ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079

প্রশ্নঃ বাজার মূল্য ভিত্তিক জাতীয় আয় এবং উপাদান খরচভিত্তিক জাতীয় আয়ের মধ্যে পার্থক্য কী ?

[ad_1]

প্রশ্নঃ বাজার মূল্য ভিত্তিক জাতীয় আয় এবং উপাদান খরচভিত্তিক জাতীয় আয়ের মধ্যে পার্থক্য কী ?

উত্তর : বাজার দামে জাতীয় আয়: কোন নির্দিষ্ট সময়ে সাধারণত এক বছরে একটি দেশে উৎপাদিত সকল পণ্য ও সেবার পরিমাণকে বাজার দামে প্রকাশ করলে অথবা বাজার দাম দিয়ে গুণ করলে যে ফল পাওয়া যায় তাকে বাজার দামে জাতীয় আয় বলা হয় । বাজার দাম বলতে এক্ষেত্রে সকল পণ্য ও সেবার গড় দাম তথা দাম স্তরকে বুঝায় । বাজার দামে জাতীয় আয়কে দু’ভাগে ভাগ করা যায় ।

i . চলতি দামে জাতীয় আয় ,

ii . স্থির দামে জাতীয় আয় ।

i . চলতি দামে জাতীয় আয় : উৎপাদিত পণ্য ও সেবার পরিমাণকে চলতি সময়ের দাম স্তর দিয়ে গুণ করলে চলতি দামে জাতীয় আয় বের করা যায় ।

ii . স্থির দামে জাতীয় আয় : উৎপাদিত পণ্য ও সেবার পরিমাণকে অতীতের কোন একটি ভিত্তি বছরে গড় দাম বা দাম স্তর দিয়ে গুণ করে স্থির দামে জাতীয় আয় পাওয়া যায় ।

উপকরণ দামে জাতীয় আয় : একটি দেশে কোন নির্দিষ্ট সময়ে বিভিন্ন উৎপাদন ক্ষেত্রে নিয়োজিত উপকরণসমূহের আয় যোগ করে যে ফল পাওয়া যায় তাকে উপকরণ দামে জাতীয় আয় বলা হয় ।

উপকরণ দামে জতীয় আয় = মোট খাজনা + মোট মজুরি + মোট সুদ + মোট মুনাফা । উপকরণ দাম যেহেতু উৎপাদন খরচ নির্দেশ করে সেহেতু উপকরণ দামে জাতীয় আয়কে উৎপাদন খরচভিত্তিক জাতীয় আয় বলা হয় । অনেক সময় বাজার মূল্যভিত্তিক জাতীয় আয় উৎপাদন খরচভিত্তিক জাতীয় আয় অপেক্ষা অধিক হয় । এক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক দ্রব্যসামগ্রীর উপর পরোক্ষ কর ধার্যকরণের জন্য বাজারে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পায় ।

আবার অনেক সময় দেখা যায় যে , উৎপাদন খরচভিত্তিক জাতীয় আয় অপেক্ষা বাজার মূল্যভিত্তিক জাতীয় আয় কম হয় । এক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক প্রদেয় অনুদান Subsidy বা ভর্তুকি কাজ করে । উদাহরণস্বরূপ বলা যায় , মনে করি বাজারে প্রতিগজ কাপড়ের দাম ৫০ টাকা এবং উক্ত ৫০ টাকার মধ্যে ১০ টাকা পরোক্ষ কর অন্তর্ভুক্ত আছে । এক্ষেত্রে প্রতিগজ কাপড়ের উৎপাদন খরচ ৪০ টাকা । সুতরাং এখানে বাজার মূল্যভিত্তিক জাতীয় আয় হতে পরোক্ষ কর বাদ দিলে উৎপাদন খরচভিত্তিক জাতীয় আয় পাওয়া যাবে ।

আবার মনে করি বাজারে প্রতিগজ কাপড়ের উৎপাদন খরচ হলো ৬০ টাকা । এর মধ্যে সরকার কর্তৃক প্রদেয় গল্প প্রতি ১০ টাকা ভর্তুকি আছে । এ অবস্থায় বাজার মূল্য হবে ( উৎপাদন খরচ ভর্তুকি ) বা ( ৬০ – ১০ ) = ৫০ টাকা । সুতরাং বাজার মূল্যভিত্তিক জাতীয় আয়ের সাথে সরকারি সাহায্য ও ভর্তুর্কি যোগ করে উৎপাদন খরচভিত্তিক জাতীয় আয় পাওয়া যায় । অতএব উৎপাদন খরচভিত্তিক জাতীয় আয় = বাজার মূল্যভিত্তিক জাতীয় আয় পরোক্ষ কর + ভর্তুকি ।

উপসংহার : আলোচনার পরিশেষে বলা যায় যে , বাজারমূল্য ভিত্তিক জাতীয় আয়ও উপাদান খরচ ভিত্তিক জাতীয় আয়ের মধ্যে ব্যাপক পার্থক্য বিদ্যমান । বাজার দামে জাতীয় আয়ে উপাদানসমূহকে বাজার দামেও প্রকাশ করা হয় । অপরদিকে উৎপাদন ক্ষেত্রে নিয়োজিত উপকরণসমূহের আয়কে উপকরণ দামে জাতীয় আয়ের মাধ্যমে প্রকাশ করা হয় ।

[ad_2]



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!