অথবা, যুক্তফ্রন্ট সম্পর্কে একটি টীকা লিখ।
উত্তর৷ ভূমিকা :
১৯৪৭ সালে বাঙালিরা ব্রিটিশদের কবল থেকে মুক্ত হন বটে কিন্তু পরে বাঙালিরা আবার পশ্চিমা শাসকচক্রের খপ্পরে পড়ে যান। প্রথমে পশ্চিমা শাসকচক্র আঘাত হানে বাঙালির ভাষা সংস্কৃতির উপর। কিন্তু এতে বাঙালিরা জয়যুক্ত হয়। পূর্বের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পাকিস্তানের প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচন ১৯৫১ সালে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পশ্চিমা শাসকগোষ্ঠী অনেক ধাপ্পাবাজি করে সে নির্বাচনের ঘোষণা দেন ১৯৫৩ সালের ১ আগস্ট ফলে পূর্ব পাকিস্তানের কয়েকটি রাজনৈতিক দল একত্রিত হন যুক্তফ্রন্ট নামে।
যুক্তফ্রন্ট : ১৯৫৪ সালের নির্বাচনে মুসলিম লীগকে মোকাবিলা করার জন্য যুক্তফ্রন্ট গঠন ছিল একটি ঐতিহাসিক ঘটনা। প্রধান বিরোধী দলগুলোর সমন্বয়ে এ যুক্তফ্রন্ট গঠিত হয়। যুক্তফ্রন্ট গঠনের উদ্যোক্তা ছিল তৎকালীন বিরোধী দল ও জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ। ১৯৫৩ সালের মে মাসে ময়মনসিংহ শহরে অনুষ্ঠিত পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগের বিশেষ কাউন্সিল অধিবেশনে যুক্তফ্রন্ট গঠনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ফলে ১৯৫৩ সালের ৪ ডিসেম্বর কয়েকটি বিরোধীদলের সমন্বয়ে নির্বাচনি জোট হিসেবে যুক্তফ্রন্ট গঠিত হয়। যুক্তফ্রন্টের অন্তর্ভুক্ত দলগুলো ছিল
১. ভাসানী-সোহরাওয়ার্দীর নেতৃত্বাধীন পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ।
২. শেরে বাংলা এ. কে. ফজলুল হকের কৃষক প্রজা পার্টি।
৩. মাওলানা আতাহার আলীর নেজামে ইসলাম।
৪. হাজী দানেশের নেতৃত্বাধীন গণতন্ত্রী দল ।
হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, শেরে বাংলা এ. কে. ফজলুল হক এবং মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী ছিলেন যুক্তফ্রন্টের প্রথম সারির নেতা। যুক্তফ্রন্টের প্রধান অফিস ছিল সদরঘাটের সিমসন রোডে। নৌকা প্রতীক নিয়ে যুক্তফ্রন্ট প্রার্থীগণ নির্বাচনে অবতীর্ণ হন। নির্বাচনের প্রাক্কালে যুক্তফ্রন্ট ২১ দফা কর্মসূচি ঘোষণা করে।
যুক্তফ্রন্টের নির্বাচন ও ফলাফল : নির্ধারিত ঘোষণা অনুযায়ী ১৯৫৪ সালের ১১ মার্চ পূর্ব বাংলার প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচনে পূর্ব বাংলার আইনসভার মোট আসন সংখ্যা ছিল ৩০৯টি। এর মধ্যে মুসলিম আসন ছিল ২৩৭টি এবং অমুসলিম আসন ছিল ৭২টি। নির্বাচনে ২৩৭টি মুসলিম আসনের মধ্যে যুক্তফ্রন্ট ২২৩টি আসন
লাভ করে। অন্যদের মধ্যে মুসলিম লীগ ৯টি, নির্দলীয় সদস্যগণ ৪টি এবং খেলাফতে রাব্বী ১টি আসন লাভ করে। অন্যদিকে, অমুসলিম ৭২টি আসনের মধ্যে কংগ্রেস ২৪টি, তফসিলি ফেডারেশন ২৭টি, যুক্তফ্রন্ট ১৩টি, খ্রিষ্টান সম্প্রদায় ১টি, বৌদ্ধ সম্প্রদায় ২টি, কমিউনিস্ট পার্টি ৪টি ও নির্দলীয় সদস্যগণ ১টি আসন লাভ করে।
উপসংহার : পরিশেষে বলা যায় যে, পাকিস্তানের ইতিহাসে ১৯৫৪ সালের নির্বাচন ছিল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন। এ নির্বাচনে পূর্ব পাকিস্তান ও পশ্চিম পাকিস্তানের মধ্যে সুস্পষ্ট ব্যবধান লক্ষ করা যায়। পূর্ব পাকিস্তানের জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিচ্ছবি পরিলক্ষিত হয় যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনে।

https://topsuggestionbd.com/%e0%a6%aa%e0%a6%9e%e0%a7%8d%e0%a6%9a%e0%a6%ae-%e0%a6%85%e0%a6%a7%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%af%e0%a6%bc-%e0%a6%ad%e0%a6%be%e0%a6%b7%e0%a6%be-%e0%a6%86%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a6%e0%a7%8b/
admin

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!