ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ২০২২ ইংরেজি রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079
Earn bitcoinGet 100$ bitcoin

প্রশ্নঃ নোট জাতীয় উৎপাদন ও মোট দেশজ উৎপাদনের মধ্যে পার্থক্য কী ?

[ad_1]

প্রশ্নঃ নোট জাতীয় উৎপাদন ও মোট দেশজ উৎপাদনের মধ্যে পার্থক্য কী ?

উত্তর : জাতীয় আয় সম্পর্কিত বিভিন্ন ধারণার মধ্যে মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন ও মোট জাতীয় উৎপাদন ধারণা দৃষ্টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ । এ দুটি ধারণা সম্পর্কে নিম্নে বিশদভাবে আলোচনা করা হলো : –

i . মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন GDP : একটি নির্দিষ্ট সময়ে একটি দেশের অভ্যন্তরে যে পরিমাণ চূড়ান্ত পর্যায়ের দ্রব্যসামগ্রী ও সেখাকর্ম উৎপাদিত হয় তাদের আর্থিক মূল্যের সমষ্টিকে মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন বলে ।

ধরা যাক , একটি নির্দিষ্ট সময়ে একটি দেশের অভ্যন্তরে Q1 , Q2 , Q3 উৎপাদিত হয় । যদি উক্ত দ্রব্যসামগ্রীর ও সেবাকর্মের মূল্য যথাক্রমে , P1 , P2 , P3 ,……………Pn অভ্যন্তরীণ উৎপাদন হবে ,

GDP = P „ Q1 + P2Q2 + P3Q3 +…………….. + Pn Qn

ΣnP1.Q1

i = n

মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদনকে অন্যভাবে সংজ্ঞায়িত করা যায় , একটি নির্দিষ্ট সময়ে একটি দেশের অভ্যন্তরে মোট ভোগ ব্যয় , বিনিয়োগ ব্যয় ও সরকারি ব্যয়ের সমষ্টিকে মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন বলা হয় ।

অর্থাৎ GDP = C + I + G

যেখানে C = মোট ভোগ ব্যয়

I = মোট বিনিয়োগ ব্যয়

G = মোট সরকারি ব্যয়

নোট জাতীয় উৎপাদন GNP : চূড়ান্ত উৎপাদনের ভিত্তিতে মোট জাতীয় উৎপাদন নিম্নরূপে সংজ্ঞায়িত করা যায় । একটি নির্দিষ্ট সময়ে একটি দেশের ভিতরে ও বাইরে যে পরিমাণ চূড়ান্ত দ্রব্যসামগ্রী ও সেবা উৎপাদিত হয় তাদের আর্থিক মূল্যের সমষ্টিকে মোট জাতীয় উৎপাদন বলে । অন্যভাবে বিদেশ থেকে অর্জিত নীট আয় সমেত মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদনকে মোট জাতীয় উৎপাদন বলে । গাণিতিক উপায়ে ,

GNP = GDP + ( X – M )

বা , GNP =Σ ” P₁Q1 + ( X – M )

i = n

যেখানে , X = একটি নির্দিষ্ট সময়ে বিদেশ থেকে অর্জিত দেশীয় নাগরিকদের পাওনা ।

M = একটি নির্দিষ্ট সময়ে দেশীয় নাগরিকদের নিকট থেকে বিদেশিদের পাওনা ।

ব্যয় পদ্ধতিতে নোট জাতীর পারের সংজ্ঞা নিরূপ : একটি নির্দিষ্ট সময়ে বিদেশ থেকে অর্জিত নীট আয় সমেত দেশের অভ্যন্তরীণ মোট ভোগ বায় , মোট বিনিয়োগ ব্যয় ও মোট সরকারি ব্যয়ের সমষ্টি মোট জাতীয় উৎপাদন ।

GNP = C + I + G + ( X – M )

ii . GNP এর ক্ষেত্রে কেবলমাত্র দেশের নিজস্ব জনগণের অবদান রয়েছে । কিন্তু GNP ডে বিদেশিদের মূলধন ও বিনিয়োগজনিত অবদানও থাকতে পারে ।

iii . GNP ও GDP এর মধ্যে কখনো সমতা থাকতে পারে আবার কখনো তফাৎ থাকতে পারে । যেমন .

ক. GNP = GDP + ( X – M )

X = M হলে বা X – M = 0 হয় তখন GNP = GDP .

খ. আবার X > M হলে বা X – M > 0 হয় তখন GNP > GDP হয় ।

গ . আবার X < M হলে যা X – M < 0 হয় তখন GNP GDP হয় ।

iv . GDP থেকে দেশের প্রকৃত অবস্থা জানা যায় না । কারণ এতে বিদেশিদের অবদান অন্তর্ভুক্ত । পক্ষান্তরে , GNP কেবল দেশীয় নাগরিকদের অবদান বলে তা থেকে দেশের প্রকৃত অবস্থা নিরূপণ করা সম্ভব ।

v . GDP পরিমাপ করা GNP এর তুলনায় সহজ । কেননা GNP গণনার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় বৈদেশিক লেনদেনের চলতি হিসাব নির্ণয় করা কঠিন ব্যাপার ।

vi . GDP এর তুলনায় GNP একটি প্রসারিত ধারণা , কারণ GNP তে GDP অন্তর্ভুক্ত থাকে । বস্তুত GNP ও GDP উভয়ের পৃথক গুরুত্ব রয়েছে । তবে বাংলাদেশের ন্যায় অভাব রয়েছে GNP এর তুলনায় GDP এর ব্যবহারই অধিক পরিলক্ষিত হয় ।

[ad_2]

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন:01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!