ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079

প্রশ্নঃ সরকারি ঋণ কী ?

[ad_1]

প্রশ্নঃ সরকারি ঋণ কী ?

উত্তর : কাজের পরিধি বাড়ার সাথে সাথে রাষ্ট্রের ব্যয়ের পরিমাণ বাড়তে থাকে । সরকারকে এ কারণে নতুন নতুন আয়ের উৎস খুঁজে বের করতে হয় । সরকার তার ক্রমবর্ধমান ব্যয় মিটানোর জন্য করের মাধ্যমে যেভাবে অর্থসংগ্রহ করতে পারে , তেমনি ঋণের মাধ্যমেও অর্ধসংগ্রহ করতে পারে । সরকারি ঋণ বলতে সরকার বা কেন্দ্রীয় সরকার কর্তৃক গৃহীত ঋণকে বুঝায় । সরকার তার ব্যয় নির্বাহের জন্য জনগণের নিকট থেকে , ব্যাংক ব্যবস্থার নিকট থেকে এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিকট হতে ঋণসংগ্রহ করতে পারে ; যাকে অভ্যন্তরীণ ঋণ বলে । এছাড়া সরকার দেশের বাইরে থেকে যে ঋণ গ্রহণ করে তাকে বৈদেশিক ঋণ বলে ।

” National debt is a debt which a state owes to its subjects or to the nationals of the countries . ” – Findly Sirass .. “ রাষ্ট্র কর্তৃক আর্থিক ঋণপত্র জনগণ বা ফার্মের কাছে বিক্রির মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থ যা কল্যাণমূলক কাজে বা ভর্তুকির জন্য নেয়া হয় । ” Carl S. Soup আবার অনেকে মনে করেন শুধু সরকার বা কেন্দ্রীয় সরকার বাদেও নানা প্রকার সরকারি সংস্থা বা সরকারি কর্তৃপক্ষ কর্তৃক রাষ্ট্রের স্বার্থে গৃহীত ঋণকে সরকারি ঋণ বলে । সরকার কোন কোন সময় Funded debt গ্রহণ করতে পারে , যা মেয়াদহীন ; তবে ঋণপত্র গ্রহীতা যখন তখন সুদ অর্থ উত্তোলন করতে পারে যাকে Floting debt বলে ।

সুতরাং সরকার তার প্রয়োজনীয় চাহিদা বা অর্থনৈতিক ব্যয় মিটানোর জন্য অভ্যন্তরীণ বা বৈদেশিক উৎস হতে ঋণের মাধ্যমে সুদের বিনিময়ে যে অর্থসংগ্রহ করতে পারে তাকেই সরকারি ঋণ বলে ।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল বা অনুন্নত দেশের রাজস্বনীতি ব্যর্থ হওয়ার কারণসমূহ আলোচনা কর ।

উত্তর : বাংলাদেশের রাজস্বনীতি প্রায়ই ব্যর্থ হয় , এর কারণসমূহ হলো :

১. কর ফাঁকি সর্বোচ্চ মাত্রায় এবং কালো টাকার অবাধ ব্যবহার লক্ষ্য করা যায় ।

২. অ – আর্থিক খাতের প্রাধান্য বেশি থাকে ।

৩. সরকারি খাত অনেক দুর্বল ।

৪. বিনিময়ভিত্তিক অর্থব্যবস্থা বিদ্যমান থাকে ।

৫. করের স্থিতিস্থাপকতা কম ।

৬. চরম দরিদ্রতা ও বেকারত্বের মধ্যে অতি ছোট বাজেট কাজ করে না ।

৭. চরম দুর্নীতি রাজস্ব সংগ্রহে প্রতিবন্ধক এবং ব্যয়ের অর্থ লুটপাট করে ।

৮. অর্থ ও মূলধন বাজার সংকীর্ণ ও অসংগঠিত থাকে । উপরের সমস্যাগুলোর কারণে বাংলাদেশের রাজস্বনীতি ব্যর্থ হয় ।

প্রশ্নঃ ১৩০ বাজেট কী ?

উত্তর : ফরাসি শব্দ Bougette শব্দ থেকে বাজেট ( Budget ) শব্দটি এসেছে । এটির অর্থ হলো Leather bag বা ফোল্ডার যার মধ্যে কোনকিছু আটকে বা ধরে রাখা হয় । বিশ্বের প্রতিটি দেশেই আর্থিক বিলের কাগজপত্র বছরের নির্দিষ্ট দিনে অর্থ মন্ত্রী পার্লামেন্টের সামনে উপস্থাপন করেন । এটিকেই বাজেট ( Budget ) বলে । “ আসছে বছরের প্রস্তাবিত ব্যয় এবং প্রত্যাশিত আয়ের বিবরণ , একই সাথে বিগত বছরের প্রকৃত ব্যয় ও আয়ের হিসাব হলো বাজেট । ” – J. F. Due . “

বাজেট হলো সরকারি আয় এবং ব্যয়ের অনুমিত পূর্বাভাস এবং কিছু আয় ও ব্যয়ের অনুমোদন । ” – Gaston Gaze . “ বাজেট হলো সরকারি আয় ও ব্যয়ের প্রাথমিক অনুমোদনপত্রের দলিলপত্র । ” – Rene Stourn .

[ad_2]



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!