ডিগ্রি প্রথম এবং অনার্স দ্বিতীয় বর্ষ ২০২৩ এর সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯

 ডিগ্রী সকল বই

আদৰ্শন প্রকাশনী লিমিটেড ‘চোখের মানে ছবির সাধনা, কানের সাধনা গানের।”- ব্যাখ্যা কর।

উৎস : ব্যাখ্যেয় গদ্যাংশটুকু মননশীল প্রাবন্ধিক মোতাহের হোসেন চৌধুরী বিরচিত ‘সংস্কৃতি কথা’ শীর্ষক প্রবন্ধ থেকে চয়ন
প্রসঙ্গ : এখানে প্রাবন্ধিক ইন্দ্রিয়ের সাথে সংস্কৃতির যে সম্পর্ক তা নির্ণয় করতে গিয়ে এ মন্তব্য করেছেন।
বিশ্লেষণ : ধর্ম মনুষ্যত্বের বিকাশকে কখনো বড় করে দেখে না। সে কারণে ধর্ম ইন্দ্রিয়ের পরিপন্থী। অন্যদিকে সংস্কৃতি পঞ্চ ইন্দ্রিয়ের প্রদীপ জ্বেলে জীবন সাধনার দ্বার খুলে দেয়। মন ও আত্মার সাথে যুক্ত করে চক্ষু, কর্ণ, নাসিকা, জিহ্বা ও ত্বকের নবজন্মদানই সংস্কৃতির উদ্দেশ্য। অবশ্য এ ইন্দ্রিয়সমূহের সব ক’টিই যে সমতুল্য তা নয়। ইন্দ্রিয়গুলোর মধ্যে চক্ষু আর কানই সেরা। তাই এ দুটোর স্থান পাঁচটির মধ্যে আগে। চোখের মানে ছবির সাধনা, কানের সাধনা গানের। চোখ ও কান আত্মার জিহ্বা। এদের সাহায্যেই আত্মা খাদ্য সংগ্রহ করে। অথচ ভাবলে আশ্চর্য হতে হয়, কোন কোন ধর্ম চোখ ও কানের সাধনার বিরুদ্ধে। এখানে তারা পতনের ফাঁদ দেখতে পায়। তাই আমরা চোখ থাকতেও অন্ধ আর কান থাকতেও বধির। ছবি ও গানের সাধনা সংস্কৃতির অন্যতম বাহক। একে বাদ দিলে সংস্কৃতি তথা জীবনের বিকাশ ব্যাহত হতে বাধ্য ধর্ম এ দুটোকে অস্বীকার করলেও সংস্কৃতি এদেরকে চলার পথের দিশারি হিসেবে গ্রহণ করে।
মন্তব্য : চোখ ও কানের প্রতি উদাসীন থাকা আর আত্মার প্রতি উদাসীন থাকা একই কথা। সংস্কৃতিবানরা এ কথাটা বুঝেন কিন্তু ধার্মিকেরা এটা স্বীকার করেন না।



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!