ক-বিভাগ

মুসলিম দর্শনের প্রতি বিরূপ মনোভাব পোষণ করেন কারা?
উত্তর : মুসলিম দর্শনের প্রতি বিরূপ মনোভাব পোষণ করেন পাশ্চাত্য দার্শনিকরা।
মুসলিম দর্শনের সম্ভাব্যতাকে কারা অস্বীকার করেন?
উত্তর : মুসলিম দর্শনের সম্ভাব্যতাকে অস্বীকার করেন পাশ্চাত্য দার্শনিকরা।
পাশ্চাত্য দার্শনিকরা মুসলিম দর্শনের বিরুদ্ধে কয়টি অভিযোগ উত্থাপন করেন?
উত্তর : পাশ্চাত্য দার্শনিকরা মুসলিম দর্শনের বিরুদ্ধে তিনটি অভিযোগ উত্থাপন করেন।
কোথায় স্বাধীন চিন্তার স্থান নেই?
উত্তর : কুরআনে স্বাধীন চিন্তার স্থান নেই।
মুসলিম জাতি কোন ধরনের জাতি?
উত্তর : মুসলিম জাতি স্বতন্ত্র জাতি।
মুসলিম দর্শনের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগগুলো কেমন?
উত্তর : মুসলিম দর্শনের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগগুলো মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।
“ধর্মে কোন জবরদস্তি নেই, সত্য ভ্রান্তির পথ থেকে আপন দীপ্তিতে দীপ্তমান” –কিসে ঘোষণা করা হয়েছে?
উত্তর : “ধর্মে কোন জবরদস্তি নেই, সত্য ভ্রান্তির পথ থেকে আপন দীপ্তিতে দীপ্তমান”–কোরআনে ঘোষণা করা হয়েছে।
“যারা বলেছেন যে ইসলাম ধর্ম তলোয়ার দ্বারা বা বল প্রয়োগে প্রচারিত, তারা প্রকৃতপক্ষে শক্তি ও ধর্মান্তর শব্দ দু’টোর অর্থ জানে না।” উক্তিটি কার।
উত্তর : “যারা বলেছেন যে ইসলাম ধর্ম তলোয়ার দ্বারা বা বল প্রয়োগে প্রচারিত, তারা প্রকৃতপক্ষে শক্তি ও ধর্মান্তর শব্দ দু’টোর অর্থ জানে না।” – উক্তিটি বিখ্যাত ইতিহাসবেত্তা
পাশ্চাত্য সাহিত্যে মাঝে মাঝে কোন নামটি পাওয়া যায়?
উত্তর : পাশ্চাত্য সাহিত্যে মাঝে মাঝে ‘আরবীয় দর্শন’ নামটি পাওয়া যায়?
“পাশ্চাত্য সাহিত্যে মাঝে মাঝে ‘আরবীয় দর্শন’ নামটি পাওয়া যায়” –কে বলেছেন?
উত্তর : “পাশ্চাত্য সাহিত্যে মাঝে মাঝে ‘আরবীয় দর্শন’ নামটি পাওয়া যায়” –বলেছেন আলফ্রেড গুইলাম ।
“গ্রিক ভাষা থেকে অনুদিত গ্রন্থাবলির উপর নির্ভর করেই মুসলিম দর্শন নিরন্তর সংগ্রহ হিসেবে চলে এসেছে” বলেছেন?
উত্তর : “গ্রিক ভাষা থেকে অনুদিত গ্রন্থাবলির উপর নির্ভর করেই মুসলিম দর্শন নিরন্তর সংগ্রহ হিসেবে চলে এসেছে” বলেছেন ডি ব্যুর।
কাদের অভিযোগটি অমূলক, বিদ্বেষপ্রসূত ও অনৈতিহাসিক?
উত্তর : পাশ্চাত্য পণ্ডিতদের অভিযোগটি অমূলক, বিদ্বেষপ্রসূত ও অনৈতিহাসিক।
পাশ্চাত্য গ্রন্থাকারদের দ্বিতীয় অভিযোগটি কেমন?
উত্তর : পাশ্চাত্য গ্রন্থাকারদের দ্বিতীয় অভিযোগটি ভিত্তিহীন ও অনৈতিহাসিক।
খ্রিস্টান ইউরোপে মুসলিম বিজ্ঞান ও পদ্ধতির শিষ্য কে?
উত্তর : খ্রিস্টান ইউরোপে মুসলিম বিজ্ঞান ও পদ্ধতির শিষ্য রোজার বেকন।
সমগ্র ইউরোপে বিস্তৃত হয়েছিল কী?
উত্তর : আরবীয় বিজ্ঞানের পরীক্ষাণাত্মক পদ্ধতিসমূহ সমগ্র ইউরোপে বিস্তৃত হয়েছিল।
কারা জ্ঞান বিজ্ঞান দর্শনের পৃষ্ঠপোষক ছিলেন?
উত্তর : আরবরা জ্ঞান-বিজ্ঞান দর্শনের পৃষ্ঠপোষক ছিলেন।
কুরআন শব্দটির অর্থ কী?
উত্তর : কুরআন শব্দটির অর্থ আবৃত্তি বা পাঠ ।
কুরআন কার বাণী?
উত্তর : কুরআন আল্লাহর বাণী ।
হাদিস শরীফ কার বাণী?
উত্তর : হাদিস শরীফ হযরত মুহাম্মদ (স.) এর বাণী ।
ইসলামি সভ্যতা কী থেকে উৎসারিত?
উত্তর : ইসলামি সভ্যতা কুরআন শরীফ ও হাদিস শরীফের শিক্ষা থেকে উৎসারিত।
কুরআন শরীফ মানুষকে কী দিয়েছে?
উত্তর : কুরআন শরীফ মানুষকে সৃষ্টির তথ্য উদ্ঘাটনের জন্য আকুল আবেদন জানিয়েছে এবং জীবন জগতের
অবস্থাবলি সম্পর্কে গভীরভাবে চিন্তা করার জন্য নির্দেশ দিয়েছে।
“জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত জ্ঞান অন্বেষণ করো” – কে বলেছেন?
উত্তর : “জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত জ্ঞান অন্বেষণ করো” – বলেছেন হযরত মুহাম্মদ (স.)।
ইসলামী দর্শনের বিশেষ বৈশিষ্ট্য কী?
উত্তর : ইসলামী দর্শনের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো পার্থিব ও পারলৌকিক জীবনের সমান গুরুত্ব আরোপ করা।
মুসলিম দর্শনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনয ়ন করেছেন কারা?
উত্তর : মুসলিম দর্শনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনয়ন করেছেন ইউরোপীয় গ্রন্থকাররা।
গ্রিক দর্শনকে পতনের মুখ থেকে রক্ষা করেছেন কারা?
উত্তর : গ্রিক দর্শনকে পতনের মুখ থেকে রক্ষা করেছেন আরবরা বা আরবগণ।
দর্শন ও বিজ্ঞান বিষয়ক গ্রিক গ্রন্থসমূহ আরবী ভাষায় অনুবাদ করেন কারা?
উত্তর : দর্শন ও বিজ্ঞান বিষয়ক গ্রিক গ্রন্থসমূহ আরবী ভাষায় অনুবাদ করেন আরবরা।
হযরত মুহাম্মদ (স.) মৃত্যুর কত বৎসরের মধ্যে আরবরা পৃথিবীর তাবৎ জ্ঞানবিজ্ঞানের অধিকারী হন?
উত্তর : হযরত মুহাম্মদ (স.) দুইশত বৎসরের মধ্যে আরবরা পৃথিবীর তাবৎ জ্ঞানবিজ্ঞানের অধিকারী হন।
কারা কুরআন ও হাদিসের আলোকে জীবন ও জগৎকে নতুন ব্যাখ্যা দান করে চিন্তার রাজ্যে নব দিগন্তের সূচনা করেন?
উত্তর : আরবরা কুরআন ও হাদিসের আলোকে জীবন ও জগৎকে নতুন ব্যাখ্যা দান করে চিন্তার রাজ্যে নব দিগন্তের
সূচনা করেন।
“এই যদি হয় ইসলাম, তবে আমাদের প্রতিটি চিন্তাশীল ব্যক্তিই হচ্ছে মুসলিম” – মন্তব্যটি কে করেছেন?
উত্তর : “এই যদি হয় ইসলাম, তবে আমাদের প্রতিটি চিন্তাশীল ব্যক্তিই হচ্ছে মুসলিম” – মন্তব্যটি করেছেন প্রখ্যাত জার্মান কবি গ্যাটে।
“কুরআনের মধ্যে এমন কিছু নেই যা বুদ্ধির দ্বারা বিশ্লেষণ করা যায় না কিংবা প্রকৃতির নিয়মবিধির সাথে সংগতিপূর্ণ নয়”- উক্তিটির কার?
উত্তর : “কুরআনের মধ্যে এমন কিছু নেই যা বুদ্ধির দ্বারা বিশ্লেষণ করা যায় না কিংবা প্রকৃতির নিয়মবিধির সাথে
সংগতিপূর্ণ নয়”- উক্তিটি ইমাম রাজি ও আল্লামা জামাকশারীর।

খ-বিভাগ

প্রশ্ন।১।মুসলিম দর্শনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ লিখ ।
প্রশ্ন।২।মুসলিম দর্শনের সম্ভাব্যতার বিরুদ্ধে উত্থাপিত আপত্তিগুলো তুমি কিভাবে খণ্ডন কর।
প্রশ্ন।৩।মুসলিম দর্শনের ক্রমবিকাশে গ্রিক দর্শনের প্রভাব লিখ ।
প্রশ্ন॥৪॥মুসলিম দর্শনের ক্রমবিকাশে পারস্যের প্রভাব লিখ ।
প্রশ্ন॥৫॥ মুসলিম দর্শনের ক্রমবিকাশে ভারতীয় প্রভাব লিখ ।

গ-বিভাগ

প্রশ্ন।১।দর্শনের আলোচনায় মুসলিম দর্শন সম্ভব কী? তোমার মতের পক্ষে যুক্তি দাও।
প্রশ্ন।২।মুসলিম দর্শনের সম্ভাব্যতার বিরুদ্ধে উত্থাপিত আপত্তিগুলো তুমি কিভাবে খণ্ডন করবে? ব্যাখ্যা কর।
প্রশ্ন।৩।মুসলিম চিন্তাবিদগণ অন্যান্য দর্শন দ্বারা প্রভাবিত হয়েছেন কী? যদি হয়ে থাকেন তার ধারাবাহিক বর্ণনা কর।
প্রশ্ন॥৪॥মুসলিম দর্শনের স্বরূপ আলোচনা কর। মুসলিম দর্শনের সম্ভাব্যতার বিরুদ্ধে উত্থাপিত আপত্তিগুলো তুমি কিভাবে খণ্ডন করবে?

admin

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!