ডিগ্রি প্রথম এবং অনার্স দ্বিতীয় বর্ষ ২০২৩ এর সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯

 ডিগ্রী সকল বই

ষষ্ঠ অধ্যায় বিকেন্দ্রীকরণ এবং সামাজিক পরিবর্তন

ক-বিভাগ

বিকেন্দ্রীকরণ বলতে কী বুঝ?
উত্তর : কেন্দ্রীয় সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কাছে আইনসঙ্গতভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা বণ্টনই বিকেন্দ্রীকরণ।
গণতান্ত্রিক বিকেন্দ্রীকরণের মতাদর্শ কী?
উত্তর : স্থানীয় পর্যায়ে প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট নীতিনির্ধারণী বিষয়াবলিতে স্থানীয় জনগণের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা গণতান্ত্রিক বিকেন্দ্রীকরণের মতাদর্শ।
বিকেন্দ্রীকরণকৃত প্রশাসন কাকে বলে?
উত্তর : প্রশাসনিক সংস্থার কার্যাদি ও দায়িত্বসমূহ তার কেন্দ্রে বা কেন্দীয় সংস্থার উপর ন্যস্ত না থেকে বিভিন্ন অধস্তন সংস্থাসমূহ বা কেন্দ্রসমূহে অথবা স্থানীয় বা আঞ্চলিক কর্মকর্তাদের উপর হস্তান্তর করা হলে এমন প্রশাসনকে বিকেন্দ্রীকরণকৃত প্রশাসন বলা হয়ে থাকে।

বিকেন্দ্রীকরণের উদ্দেশ্য কী?
উত্তর : কেন্দ্রীয় সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কাছে আইনসম্মতভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা বণ্টনই বিকেন্দ্রীকরণের উদ্দেশ্য।
বিকেন্দ্রীকরণের ক্ষেত্রে বেশির ভাগ সিদ্ধান্ত কে গ্রহণ করে?
উত্তর : আঞ্চলিক সংগঠন বা সংস্থাগুলো গ্রহণ করে।
বাংলাদেশের রাজনৈতিক বিকেন্দ্রীকরণের প্রকৃষ্ট উদাহরণ কী?
উত্তর : জেলা পরিষদ, পৌরসভা, ইউনিয়ন পরিষদ ইত্যাদি ।
ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণের কারণগুলো কী কী?
উত্তর : (ক) প্রশাসনিক কারণ, (খ) ক্রিয়ামূলক কারণ, (গ) বাহ্যিক কারণ।
বিকেন্দ্রীকরণের প্রশাসনিক উপাদানগুলো কী কী?
উত্তর : সংস্থার বয়স, সংস্থার নীতি ও পদ্ধতিসমূহের স্থায়িত্ব, সংস্থার আঞ্চলিক কর্মচারীদের দক্ষতা, সংস্থার
কর্মসম্পাদনে গতি ও মিতব্যয়িতা এবং প্রশাসনিক দৃঢ়তা ইত্যাদি ।
বিকেন্দ্রীকরণের প্রতিবন্ধকতাসমূহ কী কী?
উত্তর : (ক) ঐতিহ্যগত প্রভাব, (খ) কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ ও তত্ত্বাবধানের প্রয়োজনীয়তা, (গ) স্থানীয় চাপসৃষ্টিকারী গোষ্ঠীসমূহের প্রভাব এবং (ঘ) বিভিন্ন বিকেন্দ্রিক সংস্থাসমূহের মধ্যে সমন্বয়।
বিকেন্দ্রীকরণের তিনটি সুবিধা উল্লেখ কর।
উত্তর : (ক) জনগণের নিয়ন্ত্রণ ও অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে, (খ) সহযোগিতা স্থাপনের সুযোগ সৃষ্টি করে এবং (গ) সমন্বয়সাধন করে।
বিকেন্দ্রীকরণের ৩টি অসুবিধা উল্লেখ কর।
উত্তর : (ক) নীতিনির্ধারণ ও রক্ষায় বাধার সৃষ্টি করে; (খ) দৃষ্টিভঙ্গি সংকীর্ণ হয় এবং (গ) ব্যয় ভার বৃদ্ধি করে।
গণতন্ত্র ও বিকেন্দ্রীকরণের মধ্যে তিনটি সম্পর্ক উল্লেখ কর।
উত্তর : (ক) জনগণের অংশগ্রহণ নিশ্চিতকরণ; (খ) গণতন্ত্রের রূপকার; (গ) স্থানীয় নেতৃত্ব তৈরি।
সবুজ বিপ্লব বলতে কী বুঝ?
উত্তর : সবুজ বিপ্লব বলতে চল্লিশ দশক থেকে শুরু করে সত্তর দশক পর্যন্ত পরিচালিত কৃষি সম্পর্কিত গবেষণা,উন্নয়ন ও প্রযুক্তির উন্নয়নকে বুঝানো হয়।
Father of Green Revolution বলা হয় কাকে?
উত্তর : নরম্যান বোরলাক (Norman Borlaug)।

পল্লিউন্নয়ন বা গ্রামীণ উন্নয়নের প্রধান শর্ত কী?
উত্তর : সরকারকে গ্রামবাসীদের যথেষ্ট মাত্রায় শিক্ষিত করে তুলতে হবে এবং সামাজিক কু-প্রথাগুলোর সাথে ধর্মের
যে কোন রকম সম্পর্ক নেই তাও বুঝাতে হবে।
গ্রামীণ উন্নয়নের পথে সর্বপ্রথম বাধা কী?
উত্তর : গ্রামবাসীদের কুসংস্কার।
উন্নয়ন কাকে বলে?
উত্তর : সামাজিক, অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক অগ্রগতিকে উন্নয়ন বলে।
পল্লিউন্নয়ন কাকে বলে?
উত্তর : গ্রামীণ দরিদ্র জনগোষ্ঠীর আর্থসামাজিক ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে যে বিভিন্ন কর্মসূচি ও কৌশল অবলম্বন করা হয় তাকে পল্লিউন্নয়ন বলে।
পল্লি উন্নয়নের উদ্দেশ্য কী?
উত্তর : পল্লি উন্নয়নের উদ্দেশ্য হচ্ছে পল্লির সকল শ্রেণি ও স্তরের জনগণের অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন সাধন।
উন্নয়ন কৌশলের উদ্দেশ্য কী?
উত্তর : উন্নয়ন কৌশলের উদ্দেশ্য হচ্ছে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি করা।
বাংলাদেশের পল্লি উন্নয়নের প্রধান সমস্যা কী?
উত্তর : মূলধনের অভাব।
সামাজিক পরিবর্তন কী?
উত্তর : মানুষের জীবন প্রণালিতে যেসব পরিবর্তন ঘটে তাই সামাজিক পরিবর্তন
সামাজিক পরিবর্তনের উপাদানসমূহ কী?
উত্তর : (ক) শিক্ষা, (খ) পেশা এবং (গ) ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা ইত্যাদি ।
পল্লিউন্নয়ন নীতি কবে প্রণীত হয়েছে?
উত্তর : ২০০১ সালে ।

পল্লিউন্নয়ন নীতি ২০০১ প্রণীত হয়েছে কেন?
উত্তর : পল্লির জনগোষ্ঠীকে বাদ দিয়ে জাতীয় উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই পল্লিউন্নয়নকে সাংবিধানিকভাবে মূল্যায়ন করার লক্ষে প্রণীত হয়েছে ‘জাতীয় পল্লিউন্নয়ন নীতি ২০০১’।
গ্রামীণ উন্নয়নের ক্ষেত্রে প্রথম ধাপ কী ছিল?
উত্তর : ১৮৮৫ সালে ব্রিটিশ শাসনামলে গঠিত Local Self-government Act ছিল গ্রমীণ উন্নয়নের ক্ষেত্রে প্রথম ধাপ।
পল্লি উন্নয়নের কেন্দ্রবিন্দু কোনটি?
উত্তর : উপজেলা।
বাংলাদেশের জমিগুলো বিচ্ছিন্ন কেন?
উত্তর : উত্তরাধিকারসূত্রে জমি ভাগাভাগির কারণে এদেশের কৃষিজমিগুলো বিভক্ত।
বাংলাদেশে নীলচাষ কবে বন্ধ হয়?
উত্তর : ১৮৫৯-৬০ সালে।
বাংলায় ‘Workers and Peasants Party’ কবে প্রতিষ্ঠিত হয়?
উত্তর : ১৯২৬ সালে।
১৯৩৫ সালের ভারত শাসন আইনে কৃষকদের কোন শর্তে ভোটাধিকার প্রদানের সুযোগ দেয়া হয়?
উত্তর : ন্যূনতম ছয়আনা কর প্রদানের মাধ্যমে।
সিরাজগঞ্জে কৃষক বিদ্রোহ কত সালে অনুষ্ঠিত হয়?
উত্তর : ১৮৭২-৭৩ সালে।
তেভাগা কী?
উত্তর : বর্গাচাষি কর্তৃক চাষকৃত জমির উৎপন্ন ফসলের তিনভাগের দুইভাগ চাষির ও একভাগ ভূ-স্বামীর, এ ব্যবস্থা হচ্ছে তেভাগা।
তেভাগা আন্দোলনের মূল সময়কাল কখন?
উত্তর : ১৯৪৬-৪৭ সালে।
গ্রামীণ সমাজে পরিবর্তন ত্বরান্বিত করে- এমন পাঁচটি উপাদানের নাম লিখ।
উত্তর : (১) শিক্ষা, (২) গণমাধ্যম, (৩) যোগাযোগ ব্যবস্থা, (৪) মুদ্রা এবং (৫) নগর সংশ্লিষ্টতা
কৃষিক্ষেত্রে নবধারার ৪টি উপাদানের উল্লেখ কর।
উত্তর : (১) সেচ ব্যবস্থা, (২) রাসায়নিক সার, কীটনাশক ব্যবহার, (৩) উন্নত বীজ এবং (৪) আধুনিক যন্ত্রপাতি
(ট্রাক্টর, পাওয়ার টিলার)।
বাংলাদেশে মাথাপিছু কৃষিজমির পরিমাণ কত?
উত্তর : ০.০৮৪ হেক্টর।
বর্তমানে কত শতাংশ মানুষ গ্রামে বাস করে?
উত্তর : প্রায় ৭৩ শতাংশ।
কোন মডেলকে বাংলাদেশের গ্রমীণ উন্নয়নের পথিকৃৎ বলা হয়?
উত্তর : কুমিল্লা মডেলকে।
কুমিল্লা মডেল বা BARD কে, কতসালে প্রতিষ্ঠা করেন?
উত্তর : ড. আখতার হামিদ খান, ১৯৫৯ সালে।
BARD-এর পূর্ণরূপ লিখ।
উত্তর : Bangladesh Academy for Rural Development.
অংশগ্রহণ কি?
উত্তর : অংশগ্রহণ হচ্ছে সরকারের কার্যক্রমে সরাসরি সম্পৃক্তকরণ।
রাজনীতি কী?
উত্তর : রাজনীতি হচ্ছে সরাসরি বা রাষ্ট্রীয় কর্তৃপক্ষ ও সরকারের সাথে সম্পর্কযুক্ত জনসাধারণের জীবন ও কার্যাবলী ।
রাজনৈতিক অংশগ্রহণ কি?
উত্তর : রাজনৈতিক অংশগ্রহণ হলো রাজনৈতিক ব্যবস্থায় সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় সমাজের সদস্যদের সংশ্লিষ্টতা।
রাজনৈতিক অংশগ্রহণকে প্রধানত কয় ভাগে ভাগ করা হয়?
উত্তর : রাজনৈতিক অংশগ্রহণকে প্রধানত দু’ভাগে ভাগ করা যায় : সনাতন (Conventional) ও অসনাতন (Unconventional)
সনাতন অংশগ্রহণ বলতে কি বুঝায়?
উত্তর : সনাতন অংশগ্রহণ বলতে একজন নাগরিকের স্বাভাবিক ও বৈধ রাজনৈতিক কার্যাবলিকে বুঝায় ।
অসনাতন রাজনৈতিক অংশগ্রহণ বলতে কি বুঝায়?
উত্তর : অসানাতন রাজনৈতিক অংশগ্রহণ বলতে স্বাভাবিক রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড ছাড়া উগ্র বা কট্টর রাজনৈতিক
কর্মকাণ্ড বা বিপ্লবী রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডকে বুঝায় ।
অসনাতন রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের অন্তর্ভুক্ত বিষয়গুলো কি?
উত্তর : অসনাতন রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের অন্তর্ভূক্ত রয়েছে বিক্ষোভ প্রদর্শন, মার্চ করা, নাগরিক অসহযোগিতা বা গেরিলা কার্যক্রমে যুক্ত হওয়া, বিল্পব বা বিদ্রোহ (Rebelion)।
আধুনিক আলোচনায় রাজনৈতিক অংশগ্রহণকে কয়টি ভাগে ভাগ করা যায়?
উত্তর : সমর্থন সূচক অংশগ্রহণ (Support Participation) ও প্রতিবাদমূলক অংশগ্রহণ (Protest Participation)
রাজনৈতিক অংশগ্রহণ প্রক্রিয়ার অন্তর্ভুক্ত কর্মকাণ্ডগুলো কি কি?
উত্তর : ১. ভোটদান, ২. প্রচারণা, ৩. গোষ্ঠী কর্মকাণ্ড, ৪. সংকীর্ণ অংশগ্রহণ ৫. যোগাযোগ ৬.. বিক্ষোভ প্রদর্শন ও প্রতিবাদ ও হরতাল ধর্মঘট, ৭. সহিংসতা।
রাজনৈতিক অংশগ্রহণের নির্ধারক সমূহকে সাধারণত কি কি ভাগে ভাগ করা যায়?
উত্তর : ১. সামাজিক উপাদানসমূহ, ২. ব্যক্তিতান্ত্রিক উপাদান সমূহ ৩. অর্থনৈতিক উপাদানসমূহ, ৪. মনস্তাত্ত্বিক উপাদানসমূহ ৫.রাজনৈতিক উপাদানসমূহ।
রাজনৈতিক অংশগ্রহণের সামাজিক নির্ধারক বা উপাদনসমূকে কয়টি ভাগে ভাগ করা যায়?
উত্তর : ক. বয়স, খ. শিক্ষা, গ. ধর্ম, ঘ. নারী পুরুষ, ঙ. বৈবাহিক অবস্থা, চ. বসবাস ছ. জাতি জ. গোষ্ঠী।
রাজনৈতিক অংশগ্রহণের ব্যক্তিতান্ত্রিক উপাদান বা নির্ধারকসমূহকে কয়টি ভাগে ভাগ করা যায়?
উত্তর : ক. স্বাতন্ত্র, যোগ্যতা/সামর্থ্য ও আত্মবিশ্বাস, খ. বৰ্হিমুখিতা, সামাজিকতা ও বন্ধুত্ব গ. মনস্তাত্ত্বিক চাহিদা, ঘ. কর্তৃত্ববাদ ও গোড়ামী।
রাজনৈতিক অংশগ্রহণের অর্থনৈতিক উপাদান বা নির্ধারক সমূহ কী কী?
উত্তর : ক. আয় খ. পেশা।
রাজনৈতিক অংশগ্রহণের মনস্তাত্ত্বিক উপাদান সমূহ বা নির্ধারক সমূহ কী কী?
উত্তর : ক. ক্ষমতার আকাংখা, খ. রাজনৈতিক পরিবেশ সম্পর্কে অবহিত হবার আকাংখা গ. নিসঙ্গতা এবং ঘ. নিজ্ঞাত মানসিক দ্বন্দ্ব উদ্বেগ উত্তেজনা।
রাজনৈতিক অংশগ্রহণের রাজনীতিক উপাদানসমূহ বা নির্ধারকসমূহ কী কী?
উত্তর : ক. রাজনৈতিক দল, খ. রাজনৈতিক প্রচার গ. রাজনৈতিক পরিবেশ।
৫৭. স্থানীয় সংস্থায় রাজনৈতিক অংশগ্রহণের গুরুত্ব কী কী?
উত্তর : ক. গণতন্ত্রকে সুসংহত করণ খ. নেতৃত্বের বিকাশ, গ. ব্যয় সংকোচন ঘ. সরকার ও জনগণের মধ্যে সংযোগ৷ সাধন, ঙ.দেশপ্রেম সৃষ্টি, চ. সুনাগরিকতা গুণাবলীর বিকাশ ছ. পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন, জ. স্বেচ্ছশ্রম সৃষ্টি, ঝ. সামাজিক সমস্যা নিরসন, ঞ. সুশাসন প্রতিষ্ঠা, ট. সেবা প্রদান।
উন্নয়নশীল দেশসমূহের রাজনৈতিক অংশগ্রহণের প্রতিবন্ধকতা কী কী?
উত্তর : দারিদ্র্য, শিক্ষার নিম্নহার দুর্বল সামাজিকীকরণ, অসচেতনতা ও উদাসীনতা, সহিংসতা ইত্যাদি।
দলীয় পরিচিতি কী?
উত্তর : দলীয় পরিচিতি হলো কোন রাজনৈতিক দলের সাথে মানসিক সংশ্লিষ্টতা অথবা দলের প্রতি অঙ্গীকারবদ্ধতা।
রাজনৈতিক ক্ষমতাহীনতা বলতে কি বুঝায়?
উত্তর : রাজনৈতিক ক্ষমতাহীনতা বলতে রাজনৈতিক ব্যবস্থায় প্রভাব সৃষ্টির অক্ষমতাকে বুঝায়।
মানসিক সংশ্লিষ্টতা বলতে কি বুঝায়?
উত্তর : মানসিক সংশ্লিষ্টতা বলতে রাজনৈতিক বিষয় ও কর্মকাণ্ডে নাগরিকদের আগ্রহ ও এসবের সাথে তাদের সম্পর্কের মাত্রাকে বুঝায়।
রাজনৈতিক ফলপ্রসূতা কী?
উত্তর : রাজনৈতিক ফলপ্রসূতা হলো সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করতে পারার যোগ্যতার অনুভূতি।
জন অংশগ্রহণ বলতে কি বুঝায়?
উত্তর : জনঅংশগ্রহণ বলতে বুঝায় সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বাস্তাবায়নে জনসাধারণকে সরাসরি সংযুক্ত করা।
উন্নয়ন প্রশাসনের মূল উপাদান কী?
উত্তর : জনগণের অংশগ্রহণ।
স্থানীয় রাজনীতিতে জনগণ অংশগ্রহণ করে কোন পদ্ধতিতে?
উত্তর : রীতিসম্মত পদ্ধতিতে।
বাংলাদেশের রাজনীতিতে স্থানীয় অংশগ্রহণকারীদের কি বলা যায়?
উত্তর। মৌসুমি অংশগ্রহণ।
স্থানীয় জনগণ কোন কোন স্থানীয় সংস্থার কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করে?
উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা, সিটি কর্পোরেশন।
ইউনিয়ন পরিষদে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার মাধ্যম কি?।
উত্তর। পরিষদের সভা, প্রকল্প কমিটি ও কমিটি ব্যবস্থা।
বাংলাদেশে স্থানীয় সরকারের সর্বনিম্ন স্তর কোনটি?
উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ।
কোন কোন ক্ষেত্রে ইউনিয়ন পরিষদের ভূমিকা রয়েছে?
উত্তর : গ্রামীন, জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠা, স্ব-শাসন প্রতিষ্ঠা, নেতৃত্বের গুণাবলীর বিকাশ,জবাবদিহিমূলক স্থানীয় শাসন প্রতিষ্ঠা, স্থানীয় পর্যায়ে নেতৃত্ব দ্বারা স্ব-শাসন ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা ইত্যাদি।
২০০৯ সালের পৌরসভা আইনে কতজন সদস্য নিয়ে পরিষদের অনুরোধক্রমে ওয়ার্ড কমিটি গঠনের উপর গুরুত্ব প্রদান করেছে?
উত্তর : ১০ জন।
পৌরসভাগুলোকে গণতন্ত্রের বিদ্যালয়বলে কে অভিহিত করেছেন?
উত্তর : লর্ড রাইস (খড়ৎফ ইৎপর)।
কি কি লক্ষ্যকে সামনে রেখে সিটি কর্পোরেশনের সৃষ্টি হয়েছে?
উত্তর: মহানগরের জনগণের শ্রীবৃদ্ধি সাধন, তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠা, স্ব-শাসন প্রতিষ্ঠা, স্থানীয় পর্যায়ে নেতৃত্বের গুণাবলির বিকাশ ঘটানো, মহানগর পর্যায়ে দায়িত্বশীল নেতৃত্বের বিকাশ ঘটানো ইত্যাদি লক্ষ্যকে সামনে রেখে সিটি কর্পোরেনের সৃষ্টি হয়েছে।
স্থানীয় রাজনীতি জনগনের অংশগ্রহণের গুরুত্ব কী কী?
উত্তর : নেতৃত্বের বিকাশ, গণতন্ত্রকে সুসংহতকরণ, সরকার ও জনগণের মধ্যে সংযোগ সাধন, ব্যয় সংকোচ,সুনাগরিকতার গুণাবলীর বিকাশ দেশ প্রেম সৃষ্টি ইত্যাদি।
বাংলাদেশের সংবিধানের কোন কোন ধারায় সমাজ ও রাষ্ট্রীয় জীবনে নারী পুরুষ সম অধিকারের কথা বলা
উত্তর : ১০, ২৭, ২৮(১) (২) (৩) (৪) এবং ২৯(১) নং ধারায়।
বাংলাদেশের নীতি-নির্ধারণী কাঠামোতে নারীর অংশগ্রহণের হার কত শতাংশ?
উত্তর : ৫.১ শতাংশ।
দলের নির্বাহী কমিটিতে কত শতাংশ নারী অন্তর্ভুক্ত করণের নির্দেশ রয়েছে?
উত্তর : ৩৩ শতাংশ।
বাংলাদেশেরে সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংখ্যা কত?
উত্তর : ৪৫টি।
সংবিধানের কত নং অনুচ্ছেদে নারীদের জন্য সংরক্ষিত আসনের ব্যবস্থা করা হয়?
উত্তর : ৬৫ (৩) নং অনুচ্ছেদে।
কতসালে নারীদের সংরক্ষিত আসন ১৫ থেকে ৩০ করা হয়?
উত্তর : ১৯৭৮ সালে।
কত সালে নারীদের সংরক্ষিত আসন ৩০ থেকে ৪৫ করা হয়?
উত্তর : ২০০৪ সালে।
কোন আইনের মাধ্যমে নারীদের জন্য ৩টি সংরক্ষিত আসনে সরাসরি নির্বাচনের ব্যবস্থা করা হয়?
উত্তর : ১৯৯৭ সালের স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) দ্বিতীয় সংশোধনী আইন।
কোন অধ্যাদেশ অনুসারে মনোনীতি নারী সদস্যদের সংখ্যা ২ থেকে ৩ জনে বৃদ্ধি করা হয়?
উত্তর : ১৯৮৩ সালের ইউনিয়ন পরিষদ অধ্যাদেশ।
১৯৯৭ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সংরক্ষিত আসনে কত জন নারী অংশগ্রহণ করেন?
উত্তর : ৪৪, ১৩৮ জন।
সংরক্ষিত আসনে কতজন নারী ১৯৯৭ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিত হন?
উত্তর : ১২,৮২৮ জন।
১৯৯৭ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কতজন নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিলেন?
উত্তর : ১০২ জন।
এ নির্বাচনে কতজন নারী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন?
উত্তর : ২৩ জন
১৯৯৭ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচণে সাধারণ আসনে কতজন নারী নির্বাচিত হন?
উত্তর : ১১০ জন।
২০০৩ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কতজন নারী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়?
উত্তর : ২২ জন নারী।

খ-বিভাগ

প্রশ্ন॥১॥ বিকেন্দ্রীকরণ বলতে কী বুঝ?
প্রশ্ন॥২॥ বিকেন্দ্রীকরণের বৈশিষ্ট্যসমূহ উল্লেখ কর।
প্রশ্ন।।৩।। বিকেন্দ্রীকরণেরউপাদানসমূহ কী কী?
প্রশ্ন॥৪॥ ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণের কারণসমূহ উল্লেখ কর।
প্রশ্ন॥৫॥ বিকেন্দ্রীকরণের প্রতিবন্ধকতাসমূহ উল্লেখ কর।
প্রশ্ন॥৬॥ বিকেন্দ্রীকরণের সুফলসমূহ কী?
প্রশ্ন॥৭॥ বিকেন্দ্রীকরণের অসুবিধাসমূহ লিখ।
প্রশ্ন॥৮॥ গণতন্ত্র ও বিকেন্দ্রীকরণের মধ্যে সম্পর্ক কী?
প্রশ্ন॥৯॥ পলিউন্নয়ন কী?
প্রশ্ন।।১০।। পলি উন্নয়নের গুরুত্ব লিখ।
প্রশ্ন।।১১।। বাংলাদেশে পলি উন্নয়নের সমস্যাবলি সমাধান করার উপায়সমূহ উল্লেখ কর।
প্রশ্ন॥১২।। গ্রামীণ উন্নয়নে স্থানীয় সরকারের ভূমিকা উল্লেখ কর।
প্রশ্ন॥১৩॥ জাতীয় পলিউন্নয়ন নীতর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যেসমূহ উল্লেখ কর।
প্রশ্ন।।১৪।। সামাজিক পরিবর্তন কী?
প্রশ্ন।।১৫।। বাংলাদেশের গ্রামীণ সমাজের সামাজিক পরিবর্তনের ধারা উল্লেখ কর।
প্রশ্ন॥১৬।। গ্রামীণ উন্নয়নের উপাদানসমূহ কী কী?
প্রশ্ন।।১৭।। গ্রামীণ রাজনীতিতে অংশগ্রহণের সমস্যাগুলো কী কী?
প্রশ্ন।।১৮৷। ইউনিয়ন পরিষদে জনগণের অংশগ্রহণের গুরুত্ব সংক্ষেপে আলোচনা কর।
প্রশ্ন৷।১৯৷। পৌরসভায় জনগণের অংশগ্রহণের গুরুত্ব সংক্ষেপে আলোচনা কর।
প্রশ্ন।।২০।। বাংলাদেশের রাজনৈতিক অংশগ্রহণ প্রক্রিয়া সংক্ষিপে আলোচনা কর।
প্রশ্ন৷।২১৷। রাজনৈতিক অংশগ্রহণের অর্থনৈতিক উপাদানসমূহ সংক্ষেপে আলোচনা কর ।
প্রশ্ন॥২২॥ রাজনৈতিক অংশগ্রহণ কাকে বলে?
প্রশ্ন৷।২৩৷। সবুজ বিপৰ কী?

গ-বিভাগ

প্রশ্ন।।১।।বিকেন্দ্রীকরণ বলতে কী বুঝ? বিকেন্দ্রীকরণের বৈশিষ্ট্যসমূহ উলেখ কর। বিকেন্দ্রীকরণের উপাদানসমূহ আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন।৷২৷৷ বিকেন্দ্রীকরণের সংজ্ঞা দাও। ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণের কারণ কী কী? বিকেন্দ্রীকরণের প্রতিবন্ধকতাসমূহ
উলেখ কর।

প্রশ্ন॥৩॥ বিকেন্দ্রীকরণ বলতে কী বুঝ? গণতন্ত্র ও বিকেন্দ্রীকরণের মধ্যে সম্পর্ক কী?
প্রশ্ন॥৪॥ প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণ বলতে কী বুঝ? প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণের সুবিধা ও অসুবিধা আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন॥৫॥ পলিউন্নয়ন কী? পলি উন্নয়নের গুরুত্ব লিখ।
প্ৰশ্ন৷৬৷৷ পলিউন্নয়ন বলতে কী বুঝ? পলি উন্নয়নে এনজিওর কর্মসূচি আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন॥৭॥ পলিউন্নয়ন কাকে বলে? পলি উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত কর্মসূচি আলোচনা কর।
প্রশ্ন॥৮॥ পল্লি উন্নয়নের সূচক (Para meter) গুলো আলোচনা কর ।
প্রশ্ন॥৯॥ বাংলাদেশে পলি উন্নয়নের ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৷১০।৷ বাংলাদেমে পলি উন্নয়নের ক্ষেত্রে কী কী সমস্যা পরিলক্ষিত হচ্ছে আলোচনা কর ।
প্রশ্ন৷।১১৷৷ বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে পলি উন্নয়নের গুরত্ব আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৷১২৷৷ জাতীয় পলিউন্নয়ন নীতির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যসমূহ আলোচনা কর ।
প্ৰশ্ন ৷৷১৩৷৷ বাংলাদেশে আর্থসামাজিক উন্নয়নে জাতীয় পলিউন্নয়ন নীতি-২০০১ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে কীভাবে? আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷।১৪৷৷ গ্রামীণ উন্নয়নে স্থানীয় সরকারের ভূমিকা আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৷১৫৷। সমাজ কাঠামোর সংজ্ঞা দাও । গ্রামীণ সমাজ কাঠামোর পরিবর্তনের কারণসমূহ আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন।৷১৬৷৷ সমাজ পরিবর্তনের সংজ্ঞা দাও। গ্রামীণ বাংলাদেশের সামাজিক পরিবর্তন সম্পর্কে আলোচনা কর ।
প্ৰশ্ন৷৷১৭৷৷ বাংলাদেশের পলিউন্নয়ন কর্মসূচির উদ্দেশ্যাবলি আলোচনা কর ।
প্ৰশ্ন৷৷১৮৷৷ কিভাবে পলি উন্নয়নের সমস্যাসমূহের সমাধান ও পলিউন্নয়ন ত্বারান্বিত করা যায়? আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৷১৯৷৷ বাংলাদেশে পলি উন্নয়নের সমস্যাবলি সমাধান করার উপায়সমূহ আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৷২০৷৷ “সামাজিক পরিবর্তন হচ্ছে মানুষের জীবন প্রণালীর ধরনের পরিবর্তন”- ব্যাখ্যা কর।
প্ৰশ্ন৷।২১৷৷ রাজনৈতিক অংশগ্রহণ কত প্রকার ও কী কী? আলোকপাত কর।
প্ৰশ্ন৷৷২২৷৷ বাংলাদেশে রাজনৈতিক অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে বাধাসমূহ উলেখ কর।
প্ৰশ্ন৷৷২৩৷৷ রাজনৈতিক অংশগ্রহণের মনস্তাত্ত্বিক উপাদানসমূহ আলোচনা কর ।
প্ৰশ্ন৷৷২৪৷৷ বাংলাদেশের স্থানীয় সংস্থায় রাজনৈতিক অংশগ্রহণের গুরুত্ব আলোচনা কর ।



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!