অথবা, বাঙালি দর্শনের বৈশিষ্ট্যসমূহ কী কী?
অথবা, “বাঙালি দর্শনের নিজস্ব বৈশিষ্ট্য রয়েছে”- সংক্ষেপে উক্তিটি ব্যাখ্যা কর।
অথবা, বাঙালি দর্শনের স্বকীয় বৈশিষ্ট্যগুলো তুলে ধর।
অথবা, বাঙালি দর্শনের বৈশিষ্ট্যগুলো চিহ্নিত কর।
অথবা, বাঙালি দর্শনের বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে তোমার অভিমত দাও।
উত্তর৷। ভূমিকা :
বাঙালির দর্শন একটি প্রাচীন দর্শন। বাঙালির ধ্যানধারণা, চিন্তা, মনন, ভাবধারা, মতামত,ধর্ম, রাজনীতি, অর্থনীতি, সংস্কৃতি প্রভৃতিকে কেন্দ্র করে বাঙালির দর্শনচিন্তা গড়ে উঠেছে। বাংলা ও বাংলার সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্যের বৈচিত্র্যময় রূপ ও রসের মাধুর্যে আপ্লুত হয়ে মরমি চেতনায় উদ্বুদ্ধ যে দর্শন তাই বাঙালি দর্শন। বাঙালি দর্শনের স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য রয়েছে।
বাঙালি দর্শনের বৈশিষ্ট্য : বিভিন্ন যুগে বাঙালি চিন্তাবিদগণ বাঙালির ধর্ম, শিক্ষা, সংস্কৃতি, চিন্তা মনন নিয়ে যে জ্ঞানগর্ভ আলোচনা পর্যালোচনা করেছেন তাই বাঙালি দর্শনের মূল উপাদান। বাঙালি দর্শনের যেসব বৈশিষ্ট্য রয়েছে নিম্নে তা উল্লেখ করা হলো :
১. বস্তুবাদী বা প্রকৃতিবাদী দর্শন : বাঙালি দর্শনের প্রাথমিক স্তরে যে দর্শন চর্চার কথা জানা যায় তাহলো বস্তুবাদী বা প্রকৃতিবাদী দর্শন । অনার্য চার্বাক বা লোকায়ত সম্প্রদায় এ বস্তুবাদী দর্শনের প্রবর্তন করে।
২. পৌরাণিক উপকথা ও ধর্ম : বাঙালি দর্শনের বিকাশে ধর্ম হলো অবিচ্ছেদ্য উপাদান। ধর্মগ্রন্থে বর্ণিত পৌরাণিক উপকথা বাঙালি দর্শনে বিশেষ স্থান দখল করে আছে।
৩. বৈদিক সাহিত্য ও বেদ : আর্য দ্বারা প্রবর্তিত বৈদিক সাহিত্য বাঙালি দর্শনের প্রাথমিক যুগকে সর্বাধিক প্রভাবিত করেছে। এ সময় বেদের দার্শনিক তত্ত্বই বাঙালি দর্শনের মূল আলোচ্য বিষয়ে পরিণত হয়েছিল।
৪. আস্তিক ও নাস্তিকতার ধারণা : বাঙালি দর্শনে আস্তিক সম্প্রদায়ের পাশাপাশি নাস্তিক সম্প্রদায়ও ছিল, বৌদ্ধ ও জৈন দর্শন তারই প্রমাণ; যা বাঙালি দর্শনচিন্তার অন্যতম উপাদান।
৫. অধ্যাত্মবাদ : বাঙালি দর্শন অধ্যাত্মবাদ দ্বারা প্রভাবিত দর্শন। বিভিন্ন ধর্মের ভাববাদী চিন্তাধারা তথা ঈশ্বর ও পরকাল সম্পর্কিত ধ্যানধারণা, বাঙালি দর্শনে প্রাচীন কাল থেকেই চর্চা করা হয়।
৬. সমন্বয়ধর্মী দর্শন : বাঙালি দর্শনে বিভিন্ন মতবাদের সমন্বয় লক্ষ করা যায়। ইসলাম, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, জৈন,শৈব, শাক্ত, বৈষ্ণব, বাউল প্রভৃতি সম্প্রদায়ের মতবাদের সমন্বয়সাধন করেই বাঙালি দর্শন বিকশিত হয়েছে।
৭. মানবতাবাদ : বাঙালি দর্শনে মানুষই মূল উপজীব্য, মানুষকে কেন্দ্র করেই যাবতীয় দর্শন তত্ত্ব আলোচিত হয়েছে।মানুষের মুক্তি, মানুষের কল্যাণ, মানুষের দুঃখ প্রভৃতি বিষয়ই বাঙালি দর্শনের মূল তত্ত্বালোচনাকে সীমাবদ্ধ করে রেখেছে।
৮. পাশ্চাত্য প্রভাব : বাঙালি দর্শনে পাশ্চাত্য দর্শনের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ প্রভাব রয়েছে। প্রত্যক্ষবাদ, উপযোগবাদ,বিশ্লেষণী দর্শন, মানবতাবাদ মার্কসবাদ দ্বারা বাঙালি দর্শন ব্যাপকভাবে প্রভাবিত হয়েছে।
উপসংহার : উপযুক্ত আলোচনার আলোকে আমরা বলতে পারি, যুগ ভেদে বাঙালি দর্শনের বৈশিষ্ট্য ও পার্থক্য দেখা যায়। প্রাচীন কালে বস্তুবাদ ও ভাববাদ, মধ্যযুগে ধর্মতাত্ত্বিক মতবাদ এবং আধুনিক ও সাম্প্রতিক কালে পাশ্চাত্য দর্শনের প্রভাব বাঙালি দর্শনকে স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যমণ্ডিত করেছে।

https://topsuggestionbd.com/%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a5%e0%a6%ae-%e0%a6%85%e0%a6%a7%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%af%e0%a6%bc%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%82%e0%a6%b2%e0%a6%be%e0%a6%a6%e0%a7%87%e0%a6%b6-%e0%a6%a6/
admin

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!