অথবা, মুসলিম দর্শন ও ইসলামি দর্শনের পার্থক্য কী?
অথবা, মুসলিম দর্শন ও ইসলামি দর্শনের বৈসাদৃশ্য দেখাও।
অথবা, মুসলিম দর্শন ও ইসলামি দর্শনের কী কী অমিল খুঁজে পাওয়া যায়?
অথবা, মুসলিম দর্শন ও ইসলামি দর্শনের মধ্যে কী কী পার্থক্য রয়েছে সংক্ষেপে আলোচনা কর।
উত্তরা৷ ভূমিকা :
মুসলিম চিন্তা মানব জাতির জন্য বয়ে এনেছিল শান্তি ও সৌহার্দ্যের বার্তা। মুসলিম দর্শন ও ইসলামি দর্শন যদিও দুটি পৃথক অলোচ্যবিষয়, তবুও বলা চলে এ দু’টি ক্ষেত্রে মুসলিম চিন্তাবিদ ও দার্শনিকদের যথেষ্ট মৌলিক চিন্তার স্বাক্ষর রেখেছেন। সুতরাং মুসলিম দর্শন ও ইসলামি দর্শনের গুরুত্ব দর্শনে অনস্বীকার্য।
মুসলিম দর্শন : মুসলিম দর্শন হলো মুসলমান জাতির চিন্তাধারার দর্শন। মুসলিম চিন্তাবিদ কর্তৃক জীৱন ও জগতের সামগ্রিক ব্যাখ্যা ও মূল্যায়নের দর্শন। মুসলিম চিন্তাবিদেরা সার্বজনীন জীবনজিজ্ঞাসার উত্তর প্রদান করেছেন, জীবন ও জগতের সমস্যাবলি সম্পর্কে যে আলোচনা করেছেন তাই মুসলিম দর্শন নামে পরিচিত।
ইসলামি দর্শন : কোন কোন চিন্তাবিদগণ ইসলামি দর্শন বলতে এমন দার্শনিক আলোচনাকে বুঝিয়েছেন, যা কেবল ধর্মতত্ত্ব তথা কুরআন ও হাদিসের আলোকে আলোচিত। অর্থাৎ ইসলামি দর্শন হচ্ছে কুরআন ও হাদিসের আলোকে জীবন ও জগতের ব্যাখ্যা। ইসলামি দর্শনের পরিসর মুসলিম দর্শনের পরিসর অপেক্ষা সংকীর্ণতর। কেননা ইসলামি দর্শন কেবল কুরআন ও হাদিসে সুস্পষ্টভাবে বর্ণিত অর্থের সঙ্গতিপূর্ণ দার্শনিক ধারণাবলিকে অন্তর্ভুক্ত করে।
মুসলিম দর্শন ও ইসলামি দর্শনের মধ্যে পার্থক্য : নিম্নে মুসলিম দর্শন ও ইসলামি দর্শনের মধ্যে পার্থক্য আলোচনা করা হলো :
ইসলামি দর্শনকে মুসলিম দর্শন বলা যায়। কিন্তু মুসলিম দর্শনকে ইসলামি দর্শন বলা যায় না।
উপসংহার : পরিশেষে বলা যায় যে, মুসলিম দর্শন ও ইসলামি দর্শনের মধ্যে পার্থক্য থাকা সত্ত্বেও উভয়ের মধ্যে গভীর সম্পর্ক বিদ্যমান। অনেক মুসলিম চিন্তাবিদেরা মনে করেন উভয়ের মধ্যে কোন বিরোধ নেই, বরং একটি অপরটির পরিপূরক এবং এক্ষেত্রে উভয় পক্ষই কুরআন ও হাদিসের আলোকেই নিজেদের মতামত উপস্থাপন করেছেন মুসলিম দর্শন হলো মুসলিম চিন্তাবিদদের যে কোন দার্শনিক আলোচনা। হোক সে গ্রিক দর্শনভিত্তিক, কুরআন ও হাদিস ভিত্তিক। কিন্তু ইসলামি দর্শন হচ্ছে সম্পূর্ণভাবে কুরআন ও হাদিসভিত্তিক। মুসলিম দর্শনের আলোচনা পরিচালিত হয় ব্যক্তির নিজস্ব বিশ্বাস, অভিজ্ঞতা ও নিজস্ব প্রজ্ঞার দ্বারা। কিন্তু ইসলামি দর্শন সম্পূর্ণভাবে কুরআন ও হাদিসভিত্তিক। মুসলিম দর্শনের পরিসর ইসলামি দর্শন থেকে ব্যাপকতর। কিন্তু ইসলামি দর্শনের পরিসর মুসলিম দর্শন থেকে সংকীর্ণতর। মুসলিম দর্শনে প্রাধান্য দেয়া হয় বিচারবুদ্ধি ও যুক্তিতর্ককে। কিন্তু ইসলামি দর্শনে প্রাধান্য দেয়া হয় অতীন্দ্রিয়বাদকে।

https://topsuggestionbd.com/%e0%a6%a4%e0%a7%83%e0%a6%a4%e0%a7%80%e0%a6%af%e0%a6%bc-%e0%a6%85%e0%a6%a7%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%af%e0%a6%bc-%e0%a6%ae%e0%a7%81%e0%a6%b8%e0%a6%b2%e0%a6%bf%e0%a6%ae-%e0%a6%a6%e0%a6%b0/
admin

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!