ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079

প্রশ্নঃ বাংলাদেশ সরকারের ব্যয়ের খাতসমূহ বর্ণনা কর ।

[ad_1]

প্রশ্নঃ বাংলাদেশ সরকারের ব্যয়ের খাতসমূহ বর্ণনা কর ।

উত্তর ৷ ভূমিকা : পৃথিবীর সকল দেশেই সরকারের ব্যয় সম্প্রতি অনেক বেড়েছে । উন্নয়নশীল দেশগুলোতেও সরকারি ব্যয় ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে । বর্তমানে বাংলাদেশের জাতীয় আয়ের প্রায় বিশ শতাংশের সমান সরকারের ব্যয় । অতএব সরকারের ব্যয় এবং তার খাতওয়ারি বিভাজন অর্থনীতির জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ ।

বাংলাদেশ সরকারের ব্যয়ের খাতসমূহ : নিম্নে বাংলাদেশ সরকারের ব্যয়ের খাতগুলো বর্ণনা করা হলো :

ক . রাজস্ব ব্যয় : সরকারের চলতি ব্যয় নির্বাহের জন্য যে অর্থ ব্যয় করা হয় তাকে রাজস্ব ব্যয় বলে । এ ব্যয়ের ফলে কোন সম্পত্তি সৃষ্টি হয় না , যেমনটি উন্নয়ন ব্যয়ের ফলে হয় । এ রাজস্ব ব্যয় সরকারের রাজস্ব বাজেটে অন্তর্ভুক্ত থাকে । নিম্নে বিভিন্ন প্রকারের রাজস্ব ব্যয়ের বর্ণনা দেয়া হলো :

১. প্রতিরক্ষা : দেশের সার্বভৌমত্ব বজায় রাখার জন্য নিয়োজিত আছে সেনাবাহিনী , বিমানবাহিনী ও নৌবাহিনী । অতএব প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় , তিনটি বাহিনী এবং তৎসংক্রান্ত ব্যয়সমূহ অতি গুরুত্বপূর্ণ । ২০১০-১১ সালের বাজেটে এ খাতে ৯,০০০ কোটি টাকা ব্যয় ধার্য করা হয় । এ ব্যয় সরকারের মোট রাজস্ব ব্যয়ের প্রায় ৭ % ।

২. জনশৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা : আইন , বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ব্যয় এ খাতে অন্তর্ভুক্ত আছে । এ খাতে ২০১০-১১ সালের বাজেটে ৬,৮৫০ কোটি টাকা ব্যয় ধার্য করা হয়েছে । এ ব্যয় মোট রাজস্ব ব্যয়ের প্রায় ৫ % ।

৩. সাধারণ জনপ্রশাসন : রাষ্ট্রপতির কার্যালয় , জাতীয় সংসদ , প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় , মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ , সংস্থাপন মন্ত্রণালয় ইত্যাদি সরকারের বিভিন্ন বিভাগের চলতি ব্যয় এ খাতে অন্তর্ভুক্ত । ২০১০-১১ সালের বাজেটে সাধারণ জনপ্রশাসন খাতে ৩৮,০০০ কোটি টাকা ব্যয় ধার্য করা হয়েছে । এ ব্যয় মোট রাজস্ব ব্যয়ের প্রায় ২৮ % ।

৪. স্বাস্থ্য : স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে দেশে যে ব্যয় হয় তা এ খাতে ধরা হয় । ২০১০-১১ সালের বাজেটে এ খাতে ৮,২০০ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দ করা হয়েছে ।

৫. শিক্ষা : দেশে শিক্ষাব্যবস্থা চালু রাখার প্রধান দায়িত্ব সরকারের । তাই শিক্ষা মন্ত্রণালয় , প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিভাগ , বিভিন্ন শিক্ষা দপ্তর , বিশ্ববিদ্যালয় , কলেজ , স্কুল , প্রাথমিক বিদ্যালয় ইত্যাদির ব্যয় নির্বাহের জন্য রাজস্ব বাজেটে অর্থ বরাদ্দ করা হয় । ২০১০-১১ সালের বাজেটে শিক্ষাখাতের জন্য ১৮,৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে যা মোট রাজস্ব ব্যয়ের প্রায় ১৪ % ।

৬. গৃহায়ন ও সামাজিক সেবা : গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় এবং স্থানীয় সরকারের বিভাগের ব্যয় এ খাতে ধরা হয় । ২০১০-১১ সালের বাজেটে এ খাতে ১৮,০০০ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দ করা হয়েছে ।

৭. সামাজিক ও নিরাপত্তা কল্যাণ : সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় , মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় , খাদ্য মন্ত্রণালয় এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের ব্যয় এ খাতে ধরা হয় । ২০১০-১১ সালে বাজেটে এ খাতে মোট ৯,৯০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে ।

৮. কৃষি , মৎস্য ও পশু পালন : কৃষি মন্ত্রণালয় , মৎস্য ও পশু সম্পদ মন্ত্রণালয় , পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় , ভূমি মন্ত্রণালয় এবং পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্বাহী ব্যয় এ খাতে ধরা হয় । ২০১০-১১ সালের বাজেটে এ খাতে ১,১৫০ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দ করা হয়েছে ।

৯. বিনোদন , সংস্কৃতি ও ধর্ম : তথ্য মন্ত্রণালয় , সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের ব্যয় এ খাতে ধরা হয়েছে । ২০১০-১১ সালের বাজেটে এ খাতে ১,৫৫০ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দ করা হয়েছে ।

১০. জ্বালানি ও শক্তি : জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ এবং বিদ্যুৎ বিভাগের ব্যয় এ খাতে ধরা হয় । ২০১০-১১ সালের বাজেটে এ খাতে ৬,১০০ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দ করা হয়েছে ।

১১. অন্যান্য অর্থনৈতিক সার্ভিস : বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের নির্বাহী ব্যয় এ খাতে ধরা হয় ।

১২. খনি , উৎপাদন ও নির্মাণ : এ খাতে শিল্প মন্ত্রণালয় , পাট মন্ত্রণালয় এবং বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের নির্বাহী ব্যয় ধরা হয় ।

১৩. সুদ : সরকারের গৃহীত ঋণের উপর প্রদেয় সুদ বাবদ ব্যয় এ খাতে ধরা হয়েছে । ২০১০-১১ সালের বাজেটে অভ্যন্তরীণ সুদ এবং বৈদেশিক ঋণের উপর প্রদেয় মোট ১৪,৭০৯ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে । এ ব্যয় সরকারের মোট রাজস্ব ব্যয়ের প্রায় ১১ % ।

১৪. পরিবহন ও যোগাযোগ : এ খাতে রয়েছে সড়ক ও রেলপথ বিভাগ , নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় , বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের নির্বাহী ব্যয় । ২০১০-১১ সালের বাজেটে এ খাতে ৮,৯০০ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দ করা হয়েছে ।

খ . উন্নয়ন ব্যয় : বাংলাদেশে সরকারের উন্নয়ন ব্যয়সমূহ উন্নয়ন বাজেটে অন্তর্ভুক্ত করা হয় । উন্নয়ন বাজেটের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত থাকে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি । ২০১১-১২ সালের বাজেটে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির জন্য ৪৬০০ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দ করা হয়েছে ।

উপসংহার : উপরে বাংলাদেশ সরকারের ব্যয়ের বিভিন্ন খাত বর্ণনা করা হলো । সরকারি খাতে রাজস্ব ব্যয় অধিক হওয়ার কারণে রাজস্ব উদ্বৃত্ত পর্যাপ্ত পাওয়া যায় না । ২০১১-১২ সালের বাজেটে যে রাজস্ব উদ্বৃত্ত পাওয়া যাবে বলে আশা করা হচ্ছে তা উন্নয়ন বাজেটের ১৭ % অর্থায়ন করতে সক্ষম হবে । ফলে সরকারকে বৈদেশিক সাহায্য ও ঋণের মুখাপেক্ষী হতে হবে । এমতাবস্থায় সরকারের রাজস্ব আয় বাড়ানো যেমন প্রয়োজন তেমনি সরকারের রাজস্ব ব্যয় কমানোও প্রয়োজন ।

[ad_2]



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!