নৈতিকতা হলো একটি ব্যক্তি বা সমাজের মান, নীতি, এবং আদর্শের প্রতি মৌল্যবান মনোভাব বা চরিত্র। এটি মানুষের আচার, আচরণ, এবং সম্পর্কসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত মানব মৌল্যগুলির আদর্শ অনুসরণ করার একটি উদ্দীপক।

নৈতিকতা (ইংরেজি: Morality), যার অর্থ হলো ভদ্রতা, চরিত্র, উত্তম আচরণ। এটি মূলত উদ্দেশ্য,সিদ্ধান্ত এবং কর্মের মধ্যকার ভালো-খারাপ,উচিত-অনুচিত এর পার্থক্যকারী। নৈতিকতা হলো কোনো মানদন্ড বা নীতিমালা যা নির্দিষ্ট কোন আদর্শ, ধর্ম বা সংস্কৃতি থেকে আসতে পারে।

নৈতিকতা মানুষের আদর্শ ও মৌল্যের প্রতি মনোভাব, সহজে বলতে গেলে, এটি ঠিকমতো ও সঠিকভাবে করা কিংবা হয়ার সত্ত্বে পূর্ববর্তী মানবতা, সমাজিক ন্যায়, ব্যাবসায়িক সংবেদনশীলতা, এবং ভাল আচরণের দিকে ইতিবাচক একটি উদ্দীপক। নৈতিক মানবতা ব্যক্তির সার্বিক উন্নতি ও সমাজের ভালোবাসা বা একটি সুস্থ সমাজের মূল অংশ হতে পারে।

নীতিশাস্ত্র আমাদের নৈতিক বিচারের যৌক্তিক ন্যায্যতা পরীক্ষা করে; এটি নৈতিকভাবে সঠিক বা ভুল, ন্যায় বা অন্যায় অধ্যয়ন করে । বৃহত্তর অর্থে, নৈতিকতা মানুষ এবং প্রকৃতির সাথে এবং অন্যান্য মানুষের সাথে তাদের মিথস্ক্রিয়া, স্বাধীনতা, দায়িত্ব এবং ন্যায়বিচারের উপর প্রতিফলিত হয়।

নৈতিকতা হলো ভালো-মন্দ, উচিত-অনুচিত, ন্যায়-অন্যায় এর ধারণার উপর ভিত্তি করে তৈরি করা এক set of মানদণ্ড যা ব্যক্তি ও সমাজের আচরণকে নিয়ন্ত্রণ করে।

নৈতিকতার কিছু বৈশিষ্ট্য:

  • সার্বজনীনতা: নৈতিকতা সকলের জন্য প্রযোজ্য।
  • উদ্দেশ্যমূলক: নৈতিকতা ব্যক্তিগত পছন্দের উপর নির্ভর করে না।
  • যৌক্তিকতা: নৈতিক নীতিগুলি যুক্তি ও প্রমাণের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়।
  • কার্যকারিতা: নৈতিক নীতিগুলি ব্যক্তি ও সমাজের জন্য কল্যাণকর হতে হবে।

নৈতিকতার উৎস:

  • ধর্ম: অনেক ধর্মের নিজস্ব নৈতিক নীতিমালা রয়েছে।
  • দর্শন: নীতিশাস্ত্র নৈতিকতার ধারণা ও নীতিগুলি নিয়ে আলোচনা করে।
  • সংস্কৃতি: সংস্কৃতি সমাজের নৈতিক মূল্যবোধকে প্রভাবিত করে।
  • ব্যক্তিগত বিবেক: ব্যক্তির বিবেক নৈতিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

নৈতিকতার গুরুত্ব:

  • ব্যক্তিগত উন্নয়ন: নৈতিকতা ব্যক্তির চরিত্র গঠনে সাহায্য করে।
  • সামাজিক সম্প্রীতি: নৈতিকতা সমাজে শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখে।
  • ন্যায়বিচার: নৈতিকতা ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় সহায়তা করে।
  • মানবিক মূল্যবোধ: নৈতিকতা মানবিক মূল্যবোধের রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

উদাহরণ:

  • মিথ্যা বলা অনৈতিক।
  • অন্যের প্রতি সহানুভূতিশীল হওয়া নৈতিক।
  • চুরি করা অনৈতিক।
  • পরিবেশের যত্ন নেওয়া নৈতিক।

নৈতিকতা সমাজের একটি গুরুত্বপূর্ণ ভিত্তি। নৈতিক নীতিগুলি ব্যক্তি ও সমাজকে সঠিক দিকে পরিচালিত করে।

admin

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!