ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ ইংরেজি রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079
Earn bitcoinGet 100$ bitcoin

বাংলাদেশে দারিদ্র্যের কারণ কী কী বর্ণনা দাও।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশে দারিদ্র্যের কারণ কী কী বর্ণনা দাও ।

উত্তর ৷ ভূমিকা : বাংলাদেশ একটি দারিদ্র্য প্রধান দেশ । এদেশে বিরাজমান চরম দারিদ্র্যের অবস্থা দীর্ঘদিনের প্রতিকূল আর্থসামাজিক এবং রাজনৈতিক অবস্থার সমন্বিত ফল । বস্তুত এদেশে ভৌগোলিক এবং প্রাকৃতিক অবস্থানের প্রেক্ষিতে দারিদ্র্য সমস্যা জটিল আকার ধারণ করেছে ।

বাংলাদেশে দারিদ্র্যের কারণ : নিম্নে সংক্ষেপে বাংলাদেশের দারিদ্র্যের প্রধান কারণসমূহ সম্পর্কে আলোচনা করা হলো :

১. নিরক্ষরতা : বাংলাদেশে অধিকাংশ লোকই নিরক্ষর । তারা যেমন নিজেদের অধিকার সম্পর্কে সচেতন নয় , তেমনি সচেতন নয় অধিকার আদায় সম্পর্কে । যার ফলে সমাজের এক ধরনের শোষক শ্রেণী তাদের সর্বদা শোষণ করে যাচ্ছে এবং তাদের অধিকার হতে বঞ্চিত হচ্ছে । তারা নিরক্ষর ও অজ্ঞতার কারণে সমাজে পরিবর্তনশীল পরিবেশের সাথে খাপখাওয়াতে না পেরে কর্মবিমুখ হয়ে বসে আছে এবং দরিদ্রতা ক্রমান্বয়ে সম্প্রসারিত হচ্ছে ।

২ মুদ্রাস্ফীতি : দেশের বাজার ব্যবস্থার উপর সরকারের কোন নিয়ন্ত্রণ না থাকায় এদেশের অনেক মানুষ মানবেতর জীবনযাপন করছে । কারণ এ প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য দিন দিন বেড়েই চলছে । এতে করে সাধারণ মানুষ সীমিত আয়ে সুষ্ঠু জীবনযাপন না করে দারিদ্র্যের শিকার হচ্ছে ।

৩. প্রাকৃতিক দুর্যোগ : বাংলাদেশে অন্যান্য আর্থসামাজিক সমস্যার ন্যায় দারিদ্র্যের অন্যতম প্রধান কারণ হলো প্রাকৃতিক দুর্যোগ । প্রতি বছর এদেশে বন্যা , খরা , জলোচ্ছ্বাস , নদী ভাঙন ও ঘূর্ণিঝড় প্রভৃতি প্রাকৃতিক দুর্যোগগুলো একদিকে যেমন বিপুল সম্পদের ক্ষতিসাধন করছে , অন্যদিকে তেমনি অধিক কর্মসংস্থানের তীব্র অভাব দেখা দিচ্ছে । এর ফলে দারিদ্র্যের প্রসার ঘটে ।

৪. রাজনৈতিক অস্থিরতা : বাংলাদেশের দরিদ্রতার আরেকটি কারণ হচ্ছে রাজনৈতিক অস্থিরতা । কারণ কোন একটি রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার জন্য কোন দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা সম্ভব হচ্ছে না । এভাবে দারিদ্র্যের সৃষ্টি হচ্ছে ত এবং

৫. সম্পদের অসম কটন : আমাদের দেশের অধিকাংশ সম্পদ এক শ্রেণীর লোকের হাতে কুক্ষিগত অর্থাৎ শতকরা ২০ ভাগ সম্পদ ৮০ ভাগ লোক এবং শতকরা ৮০ ভাগ সম্পদ ২০ ভাগ লোক ভোগ করছে । সম্পদের এ অসম বন্টনের কারণে আমাদের দেশে দারিদ্র্য উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে ।

৬. বেকারত্ব: বাংলাদেশে দারিদ্র্যর উৎস হলো বেকারত্ব । মূলত এদেশে প্রতিনিয়ত জনসংখ্যা বাড়ছে । কিন্তু সে হারে নতুন কোন কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হচ্ছে না , যার ফলে বাড়তি লোকগুলো উপযুক্ত কর্মসংস্থানের অভাবে কর্মবিমূখ |

৭. দুর্নীতি : আমাদের দেশের প্রতিটি ক্ষেত্রে দুর্নীতিতে ভরা । আর এ দুর্নীতির কারণে আজ আমরা অনুন্নত , মস্তি

৮. কৃষির উপর অত্যধিক নির্ভরশীলতা : বাংলাদেশ কৃষিপ্রধান দেশ । এদেশের দারিদ্র্যের অন্যতম কারণ হলো কৃষির উপর অত্যধিক নির্ভরশীলতা । তাছাড়া এদেশের কৃষিক্ষেত্রে চাষাবাদের জন্য অত্যাধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতির পরিবর্তে সনাতন পদ্ধতিতে চাষাবাদ করা হয় । যার ফলে ফসল উৎপাদন অনেকটা কমে যায় এবং এভাবে পরিষ্কের সৃষ্টি হয় ।

৯. কুসংস্কার : কুসংস্কারের প্রভাবেও প্রতি বছর বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ দারিদ্র্যের শিকার কুসংস্কারের বশবর্তী হয়ে তার ভাগ্যকে দোষারোপ করছে । কিন্তু সে তার ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য কোনরকম চেষ্টা করছে না । যার ফলে দারিদ্র্যের সৃষ্টি হচ্ছে ।

১০. দ্রুত সংখ্যা বৃদ্ধি : বর্তমানে বাংলাদেশের জনসংখ্যা ১৬ কোটির অধিক যা হার ১.৪৭ …. জায়গায় বসবাস করে । তাছাড়া এদেশের জনসংখ্যার বৃদ্ধির হার ১.৩৪ % এবং প্রতি বর্গকিলোমিটারে ৯১৪ জন লোক বাস করে , যা অন্যান্য দেশের তুলনায় খুবই বেশি । এর ফলে জনগণ তাদের মৌলিক চাহিদা পূরণ করতে এবং তাদের প্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রী উৎপাদন করতে সম্পূর্ণ অক্ষম হয়েছে । ফলে এদেশে দারিদ্র্যা আরো ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে ।

উপসংহার : উপর্যুক্ত আলোচনা শেষে বলা যায় যে , দারিদ্র্য একটি আপেক্ষিক বিষয় । এটি বিভিন্ন দেশের আর্থসামাজিক অবস্থার উপর ভিত্তি করে নির্ধারিত হয় । দ্বিতা বাংলাদেশে একটি জটিলতর সামাজিক সমস্যা । সমস্যায় কেবল মানুষের মৌলিক চাহিদা পূর এবং উন্নত জীবনযাপনের সমস্যা হয় তা নয় , বরং এর প্রভাবে ব্যক্তিগত সামাজিক জীবনে নানা ধরনের সমস্যাও দেখা দেয় ।

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন:01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!