ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079

প্রশ্নঃ সুষম বাজেটের বিপক্ষে যুক্তি দাও ।

[ad_1]

প্রশ্নঃ সুষম বাজেটের বিপক্ষে যুক্তি দাও ।

উত্তর : সুষম বাজেটের বিপক্ষে যুক্তিসমূহ নিম্নরূপ :

১. প্রবৃদ্ধি সহায়ক নয় : সুষম বাজেটে আয়ব্যয় শর্ত পালিত হয় । এর দ্বারা জাতীয় আয় কমতে পারে , বাড়তে পারে বা স্থির থাকতে পারে , উন্নয়নশীল দেশে সামগ্রিক চাহিদা বাড়ার মাধ্যমে জনগণের আয় বাড়ে । কিন্তু বাজেট যখন সুষম হয় তখন আয় এবং নিয়োগ বাড়ে না এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি সূচিত হয় না ।

২. অর্থনৈতিক ক্ষতি : সুষম বাজেট বাণিজ্য চক্র নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ । একইভাবে মিশ্র অর্থনৈতিক দেশে সরকারের রাজস্ব খাত দ্বারা দেশের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সহায়তা করে । সুষম বাজেট দ্বারা এ ধরনের সমন্বয় সম্ভব হয় না । এছাড়া সুষম বাজেট বৈষম্য বাড়িয়ে দেয় ।

৩. ঘাটতি বাজেট সবসময় মুদ্রাস্ফীতি সৃষ্টি করে না : ঘাটতি বাজেট প্রণীত হলেই যে দেশে মুদ্রাস্ফীতি সৃষ্টি হবে তার নিশ্চয়তা নেই । কারণ ঘাটতি বাজেটের পর যদি উৎপাদন বাড়ে তাহলে জাতীয় আয় বাড়বে এবং মুদ্রাস্ফীতি সৃষ্টি হবে না । সুষম বাজেট যা পারে না ।

৪. মন্দাকালে : মন্দাকালীন সময়ে দেশে সামগ্রিক চাহিদার ব্যাপক ঘাটতি লক্ষ্য করা যায় এ অবস্থায় ঘাটতি বাজেট নিলে তা ফলপ্রসূ ভূমিকা রাখবে । কিন্তু সুষম বাজেট মোটেই এ অবস্থায় গ্রহণযোগ্য নয় ।

৫. সরকারের স্বাধীনতা: সরকারের নির্বাচনী ইশতেহার পূরণ করতে পারে না । সুষম বাজেট নীতি গ্রহণ করলে সরকার স্বাধীনভাবে রাজস্বনীতি গ্রহণ করতে পারে ।

[ad_2]



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!