অথবা, গবেষণা নকশার উদ্দেশ্যগুলো কী কী?
অথবা, গবেষণা নকশার উদ্দেশ্যগুলো তুলে ধর।
অথবা, গবেষণা নকশার উদ্দেশ্যগুলো লিখ।
উত্তর৷ ভূমিকা :
গবেষণা নকশা হচ্ছে গবেষণা কাজের পূর্বপরিকল্পনা। প্রকৃতপক্ষে গবেষণার জন্য প্রাপ্ত সম্পদের সুষ্ঠু ও সদ্ব্যবহারের মাধ্যমে গবেষণার উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্য সঠিক ও যথাযথ বৈজ্ঞানিক পদ্ধতির সাহায্যে উপাত্ত সংগ্রহ ও উপাত্ত বিশ্লেষণের গবেষণা নকশা। মূলত গবেষণা নকশার নির্দেশনা অনুযায়ী সমগ্র গবেষণা কাজটি সুশৃঙ্খল ও সঠিকভাবে পরিচালিত হয়।
গবেষণা নকশার উদ্দেশ্য : এ দৃষ্টিভঙ্গিতে বলা যায়, সমাজ গবেষণায় গবেষণা নকশার উদ্দেশ্য ব্যাপক। নিম্নে গবেষণা নকশার কতিপয় প্রধান উদ্দেশ্য উল্লেখ করা হলো :
বিশিষ্ট সমাজ গবেষক কার্লিনজার (Kerlinger) তাঁর ‘Foundations of Behavioural Research’ গ্রন্থে গবেষণা নকশার দুটি মৌলিক উদ্দেশ্যের কথা বলেছেন । যথা :
১. গবেষণার প্রশ্নগুলোর উত্তর সরবরাহ : গবেষণা নকশার মৌলিক উদ্দেশ্য হলো গবেষণায় উত্থাপিত প্রশ্নগুলোর নির্ভুল উত্তরদান । অর্থাৎ গবেষণায় কি পর্যবেক্ষণ করতে হবে, কিভাবে পর্যবেক্ষণ করতে হবে, সংগৃহীত উপাত্তের উপস্থাপন ও বিশ্লেষণ কিভাবে করতে হবে ইত্যাদি সম্পর্কে দিকনির্দেশনা গবেষণা নকশা থেকে আমরা পেয়ে থাক ।
২. চলকগুলোর নিয়ন্ত্রণ করা : গবেষণা নকশার একটি প্রধান উদ্দেশ্য হলো গবেষণায় ব্যবহৃত চলকগুলো নিয়ন্ত্রণ করা । কেননা চলকগুলো নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব না হলে গবেষণার জন্য সংগৃহীত উপাত্তের স্থায়ী ভুলের সম্ভাবনা থেকে যায় । ফলে গবেষণার প্রকৃত উদ্দেশ্য ব্যাহত হয় ।
৩. গবেষণার ত্রুটি চিহ্নিতকরণ : গবেষণা নকশা প্রণয়নের মাধ্যমে গবেষণা কাজ শুরুর পূর্বেই প্রকৃত কাজের একটি সামগ্রিক প্রতিচ্ছবি পাওয়া যায়। ফলে প্রকৃত গবেষণা কাজ শুরুর পূর্বেই গবেষণা নকশার সাহায্যে গবেষণা কাজের সম্ভাব্য ত্রুটি বা অস্পষ্টতা চিহ্নিত করা যায় এবং ঐসব ত্রুটি বা অস্পষ্টতা দূরীকরণের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপও গ্রহণ করা যায় । তাই বলা যায়, গবেষণার সম্ভাব্য ত্রুটি চিহ্নিতকরণ ও সংশোধন গবেষণা নকশার অন্যতম উদ্দেশ্য ।
৪. কার্যকারণ সম্পর্ক নির্ণয় : গবেষণা নকশার অপর একটি প্রধান উদ্দেশ্য হলো গবেষণাধীন বিভিন্ন চলকের মধ্যকার কার্যকারণ সম্পর্ক (Causal relations) নির্ণয় করতে গবেষককে সহায়তা করা।
৫. যৌক্তিক সিদ্ধান্ত : গবেষণা নকশার অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য হলো গবেষণার জন্য সংগৃহীত গ্রহণযোগ্য, বস্তুনিষ্ঠ ও সঠিক উপাত্তগুলোর পরিসংখ্যানিক বিশ্লেষণের (Statistical analysis) মাধ্যমে গবেষণা সম্পর্কে যৌক্তিক সিদ্ধান্তে উপনীত হতে গবেষককে সহায়তা করা।
উপসংহার : উপর্যুক্ত আলোচনার সুবাদে বলা যায় যে, একটি উত্তম গবেষণা নকশা মূলত উপর্যুক্ত উদ্দেশ্যগুলো অর্জনে গবেষককে সহায়তা করে থাকে। ফলে যুক্তিপূর্ণভাবে সময়, শ্রম এবং অর্থ সাশ্রয়ের মাধ্যমে সুষ্ঠুভাবে গবেষণা কাজটি পরিচালনা করা সম্ভব হয়।

admin

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!