ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ ইংরেজি রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079
Earn bitcoinGet 100$ bitcoin

প্রশ্নঃ বাংলাদেশে স্বল্প বিনিয়োগের কারণ কী ?

[ad_1]

প্রশ্নঃ বাংলাদেশে স্বল্প বিনিয়োগের কারণ কী ?

উত্তর ৷ ভূমিকা : বাংলাদেশে স্বল্প বিনিয়োগ বিরাজমান । স্বল্প বিনিয়োগের জন্য বহুবিধ কারণ রয়েছে ।

স্বল্প বিনিয়োগের কারণ : বাংলাদেশে স্বল্প বিনিয়োগের কারণগুলো নিম্নে আলোচনা করা হলো :

১. দারিদ্র্যের দুষ্টচক্র : বাংলাদেশের মানুষের মাথাপিছু আয় খুবই কম । কারণ উৎপাদনও কম । উৎপাদন কম হওয়ায় মাথাপিছু আয়ও কম ফলে চাহিদা বা সঞ্চয়ও কম যার ফলে বিনিয়োগও কম হয় । ২০১০-১১ অর্থবছরে সরকারি বিনিয়োগ জিডিপির ৫.২৮ % মাত্র আর ( বেসরকারি বিনিয়োগ জিডিপির ১৯.৪৬ % ) । মাথাপিছু জাতীয় আয় মাত্র ৭৫১ ডলার ।

২. মূলধনের অপর্যাপ্তত : আমাদের মূলধনের পরিমাণ তথা যন্ত্রপাতি , কলকারখানা অপর্যাপ্ত ফলে বিনিয়োগও কম ।

৩. অনুন্নত মানব সম্পদ : আমাদের মানব সম্পদও অনুন্নত । মানব সম্পদের সূচক তথা শিক্ষা ও নারী উন্নয়নের দিক থেকে আমাদের দেশ উন্নত দেশ থেকে অনেক পিছিয়ে আছে । অনুন্নত মানব সম্পদ দক্ষতার সাথে উৎপাদন ক্ষেত্রে ব্যবহার হয় না ফলে বিনিয়োগও স্বল্প হয় ।

৪. উদ্যোক্তা শ্রেণীর অভাব : ব্যবসায় বাণিজ্যে প্রচলিত কথায় ‘ No risk no gain ‘ অর্থাৎ ঝুঁকি গ্রহণ না করলে কোন অর্জনই হয় না । যেহেতু ব্যবসায় বাণিজ্যটি মুনাফা বা লোকসানের সাথে জড়িত । এক্ষেত্রে ঝুঁকি গ্রহণ করে বিনিয়োগ করতে হয় । আর ঝুঁকি গ্রহণ করে উদ্যোক্তা শ্রেণী । আমাদের দেশে উদ্যোক্তা শ্রেণীর অভাব ।

৫. স্বল্প সঞ্চয় : সঞ্চয় থেকে বিনিয়োগ হয় । আমাদের সঞ্চয়ের পরিমাণ খুবই কম । ২০০৯-১০ অর্থবছরে সরকারি সঞ্চয়ের পরিমাণ জিডিপিতে ছিল মাত্র ১.৩৫ % আর বেসরকারি সঞ্চয়ের হার ছিল ১৮.৭৫ % । এত স্বল্প সঞ্চয়ের কারণে বিনিয়োগও কম ।

৬. দুর্বল আর্থসামাজিক অবকাঠামো : বাংলাদেশের আর্থসামাজিক অবকাঠামো তথা যোগাযোগ ব্যবস্থা , পরিবহন ব্যবস্থা , শিক্ষা , স্বাস্থ্য , ব্যাংক ও বীমা ব্যবস্থাসহ গ্যাস বিদ্যুৎ সরবরাহ অনুন্নত হওয়ায় অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড স্থবির । তাই বিনিয়োগও কম হয় ।

৭. অনিশ্চিত মূলধন ও মুদ্রা বাজার : বাংলাদেশের মূলধন বাজার তথা শেয়ার বাজার কাঠামো খুবই দুর্বল ও অনিশ্চিত । বর্তমানে শেয়ার বাজারের ধ্বস বাংলাদেশের ইতিহাসে স্মরণযোগ্য । আবার মুদ্রা বাজারও সুসংগঠিত নয় । ফলে বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগে আগ্রহী হয় না ।

৮. অনুন্নত প্রযুক্তি : বিভিন্ন সেক্টরে উৎপাদন স্তরে অনুন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে উৎপাদন কার্য সম্পন্ন হয় । ফলে খরচ বেশি হয় এবং মুনাফা কম হয় । এজন্য বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগে আগ্রহী হয় না ।

৯. আইনশৃঙ্খলা ও সামাজিক নিরাপত্তার অভাব : বাংলাদেশে আইনশৃঙ্খলার অবনতি ও সামাজিক নিরাপত্তার অভাবে বিনিয়োগকারিগণ নিরুৎসাহিত হয় ।

১০. রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা : বাংলাদেশে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণে ব্যবসায় বাণিজ্যের পরিবেশ সবসময় অনুকূল থাকে না । এ রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণে বিনিয়োগ কার্যক্রম ব্যাহত হয় ।

উপসংহার : স্বল্প বিনিয়োগের জন্য উপযুক্ত কারণগুলোই দায়ী ।

[ad_2]

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন:01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!