ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ ইংরেজি রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079
Earn bitcoinGet 100$ bitcoin

প্রশ্নঃ বাংলাদেশে সরকারি খাতে সম্পদ আহরণের কৌশলসমূহ আলোচনা।

[ad_1]

প্রশ্নঃ বাংলাদেশে সরকারি খাতে সম্পদ আহরণের কৌশলসমূহ আলোচনা।

উত্তর ভূমিকা : বাংলাদেশে সরকারি খাতে সম্পদ আহরণের কৌশলের যথেষ্ট সুযোগ আছে । বর্তমানে আমাদের দেশে কর পার্শ্ববর্তী অন্যান্য উন্নয়নশীল দেশ থেকে অনেক কম । এছাড়া সরকারের রাজস্ব ব্যয়ও কমানোর অবকাশ আছে ।

সরকারি খাতে সম্পদ আহরণের কৌশল : সরকারি খাতে উন্নয়নের জন্য সম্পদ আহরণ বৃদ্ধির কৌশল নিম্নোক্ত উপায়গুলো অবলম্বন করা যেতে পারে ।

১. যৌথ মূলধনী প্রতিষ্ঠানের উপর আয়কর : বাংলাদেশে কর্পোরেট আয়করের মাধ্যমে সরকারের রাজস্ব প্রাপ্তি অতি অল্প হয় । তার কারণ হচ্ছে বিভিন্ন কর অব্যাহতির সুযোগ । ট্যাক্স হলিডে – এর মাধ্যমে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানগুলো বিস্তর কর অব্যাহতি পায় । কিন্তু বিভিন্ন দেশে সমীক্ষার মাধ্যমে দেখা গেছে যে , কর অব্যাহতি বাস্তবে বিনিয়োগ বৃদ্ধির জন্য কার্যকরী পদক্ষেপ নয় । তাই অনেক উন্নয়নশীল দেশে ট্যাক্স হলিডে , ডেপ্রিসেশন এলাওন্স ইত্যাদি কর অব্যাহতি প্রত্যাহার করা হচ্ছে । বাংলাদেশেও অনুরূপ পদক্ষেপের মাধ্যমে সরকারি খাতে রাজস্ব বাড়ানো যেতে পারে ।

২. আবপারি কর : আবগারি করের ভিত্তি আর প্রসারিত করার তেমন সুযোগ নেই । তবে আবগারি কর আদায় করার পদ্ধতি সরলীকরণের এবং কর হার কাঠামো যুক্তিযুক্ত করণের মাধ্যমে কর আদায় বৃদ্ধির সুযোগ আছে ।

৩. ব্যক্তিগত আয়কর : বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা গেছে যে , ব্যক্তিগত আয়কর যাদের উপর প্রযোজ্য , তাদের মধ্যে একাংশ মাত্র আয়কর রিটার্ন জমা দেয় । ফাঁকি দেয়া ছাড়াও কর অব্যাহতির বিভিন্ন সুযোগে অনেকেই কর দেয় না । অতএব ব্যক্তিগত আয়কর দাতার সংখ্যা উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বাড়ানোর সুযোগ আছে । এছাড়া বাংলাদেশে কর অব্যাহতি প্রাপ্ত আয়স্তর আরো নামিয়ে আনার সুযোগ আছে । এভাবে ব্যক্তিগত আয়করের মাধ্যমে উন্নয়নের জন্য সম্পদ আহরণ বাড়ানো যাবে ।

৪. কৃষিখাতে কর : বাংলাদেশের কৃষিখাতে আয়কর আরোপের বিকল্প পন্থা হিসেবে ভূমি কর ব্যবহৃত হয়ে আসছে । কিন্তু সম্প্রতি ভূমি কর মওকুফ করার কারণে এ খাতে সরকারের কর রাজস্ব বিস্তর হ্রাস পেয়েছে । সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধির জন্য একটি সম্ভাব্য প্রস্তাব হচ্ছে জমির একর প্রতি অনুমিত ফসলের মূল্যের ভিত্তিতে কর আরোপ করা । এছাড়া বাজারজাতকৃত উদ্বৃত্ত ফসলের উপরেও কর আরোপ করা যায় । এক গবেষণাতে দেখানো হয়েছে যে মূল্যানুপাতিক ৫ % হারে বাজারজাত উদ্বৃত্ত ফসলের উপর কর আরোপ করা হলে সরকার প্রায় ১৬১ কোটি টাকা রাজস্ব পাবে যা বর্তমান মোট ভূমি কর থেকে বেশি ।

৫. কর বহির্ভূত রাজস্ব : সরকারের কর বহির্ভূত রাজস্বের প্রধান উৎস হচ্ছে সরকারের আর্থিক ও অ – আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত লভ্যাংশ ও মুনাফা , জমা তহবিলের সুদ এবং বাংলাদেশ টেলিগ্রাফ ও টেলিফোন বোর্ড থেকে প্রাপ্ত আয় । সরকারি জাতীয়কৃত ব্যাংক থেকে সরকার লভ্যাংশ পায় । বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে সরকারের এ খাতে ৯০ % -এর ও বেশি রাজস্ব আসে । অ – আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন থেকে সর্বাধিক রাজস্ব পাওয়া যায় । কিন্তু পণ্য উৎপাদনকারী সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো বেশিরভাগই সরকারের লোকসানের কারণ । অতএব এ লোকসানি প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করে দিলে বা বেসরকারি খাতে হস্তান্তর করলে সরকারের সাশ্রয় হবে । অবশ্য সার্বিকভাবে বলা যায় যে , কর বহির্ভূত রাজস্ব বৃদ্ধির তেমন কোন সুযোগ নেই ।

৬. সরকারের ব্যয় হ্রাস : রাজস্ব উদ্বৃত্ত বৃদ্ধির জন্য সরকারের রাজস্ব ব্যয় হ্রাস করা একান্ত প্রয়োজন । বর্তমানে সরকারের বিভিন্ন বিভাগে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে ব্যয় হ্রাসের তেমন সুযোগ নেই । তবে রেলওয়ে , ডাক ইত্যাদি বিভাগের মতো সেবা উৎপাদনকারী বিভাগের দক্ষতা বাড়িয়ে সরকারের লোকসানের পরিমাণ কমাতে হবে । আর যেসব কারখানা নিয়মিত লোকসান দিচ্ছে সেগুলোকে বেসরকারি খাতে হস্তান্তর করতে হবে অথবা বন্ধ করে দিতে হবে ।

৭. মূল্য সংযোজন কর : আমাদের দেশে বর্তমানে মূল্য সংযোজন কর – এর ভিত্তি বেশি প্রসারিত করার সুযোগ নেই । তবে VAT সংক্রান্ত উন্নততর তদারকি এবং অডিটিং এর জন্য কম্পিউটারের ব্যবহার দ্রুত বাড়াতে হবে । সার্ভিস খাতের উপর VAT আরোপ দুরূহ ব্যাপার । তবে যথাযথ পদ্ধতি নির্ণয় করে আরো সার্ভিস VAT- এর আওতায় আনতে হবে ।

উপসংহার : উপরের আলোচনা থেকে এটি স্পষ্ট যে , বাংলাদেশে কর কাঠামোর যথাযথ পরিবর্তন ও সংশোধনের মাধ্যমে এবং সরকারি ব্যয় নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে উদ্বৃত্ত বাড়ানো সম্ভব ।

[ad_2]

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন:01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!