নারীবাদী বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন তাঁদের মধ্যে কার্লমার্কস অন্যতম। মার্কসের দর্শনে সকল ক্ষেত্রে নারীর বৈষম্য আলোচনা করেন। তাঁর আলোচনার এমনি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো শ্রেণি সচেতনতা যেখানে তিনি নারীর শ্রেণি স্বার্থের কথা উল্লেখ করেন।
শ্রেণি সচেতনতা : শ্রেণি সচেতনতা সম্পর্কে মার্কসের আশাবাদ মার্কসীয় নারীবাদী প্রবক্তাদের মধ্যে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। কেবল তাই নয়, নারীমুক্তিতে শ্রেণি সচেতনতার ভূমিকা সম্পর্কে চিন্তাভাবনার উদ্রেক করেছে। কতিপয় নারী বুর্জোয়া পুরুষের স্ত্রী, কন্যা, বন্ধু এবং প্রেমিকা অন্যদিকে কতিপয় নারী শ্রমিক শ্রেণি পুরুষের স্ত্রী, কন্যা, বন্ধু এবং প্রেমিকা। এ বিপরীতমুখী নারীদের সম্পর্কে মার্কসীয় নারীবাদ বলেছেন যে, ধনী শ্রেণির হোক, শ্রমিক শ্রেণির হোক সকল নারীই নির্যাতনের স্বীকার। সামাজিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক সকল ক্ষেত্রে নারী বৈষম্য বিদ্যমান। নারী বৈষম্য তাদেরকে পিছনে ফেলে রেখেছে। মার্কস নারীদের এ পিছনে পড়ে থাকার বিরুদ্ধে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। নির্যাতনের দুষ্ট অভিজ্ঞতায় সকল নারী এক ও অভিন্ন। তাই তাদের শ্রেণিস্বার্থ রক্ষা করতে হবে। মার্কস যেখানে সামাজিক শ্রেণীসংঘাতকে দায়ী করেছেন সেখানে রাডিকাল নারীবাদিগণ পুরুষ-নারীর জৈবিক পার্থক্যের মধ্যেই আধিপত্যের সম্পর্ক নির্ণয় করেছেন। নারী-পুরুষের গতানুগতিক সামাজিক সম্পর্ক ও ভূমিকাকে তারা স্বাভাবিক সম্পর্ক হিসেবে দেখতে নারাজ। তারা মনে করেন মানবজাতিকে টিকিয়ে রাখা কেবল নারীর একার দায়িত্ব নয়, বরং পুরুষেরও দায়িত্ব রয়েছে। কিন্তু গতানুগতিক সামাজিক সম্পর্কের ফলে পুরুষ এই দায়িত্বকে আদৌ গ্রহণ করে না, তারা কেবল ভ্রূণ দান করেই তাদের দায়িত্ব শেষ করে।
উপসংহার : উপর্যুক্ত আলোচনা শেষে আমরা বলতে পারি, শুরু থেকেই মার্কস তাঁর লেখনীর মাধ্যমে নারী সমাজের বৈষম্য তুলে ধরে তাদের শ্রেণি সচেতনতার কথা বলেন। তিনি বলেন, যতদিন নারীরা শ্রেণি সচেতন না হবে
ততদিন তারা শ্রেণি বৈষম্যের স্বীকার হবে। তাই নারীমুক্তির জন্য নারীর শ্রেণি সচেতনতা অত্যাবশ্যকীয় বিষয়।

হ্যান্ডনোট থেকে সংগ্রহীত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!