ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079

প্রশ্নঃ বাংলাদেশে স্বল্প বিনিয়োগের কারণ কী ?

[ad_1]

প্রশ্নঃ বাংলাদেশে স্বল্প বিনিয়োগের কারণ কী ?

উত্তর ৷ ভূমিকা : বাংলাদেশে স্বল্প বিনিয়োগ বিরাজমান । স্বল্প বিনিয়োগের জন্য বহুবিধ কারণ রয়েছে ।

স্বল্প বিনিয়োগের কারণ : বাংলাদেশে স্বল্প বিনিয়োগের কারণগুলো নিম্নে আলোচনা করা হলো :

১. দারিদ্র্যের দুষ্টচক্র : বাংলাদেশের মানুষের মাথাপিছু আয় খুবই কম । কারণ উৎপাদনও কম । উৎপাদন কম হওয়ায় মাথাপিছু আয়ও কম ফলে চাহিদা বা সঞ্চয়ও কম যার ফলে বিনিয়োগও কম হয় । ২০১০-১১ অর্থবছরে সরকারি বিনিয়োগ জিডিপির ৫.২৮ % মাত্র আর ( বেসরকারি বিনিয়োগ জিডিপির ১৯.৪৬ % ) । মাথাপিছু জাতীয় আয় মাত্র ৭৫১ ডলার ।

২. মূলধনের অপর্যাপ্তত : আমাদের মূলধনের পরিমাণ তথা যন্ত্রপাতি , কলকারখানা অপর্যাপ্ত ফলে বিনিয়োগও কম ।

৩. অনুন্নত মানব সম্পদ : আমাদের মানব সম্পদও অনুন্নত । মানব সম্পদের সূচক তথা শিক্ষা ও নারী উন্নয়নের দিক থেকে আমাদের দেশ উন্নত দেশ থেকে অনেক পিছিয়ে আছে । অনুন্নত মানব সম্পদ দক্ষতার সাথে উৎপাদন ক্ষেত্রে ব্যবহার হয় না ফলে বিনিয়োগও স্বল্প হয় ।

৪. উদ্যোক্তা শ্রেণীর অভাব : ব্যবসায় বাণিজ্যে প্রচলিত কথায় ‘ No risk no gain ‘ অর্থাৎ ঝুঁকি গ্রহণ না করলে কোন অর্জনই হয় না । যেহেতু ব্যবসায় বাণিজ্যটি মুনাফা বা লোকসানের সাথে জড়িত । এক্ষেত্রে ঝুঁকি গ্রহণ করে বিনিয়োগ করতে হয় । আর ঝুঁকি গ্রহণ করে উদ্যোক্তা শ্রেণী । আমাদের দেশে উদ্যোক্তা শ্রেণীর অভাব ।

৫. স্বল্প সঞ্চয় : সঞ্চয় থেকে বিনিয়োগ হয় । আমাদের সঞ্চয়ের পরিমাণ খুবই কম । ২০০৯-১০ অর্থবছরে সরকারি সঞ্চয়ের পরিমাণ জিডিপিতে ছিল মাত্র ১.৩৫ % আর বেসরকারি সঞ্চয়ের হার ছিল ১৮.৭৫ % । এত স্বল্প সঞ্চয়ের কারণে বিনিয়োগও কম ।

৬. দুর্বল আর্থসামাজিক অবকাঠামো : বাংলাদেশের আর্থসামাজিক অবকাঠামো তথা যোগাযোগ ব্যবস্থা , পরিবহন ব্যবস্থা , শিক্ষা , স্বাস্থ্য , ব্যাংক ও বীমা ব্যবস্থাসহ গ্যাস বিদ্যুৎ সরবরাহ অনুন্নত হওয়ায় অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড স্থবির । তাই বিনিয়োগও কম হয় ।

৭. অনিশ্চিত মূলধন ও মুদ্রা বাজার : বাংলাদেশের মূলধন বাজার তথা শেয়ার বাজার কাঠামো খুবই দুর্বল ও অনিশ্চিত । বর্তমানে শেয়ার বাজারের ধ্বস বাংলাদেশের ইতিহাসে স্মরণযোগ্য । আবার মুদ্রা বাজারও সুসংগঠিত নয় । ফলে বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগে আগ্রহী হয় না ।

৮. অনুন্নত প্রযুক্তি : বিভিন্ন সেক্টরে উৎপাদন স্তরে অনুন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে উৎপাদন কার্য সম্পন্ন হয় । ফলে খরচ বেশি হয় এবং মুনাফা কম হয় । এজন্য বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগে আগ্রহী হয় না ।

৯. আইনশৃঙ্খলা ও সামাজিক নিরাপত্তার অভাব : বাংলাদেশে আইনশৃঙ্খলার অবনতি ও সামাজিক নিরাপত্তার অভাবে বিনিয়োগকারিগণ নিরুৎসাহিত হয় ।

১০. রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা : বাংলাদেশে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণে ব্যবসায় বাণিজ্যের পরিবেশ সবসময় অনুকূল থাকে না । এ রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণে বিনিয়োগ কার্যক্রম ব্যাহত হয় ।

উপসংহার : স্বল্প বিনিয়োগের জন্য উপযুক্ত কারণগুলোই দায়ী ।

[ad_2]



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!