ডিগ্রি প্রথম এবং অনার্স দ্বিতীয় বর্ষ ২০২৩ এর সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯

 ডিগ্রী সকল বই

পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদের গঠন আলোচনা কর।

অথবা, পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলার স্থানীয় সরকার পরিষদ কিভাবে গঠিত হয়?
অথবা, পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলার স্থানীয় সরকার পরিষদের গঠন বর্ণনা কর।
অথবা, পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলার স্থানীয় সরকার ব্যবস্থার গঠন প্রক্রিয়া উল্লেখ কর।
অথবা, কিভাবে পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলার স্থানীয় সরকার পরিষদ গঠিত হয় লিখ।
উত্তর৷ ভূমিকা :
বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড় সমৃদ্ধ নয়নাভিরাম দৃশ্যাবলি সংবলিত পার্বত্য গীগ্রামে বেশ কিছু উপজাতীয় এবং অ-উপজাতীয় জনগোষ্ঠীর বাস। ১৯৮৯ সালের ৬ মার্চ পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদ আইন পাস হয়। পরবর্তীতে ১৯৯৮ সালে উক্ত আইন অনুযায়ী রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও| বান্দরবান জেলায় স্থানীয় সরকার পরিষদ গঠন করা হয়।
পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদের গঠন : উপজাতি অধ্যুষিত অনগ্রসর এই অঞ্চলের সর্বাঙ্গীণ উন্নয়ন নিশ্চিত করা, শাসনব্যবস্থার সামগ্রিক কাঠামোর মধ্যে বিশেষ এলাকা হিসেবে এই অঞ্চলকে চিহ্নিত করে এখানকার প্রশাসন ও সংস্কৃতি ক্ষেত্রে উপজাতীয়দের প্রাধান্য অক্ষুণ্ণ রাখা এবং বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে ব্যাপকভাবে উপজাতীয়দের সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদ গঠিত হয় এবং কার্যক্রম শুরু করে। নিয়ে এই স্থানীয় সরকার পরিষদের গঠন আলোচনা করা হলো :
পরিষদের গঠন : পার্বত্য জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদের গঠন কাঠামোর নিয়মনীতি একই। তবে জনসংখ্যার তারতম্যের কারণে তিনটি জেলার স্থানীয় পরিষদের সদস্যসংখ্যার কিছু তারতম্য আছে। একজন চেয়ারম্যান এবং নির্দিষ্ট সংখ্যক সদস্য নিয়ে স্থানীয় সরকার পরিষদ গঠিত হবে। চেয়ারম্যান উপজাতীয়দের মধ্য হতে নির্বাচিত হবেন। তবে সদস্যদের মধ্যে উপজাতীয় এবং অ-উপজাতীয় সদস্য থাকবেন। স্থানীয় সরকার পরিষদের কার্যকাল হবে তিন বছর। পরিষদের প্রথম অধিবেশনের দিন হতে এ মেয়াদ গণনা করা হবে, যেহেতু তিনটি পার্বত্য জেলায় জনসংখ্যা ও গোত্রের তারতম্য বিদ্যমান সেহেতু তিনটি জেলা তথা রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান জেলায় স্থানীয় সরকার পরিষদের গঠন কাঠামো ভিন্ন ভিন্ন ভাবে উল্লেখ করা হলো :
রাঙ্গামাটি জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদ :
চেয়ারম্যান : ১ (এক) জন : উপজাতীয়দের গোত্রের ভোটারদের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত।
উপজাতীয় সদস্য : ২০ (বিশ) জন : উপজাতীয়দের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত।

অ-উপজাতীয় : ১০ (দশ) জন : অ-উপজাতীয়দের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত । সর্বমোট ৩১ জন সদস্য নিয়ে রাঙ্গামাটি জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদ গঠিত। উপজাতীয় সদস্যদের নিম্নরূপে বণ্টন করা হয়েছে।
১. চাকমা গোত্রের ১০ (দশ) জন;
২. মারমা গোত্রের ৮ (আট) জন;
৩. তনচংগা গোত্রের ২ (দুই) জন;
৪. ত্রিপুরা গোত্রের ১ (এক) জন;
৫. লুসাই গোত্রের ১ (এক) জন;
৬. পংখু গোত্রের ১ (এক) জন;
৭. খেয়াং গোত্রের ১ (এক) জন;
পরিষদের কার্যকাল তিন বছর। রাঙ্গামাটি জেলার জেলা প্রশাসক পরিষদের সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
খাগড়াছড়ি জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদ :
চেয়ারম্যান : ১ (এক) জন : উপজাতীয়দের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত।
উপজাতীয় সদস্য : ২১ (একুশ) জন : উপজাতীয়দের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত।
অ-উপজাতীয় সদস্য : ৯ (নয়) জন;
মোট ৩১ জন সদস্য নিয়ে খাগড়াছড়ি জেলা স্থানীয় পরিষদ গঠিত, উপজাতীয় সদস্য নিম্নরূপে বণ্টন করা হয়েছে।
১. চাকমা গোত্রের ৯ (নয়) জন;
২. ত্রিপুরা গোত্রের ৬ (ছয়) জন;
৩. মারমা গোত্রের ৬ (ছয়) জন;
পরিষদের কার্যকাল ৩ বছর। খাগড়াছড়ি জেলার জেলা প্রশাসক পরিষদের সচিব হিসেবে দায়িত্বরত।

বান্দরবান জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদ :
চেয়ারম্যান : ১ (এক) জন : উপজাতীয়দের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত।
উপজাতীয় সদস্য : ১৯ (উনিশ) জন : উপজাতীয়দের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত।
অ-উপজাতীয় : ১১ (এগার) জন : প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত। সর্বমোট ৩১ জন সদস্য নিয়ে বান্দরবান জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদ গঠিত। উপজাতীয় সদস্যদের নিম্নরূপে বণ্টন করা হয়েছে।
১. মারমা ও খেয়াং গোত্রের ১০ (দশ) জন;
২. মারো গোত্র ৩ (তিন) জন;
৩. ত্রিপুরা ও উচাই গোত্র ১ (এক) জন;
৪. তনচংগা গোত্র ১ (এক) জন;
৫. বোম, লুসাই ও পাংখু গোত্র ১ (এক) জন;
৬. চাকমা গোত্র ১ (এক) জন;
৭. খাসি গোত্র ১ (এক) জন;
৮. চক গোত্র ১ (এক) জন;
বান্দরবান জেলার জেলা প্রশাসক পরিষদের সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। পরিষদের কার্যকাল ৩ বছর।
উপসংহার : পরিশেষে বলা যায় যে, ৩টি পার্বত্য জেলা স্থানীয় সরকার পরিষদের চেয়ারম্যান এবং সিংহভাগ সদস্য উপজাতীয় জনগোষ্ঠীর। তারা নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করবেন। পার্বত্য জেলার উপজাতীয় স্থায়ী বাসিন্দা এবং ২৫ বছর বয়স্ক হলে তিনি তার গোত্রের উপজাতীয় আসনে সদস্য নির্বাচিত হতে পারবেন। পার্বত্য জেলার স্থায়ী বাসিন্দা এবং ২৫ বছর বয়স্ক অ-উপজাতীয় কোনো ব্যক্তি অ-উপজাতীয় আসনে সদস্য নির্বাচিত হতে পারবেন।



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!