ডিগ্রি প্রথম এবং অনার্স দ্বিতীয় বর্ষ ২০২৩ এর সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯

 ডিগ্রী সকল বই

প্রথম অধ্যায়, নারী ও রাজনীতি : ঐতিহাসিক ও তাত্ত্বিক পটভূমি।

ক-বিভাগ

সমগ্র মানবসমাজ কয় ভাগে বিভক্ত?
উত্তর : সমগ্র মানবসমাজ দুই ভাগে বিভক্ত। যথা : নারী ও পুরুষ সমাজ।
নারী ও রাজনীতি কোন বিজ্ঞানের গুরুত্বপূর্ণ শাখা?
উত্তর : নারী ও রাজনীতি সামাজিক বিজ্ঞানের গুরুত্বপূর্ণ শাখা।
বিনা আগরওয়াল নারী ও রাজনীতির বিষয়বস্তু হিসেবে কোন বিষয়গুলোকে চিহ্নিত করেছেন?
উত্তর : বিনা আগরওয়াল নারী ও রাজনীতির বিষয়বস্তু হিসেবে যে বিষয়গুলোকে চিহ্নিত করেছেন সেগুলো নিম্নরূপ
ক. চাকরি, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণে নারীর অংশগ্রহণের সুযোগ; খ. নারী এবং কৃষি ও শিল্পে পরিবর্তনশীল প্রযুক্তির প্রয়োগ;
গ. নারী এবং কৃষি ও শিল্পে উন্নয়নের সার্বিক কৌশল; ঘ. নারী ও দারিদ্র্য; ঙ. নারী ও অভিপ্রয়ান (Migration);
চ. নারী এবং ব্যষ্টি ও সামষ্টিক পর্যায়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও নীতিনির্ধারণ; ছ. নারী সংগ্রাম ও সংগঠন; জ. নারী ও
পরিবার; ঝ. রাষ্ট্রনীতি ও আর্থসামাজিক পরিকল্পনায় নারী এবং ঞ. আন্তর্জাতিক অর্থনীতিতে নারী।
নারীবাদ সম্পর্কে নারীবাদী তাত্ত্বিকগণ যেসব তত্ত্ব দিয়েছেন সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কোনগুলো?
উত্তর : নারীবাদ সম্পর্কে নারীবাদী তাত্ত্বিকগণ যেসব তত্ত্ব দিয়েছেন সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো : উদারপন্থি নারীবাদ, র‍্যাডিক্যাল নারীবাদ, মার্কসীয় নারীবাদ ও সমাজতান্ত্রিক নারীবাদ।
জাতিসংঘ নারীর প্রতি বৈষম্য দূর করার লক্ষ্যে কত সালকে “বিশ্ব নারী বর্ষ” হিসেবে পালন করেন?
উত্তর : জাতিসংঘ নারীর প্রতি বৈষম্য দূর করার লক্ষ্যে ১৯৭৫ সালকে “বিশ্ব নারী বর্ষ” হিসেবে পালন করেন।
১৯৭৬ – ৮৫ সালকে কী দশক হিসেবে পালন করা হয়?
উত্তর : ১৯৭৬ – ৮৫ সালকে বিশ্ব নারী দশক হিসেবে পালন করা হয়।
নারীর অধিকার রক্ষার জন্য ১৯৭৯ সালে কোন সনদ প্রণয়ন করা হয়?
উত্তর : নারীর অধিকার রক্ষার জন্য ১৯৭৯ সালে সিডও সনদ প্রণয়ন করা হয়।
কোন সময়কালকে আন্তর্জাতিক নারীদশক বলা হয়?
উত্তর : ১৯৭৬-১৯৮৫ সালকে।
কত তারিখে সিডও সনদ গৃহীত হয়?
উত্তর : ৮ ডিসেম্বর, ১৯৭৯ সাল।
সিডও সনদকে সামনে রেখে বিভিন্ন দেশ নারীর জন্য কী তৈরি করেছে?
উত্তর : সিডও সনদকে সামনে রেখে বিভিন্ন দেশ নারীর জন্য তৈরি করেছে আইন ও নীতি।
রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় নারীর অবস্থান কেমন?
উত্তর : রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় নারীর অবস্থান প্রান্তিক।
Women’s Liberation Movement কোথায় ও কখন শুরু হয়?
উত্তর : ১৯৬০ ও ৭০ এর দশকে আমেরিকা ও ইউরোপে।
“আমাদের অবস্থান আমরা চিন্তা না করিলে, আর কেউ আমাদের জন্য ভাবিবে না।” কোন নারীবাদী চিন্তাবিদ এই উক্তিটি করেছেন?
উত্তর : “আমাদের অবস্থান আমরা চিন্তা না করিলে, আর কেউ আমাদের জন্য ভাবিবে না।” নারীবাদী চিন্তাবিদ বেগম রোকেয়া এই উক্তিটি করেছেন।
নারীর ক্ষমতায়নের জন্য যা সবচেয়ে বেশি জরুরি তা কী?
উত্তর : নারীর ক্ষমতায়নের জন্য যা সবচেয়ে বেশি জরুরি তা হলো শিক্ষা, অর্থনৈতিক মুক্তি এবং রাজনৈতিক ক্ষমতা।
নারীর প্রতি বৈষম্য ও শোষণের বাস্তবতা সম্পর্কে সচেতনতাকে কী বলা হয়?
উত্তর : নারীর প্রতি বৈষম্য ও শোষণের বাস্তবতা সম্পর্কে সচেতনতাকে নারীবাদ বলা হয়।
নারীবাদ কী?
উত্তর : নারীবাদ হচ্ছে জ্ঞান, চিন্তা ও মতবাদের একটি সমষ্টি, যা নারীবাদী পণ্ডিত, চিন্তাবিদ ও লেখকদের দ্বারা তৈরি।
নারীবাদ কিসের উপর প্রতিষ্ঠিত?
উত্তর : ঐতিহাসিক এবং সংস্কৃতিগতভাবে মূর্ত বাস্তবতা, সচেতনতা, উপলব্ধি ও কার্যকলাপের উপর নারীবাদ প্রতিষ্ঠিত।
নারীবাদ শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ কী?
উত্তর : নারীবাদ শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ ‘Feminism’.
ইংরেজি ‘Feminism’ শব্দটি কোন শব্দ হতে এসেছে?
উত্তর : ফরাসি শব্দ ‘Femme’ থেকে ইংরেজি ‘Feminism’ শব্দটি এসেছে।
‘Femme’ শব্দের অর্থ কী?
উত্তর : ‘Femme’ শব্দের অর্থ নারী।(Women).
‘Femme’ শব্দের সাথে ‘Ism’ বা বাদ কথাটি সংযুক্ত হয়ে কী রূপলাভ করেছে?
উত্তর : ‘Femme’ শব্দের সাথে ‘Ism’ বা বাদ কথাটি সংযুক্ত হয়ে ‘Feminism’ নারীবাদ রূপ লাভ করেছে।
কিসের অনুকরণে ‘Feminism’ এর অনুবাদ না হয় ‘নারীবাদ’?
উত্তর : সাম্যবাদ, সমাজবাদ, পুঁজিবাদ, বর্ণবাদ, জাতীয়তাবাদ, ফ্যাসিবাদ ইত্যাদির অনুকরণে ‘Feminism’ এর
অনুবাদ করা হয় ‘নারীবাদ’
কোন শতাব্দীতে সর্বপ্রথম ‘Feminism’ শব্দটির আবিষ্কার হয়?
উত্তর : ঊনবিংশ শতাব্দীতে সর্বপ্রথম ‘Feminism’ শব্দটির আবিষ্কার হয়।
সর্বপ্রথম কে ‘Feminism’ শব্দটি আবিষ্কার করে?
উত্তর : সর্বপ্রথম ‘Feminism’ শব্দটি আবিষ্কার করেন ফরাসি সমাজতন্ত্রী চার্লস ফুরিয়ের (Charles Fourier).
কোন প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা সর্বপ্রথম ‘Feminism’ শব্দটি ব্যবহার করেন?
উত্তর : ‘French Women’s Suffrage Society’-এর প্রতিষ্ঠাতা (হুবারটিন স্কলার্ট) সর্বপ্রথম ‘Feminism’ শব্দটি ব্যবহার করেন।
হুবারটিন অকলার্টের (Hubartin Auclert) প্রতিষ্ঠানের নাম কী?
উত্তর : হুবারটিন অকলার্টের (Hubartin Auclert) প্রতিষ্ঠানের নাম হলো ‘French Women’s Suffrage Society’.
ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষদিকে কোন দেশে নারীবাদ কথাটির চর্চা বা ব্যবহার শুরু হয়?
উত্তর : ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষদিকে আমেরিকায় নারীবাদ কথাটির চর্চা বা ব্যবহার শুরু হয়।
কোন দশকে ফ্রান্সে নারীবাদ শব্দটির ব্যবহার শুরু হয়?
উত্তর : ১৮৮০-এর দশকে ফ্রান্সে নারীবাদ শব্দটির ব্যবহার শুরু হয়।
কত সালে ‘নারীবাদ’ এর ইংরেজি শব্দটি গৃহীত হয়?
উত্তর : ১৮৯৪ সালে ‘নারীবাদ’ এর ইংরেজি শব্দটি গৃহীত হয়।
নারীবাদের প্রধান ধারাগুলো কী কী?
উত্তর : উদার নারীবাদ, অস্তিত্ববাদী নারীবাদ, মার্কসীয় নারীবাদ, প্রগতিশীল বা র‍্যাডিকেল নারীবাদ উত্তর আধুনিক নারীবাদ পরিবেশ নারীবাদ ।
১৯৩৩ সালে কোন অভিধানের পরিশিষ্টতে ‘Feminism’ এর প্রথম উল্লেখ পাওয়া যায়?
উত্তর : ১৯৩৩ সালে অক্সফোর্ড অভিধানের পরিশিষ্টতে ‘Feminism’ এর প্রথম উল্লেখ পাওয়া যায়।
নারীবাদ শব্দটির অর্থ কী?
উত্তর : নারীবাদ শব্দটির অর্থ হচ্ছে নারী সম্বন্ধীয় মতবাদ।
আভিধানিক অর্থে নারীবাদ কী?
উত্তর : আভিধানিক অর্থে নারীবাদ হচ্ছে একটি আন্দোলন, যা কিনা পুরুষের মতো একজন মানুষ হিসেবে নারীর
পূর্ণ অধিকার দাবি করে।
বর্তমানে নারীবাদ বলতে কী বুঝায়?
উত্তর : বর্তমান যুগে নারীবাদ হচ্ছে সমতা, মর্যাদা এবং নারীদের স্বাধীনতা অর্জনের সংগ্রাম, ঘরে ও বাইরে নিজেদের জীবন ও দেহের উপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম।
মূলত নারীবাদ কী ধরনের ধারণা?
উত্তর : মূলত নারীবাদ বহুমাত্রিক একটি ধারণা।
নারীবাদের মূলকথা কী?
উত্তর : নারীবাদের মূলকথা হচ্ছে একজন মানুষ হিসেবে নারীর পুরুষের ন্যায় পূর্ণ অধিকার দাবি।
এস্টেল বি. ফ্রিডম্যান ( Estelle B. Freedman) কোন গ্রন্থে নারীবাদের সংজ্ঞা প্রদান করেন?
উত্তর : এস্টেল বি. ফ্রিডম্যান (Estelle B. Freedman) তার ‘No Thinking Back’ নামক গ্রন্থে নারীবাদের সংজ্ঞা প্রদান করেন।
এস্টেল বি. ফ্রিডম্যান (Estelle B. Freedman) নারীবাদের কোন সংজ্ঞাটি প্রদান করেন?
উত্তর : এস্টেল বি. ফ্রিডম্যান (Estelle B. Freedman) নারীবাদের সংজ্ঞা প্রদান করেন এভাবে, “নারীবাদ একটি বিশ্বাস যে, নারী ও পুরুষের অন্তর্নিহিত মূল্যমান সমান। যেহেতু অধিকাংশ সমাজব্যবস্থা পুরুষকে গোষ্ঠী
হিসেবে অধিকতর সুযোগ সুবিধা প্রদান করে, কাজেই নারী ও পুরুষের মধ্যে সমতা প্রতিষ্ঠার জন্য সামাজিক আন্দোলন অত্যাবশ্যক।”
সাসকিয়া উইরিঙ্গা (Saskia Wieringa) নারীবাদের কোন সংজ্ঞাটি প্রদান করেন?
উত্তর : সাসকিয়া উইরিঙ্গা নারীবাদের যে সংজ্ঞা প্রদান করেন তা হলো, “নারীবাদ হচ্ছে একটি বিধ্বংসী প্রক্রিয়া,যা নারী সম্বন্ধে প্রচলিত ধারণা পাল্টে দিয়ে এর নতুন অর্থ খুঁজে বের করে; জেন্ডার সম্পর্কে প্রচলিত ধারণাকে বর্জন করে ব্যক্তিগত এবং সামগ্রিকভাবে নারীত্ব সম্পর্কে নতুন ধারণা প্রদান করে।”
নারীবাদের ইতিহাসের সূচনা কোন শতাব্দীতে?
উত্তর : নারীবাদের ইতিহাসের সূচনা পঞ্চদশ শতাব্দীতে।
ফরাসি গবেষক, লেখক ও বুদ্ধিজীবী সিমন দ্যা বুভোয়ার মতে, কোন নারী প্রথম নারীর সপক্ষে কলম তুলে
ধরেছেন?
লেখক ও বুদ্ধিজীবী সিমন দ্যা বুভোয়ার মতে খ্রিস্টিন ডি. পিজান প্রথম নারীর স্বপক্ষে
উত্তর : ফরাসি গবেষক, কলম তুলে ধরেছেন।
১৪০৫ সালে প্রকাশিত ‘The Book of the City of Ladies’ গ্রন্থে খ্রিস্টিন ডি. পিজান কী দাবি করেন?
উত্তর : ১৪০৫ সালে প্রকাশিত ‘The Book of the City of Ladies’ গ্রন্থে খ্রিস্টিন ডি. পিজান দাবি করেন যে, “বিন্দুমাত্র সন্দেহ নেই যে, পুরুষ ও নারী উভয়ে ঈশ্বরের প্রজা এবং মানবজাতির অন্তর্ভুক্ত, নারী ভিন্ন প্রজাতি বা পুরুষের থেকে ভিন্ন নরগোষ্ঠী নয়; কাজেই নৈতিক শিক্ষা থেকে বাদ দেয়ার পক্ষে যুক্তি নেই।”
নারী সম্পর্কে পৃথিবীর ইতিহাসে প্রথম ঐতিহাসিক গ্রন্থ কোনটি?
উত্তর : নারী সম্পর্কে পৃথিবীর ইতিহাসে প্রথম ঐতিহাসিক গ্রন্থ হচ্ছে, ‘Book of the City of Ladies’.
খ্রিস্টিন ডি. পিজান কোন গ্রন্থ সাহিত্যে নারীর চরিত্রায়ন সম্পর্কে তুমুল বিতর্কের অবতারণা করেন?
উত্তর : খ্রিস্টিন ডি. পিজান ‘Letter of the God of Love’ গ্রন্থ সাহিত্যে নারীর চরিত্রায়ন সম্পর্কে তুমুল বিতর্কের অবতারণা করেন।
বিশ্বের ইতিহাসে প্রথম ‘নারীবাদী সাহিত্য’ হিসেবে পরিচিত হয় কোনটি?
উত্তর : বিশ্বের ইতিহাসে প্রথম ‘নারীবাদী সাহিত্য’ হিসেবে পরিচিত হয় ‘Female Orations’ বা নারী ভাষণ।
‘Female Orations’ বা নারী ভাষণ কে রচনা করেন?
উত্তর : Female Orations’ বা নারী ভাষণ রচনা করেন ওলন্দাজ নারী মার্গারেট লুকাস।
কত সালে ‘Female Orations’ বা নারী ভাষণ রচিত হয়?
উত্তর : ১৯৬২ সালে ‘Female Orations’ বা নারী ভাষণ রচিত হয়।
ইতিহাসে প্রথম নারীবাদীরূপে কার নাম জানা যায়?
উত্তর : ইতিহাসে প্রথম নারীবাদীরূপে যার নাম জানা যায়, তিনি হলেন ফরাসি নারী পলেইন ডি লাব্যারে।
ফরাসি নারী পলেইন ডি লাব্যারে নারীবাদ সম্পর্কে কী লিখেছেন?
উত্তর : ফরাসি নারী পলেইন ডি লাব্যারে নারীবাদ সম্পর্কে লিখেছেন, “পুরুষ কর্তৃক নারী সম্পর্কে যা কিছু লেখা হয়েছে, তার ব্যাপারে সন্দেহ পোষণ করতে হয়। কারণ এক্ষেত্রে পুরুষ একই সাথে অভিযুক্ত ও বিচারকের আসনে আসীন।”
কিসের মধ্যে নারীবাদের প্রথম উদ্ভব ঘটেছিল?
উত্তর : মূলত পশ্চিম ইউরোপ ও আমেরিকার উদার ও গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক ঐতিহ্যের মধ্যে নারীবাদের প্রথম উদ্ভব ঘটেছিল।
কোন শতাব্দী হচ্ছে নারীবাদী চিন্তাচেতনা উদ্ভব এর সময়কাল?
উত্তর : অষ্টাদশ শতাব্দী ৭০ এর দশক হচ্ছে নারীবাদী চিন্তাচেতনা উদ্ভব এর সময়কাল।
তত্ত্বীয় কাঠামো হিসেবে কখন নারীবাদ সুসংহত রূপ লাভ করে?
উত্তর : তত্ত্বীয় কাঠামো হিসেবে নারীবাদ ঊনবিংশ শতাব্দীর ৮০ এর দশকের পর সুসংহত রূপ লাভ করে।
নারীবাদের উদ্ভব ও ক্রমবিকাশকে কয়টি পর্যায়ে বিভক্ত করা হয়েছে?
উত্তর : নারীবাদের উদ্ভব ও ক্রমবিকাশকে দুটি পর্যায়ে বিভক্ত করা হয়েছে।
অষ্টাদশ শতাব্দীর ৭০ এর দশক নারীবাদ উদ্ভবের কোন পর্যায়?
উত্তর : অষ্টাদশ শতাব্দীর ৭০ এর দশক নারীবাদ উদ্ভবের প্রথম পর্যায়।
কোন সময় থেকে নারীরা সমানাধিকারের দাবি জানাতে থাকেন?
উত্তর : মূলত ১৭৭৬ সালের ৪ জুলাই আমেরিকায় ‘স্বাধীনতার ঘোষণা পত্র’ প্রণীত হলে এবং ১৭৮৭ সালে মার্কিন সংবিধান গৃহীত হলে, সে সময় থেকে নারীরা সমানাধিকারের দাবি জানাতে থাকেন।
ফরাসি বিপ্লব কত সালে হয়?
উত্তর : ফরাসি বিপ্লব হয় ১৭৮৯ সালে।
কোন বিপ্লবের মহান বাণী নারীর অধিকারকে সামনে নিয়ে আসে?
উত্তর : ফরাসি বিপ্লবের আদর্শ, ‘স্বাধীনতা, সাম্য, মৈত্রী ও সৌভ্রাতৃত্ব’ (Liberty, Equaility Friendship and Fraternity) – এই মহান বাণী নারীর অধিকারকে সামনে নিয়ে আসে।
‘Declaration of the Rights of Women and the Female Citizen’ গ্রন্থটি কে রচনা করেন?
উত্তর : ‘Declaration of the Rights of Women and the Female Citizen’ গ্রন্থটি রচনা করেন অলিম্প ডি. গুজ (Olympe De Gouges).
সত্যিকারের নারীবাদী কণ্ঠ প্রথমে শোনা যায় কোন যুগান্তকারী গ্রন্থে?
উত্তর : সত্যিকারের নারীবাদী কণ্ঠ প্রথমে শোনা যায় ইংরেজ লেখিকা মেরি এস্টোনক্রাফট এর যুগান্তকারী গ্রন্থে।
Mary Wollstonecraft এর যুগান্তকারী গ্রন্থ কত সালে প্রকাশিত হয়?
উত্তর : Mary Wollstonecraft এর যুগান্তকারী গ্রন্থ ১৯৭২ সালে প্রকাশিত হয়।
Mary Wollstonecraft এর যুগান্তকারী গ্রন্থটির নাম কী?
উত্তর : Mary Wollstonecraft এর যুগান্তকারী গ্রন্থটির নাম হলো, ‘A Vindication of the Rights
of Women.’ ‘A Vindication of the Rights of Men’ এ বইটির রচয়িতা কে?
উত্তর : ব্রিটিশ লেখিকা মেরি ওলস্টোনক্রাফট।
বিশ্বের প্রথম নারীর অধিকার বিষয়ক সম্মেলন কত সালে অনুষ্ঠিত হয়?
উত্তর : বিশ্বের প্রথম নারীর অধিকার বিষয়ক সম্মেলন ১৮৪৮ সালে অনুষ্ঠিত হয়।
বিশ্বের প্রথম নারীর অধিকার বিষয়ক সম্মেলন কার উদ্যোগে হয়?
উত্তর : বিশ্বের প্রথম নারীর অধিকার বিষয়ক সম্মেলন এলিজাবেথ ক্যাডি স্ট্যানটন ও লুক্রেশিয়া মট-এর উদ্যোগে হয়।
বিশ্বের প্রথম নারীর অধিকার বিষয়ক সম্মেলন কোথায় অনুষ্ঠিত হয়?
উত্তর : বিশ্বের প্রথম নারীর অধিকার বিষয়ক সম্মেলন যুক্তরাষ্ট্রের সেনেকা ফলস (Seneca Falls) নামক শহরে অনুষ্ঠিত হয়।
নারীর অধিকার বিষয়ক সম্মেলনের উদ্দেশ্য কী ছিল?
উত্তর : নারীর অধিকার বিষয়ক সম্মেলনের উদ্দেশ্য ছিল ‘নারীর সামাজিক, নাগরিক ও ধর্মীয় অবস্থা এবং অধিকার আলোচনা।’
নারীর অধিকার বিষয়ক সম্মেলনে কতজন কর্মী যোগদান করে?
উত্তর : নারীর অধিকার বিষয়ক সম্মেলনে ২০০ জন কর্মী যোগদান করে।
স্ট্যানটন সম্মেলনে আমেরিকার স্বাধীনতার ঘোষণা পত্রে কতটি দাবি ও অভিযোগনামা অন্তর্ভুক্ত করা হয়?
উত্তর : স্ট্যানটন সম্মেলনে আমেরিকার স্বাধীনতার ঘোষণা পত্রে ১৮ টি দাবি ও অভিযোগনামা অন্তর্ভুক্ত করা হয়।
স্ট্যানটন সম্মেলনে কোন দাবি ছাড়া বাকি সকল দাবি সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়?
উত্তর : স্ট্যানটন সম্মেলনে ভোটাধিকারের দাবি ছাড়া বাকি সকল দাবি সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়।
কুইনস কলেজ (Queen’s College) কত সালে প্রতিষ্ঠিত হয়?
উত্তর : কুইনস কলেজ (Queen’s College) ১৮৪৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।
যে দু’জন দার্শনিক নারী অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক অধিকার নিয়ে সোচ্চার হয়েছিল তাদের নাম কী?
উত্তর : যে দু’জন দার্শনিক নারী অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক অধিকার নিয়ে সোচ্চার হয়েছিল তাদের নাম হলো, জন স্টুয়ার্ট মিল এবং হ্যারিয়েট টেইলর মিল ।
হ্যারিয়েট টেইলর মিল ১৮৫১ সালে কোন গ্রন্থটি প্রকাশ করে?
উত্তর : হ্যারিয়েট টেইলর মিল ১৮৫১ সালে তাঁর ‘Enfranchisement of Women’ গ্রন্থটি প্রকাশ করে।
আন্তর্জাতিক নারী দিবস কখন?
উত্তর : আন্তর্জাতিক নারী দিবস হলো ৮ মার্চ।
কত সালে নিউইয়র্কের কারখানার নারী শ্রমিকরা তাদের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে নিজস্ব ট্রেড ইউনিয়ন গঠনে সমর্থ হন?
উত্তর : ১৮৬০ সালে ৮ই মার্চ নিউইয়র্কের কারখানার নারী শ্রমিকরা তাদের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে নিজস্ব ট্রেড
ইউনিয়ন গঠনে সমর্থ হন।
‘প্যারি কমিউন’ কী?
উত্তর : ফ্রান্সে ১৮৭১ সালে শ্রমজীবী জনগণের প্রথম কমিউনিস্ট সমাজ নির্মাণের মহৎ প্রচেষ্টা ‘প্যারি কমিউন’ এ
হাজার হাজার শ্রমজীবী নারীর অংশগ্রহণ নারীবাদকে এক নতুন মাত্রায় উন্নীত করে।
ঊনবিংশ শতাব্দীর ৯০ এর দশকে ভোটাধিকার আদায়ের লক্ষ্যে কী কী সংগঠন গড়ে উঠে?
উত্তর : ঊনবিংশ শতাব্দীর ৯০ এর দশকে ভোটাধিকার আদায়ের লক্ষ্যে ১৮৮০ সালে আমেরিকায় ‘National American Women Suffrage Association’ এবং ১৮৯৭ সালে ইংল্যান্ডে ‘National Union of Women’s Suffrage Societies’ গঠিত হয়।
মার্কিন ভোটাধিকার আদায়ের আন্দোলনে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখেন কে?
উত্তর : মার্কিন ভোটাধিকার আদায়ের আন্দোলনে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখেন এলিজাবেথ ক্যাডি স্ট্যানটন।
ইংল্যান্ডে ভোটাধিকারের আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন কে কে?
উত্তর : ইংল্যান্ডে ভোটাধিকারের আন্দোলনে নৈতৃত্ব দিয়েছিলেন এমিলি ডেভিস, এমিলিন প্যাস্কহার্স্ট, এলিজাবেথ গ্যারেট অ্যান্ডারসন প্রমুখ নারীবাদী ইংল্যান্ডে ভোটাধিকারের আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।
ইংল্যান্ডে ভোটাধিকারের আন্দোলনের নেতৃত্বে কে কারাবরণ করেছিল?
উত্তর : ইংল্যান্ডে ভোটাধিকারের আন্দোলনের নেতৃত্বে প্যাস্কহার্স্ট এ অধিকার আদায় করতে গিয়ে কারাবরণ করেছিল।
পৃথিবীর ইতিহাসে নারীর ভোটাধিকার স্বীকারকারী প্রথম দেশ কোনটি?
উত্তর : পৃথিবীর ইতিহাসে নারীর ভোটাধিকার স্বীকারকারী প্রথম দেশ নিউজিল্যান্ড ।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নারীরা কত সালে ভোটাধিকার লাভ করে?
উত্তর : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নারীরা ১৯২০ সালে ভোটাধিকার লাভ করে।
ভারতের নারীরা কত সালে ভোটাধিকার লাভ করে?
উত্তর : ভারতের নারীরা ১৯৪৯ সালে ভোটাধিকার লাভ করে।
সর্বশেষ নারী ভোটাধিকারপ্রাপ্ত দেশ কোনটি?
উত্তর : সর্বশেষ নারী ভোটাধিকারপ্রাপ্ত দেশ সুইজারল্যান্ড (১৯৭১)।
‘The Second Sex’ গ্রন্থটি কার?
উত্তর : ‘The Second Sex’ গ্রন্থটির লেখক সিমন দ্য বুভোয়ার (Simone De Beauvoir).
সিমন দ্য বুভোয়ার কোন দেশের অধিবাসী ছিলেন?
উত্তর : সিমন দ্য বুভোয়ার ফরাসির অধিবাসী ছিলেন।
“নারীরাও তাদের চেষ্টায় পুরুষের ন্যায় ক্ষমতাবান হতে পারেন।” এ বক্তব্যটি কার?
উত্তর : “নারীরাও তাদের চেষ্টায় পুরুষের ন্যায় ক্ষমতাবান হতে পারেন।” এ বক্তব্যটি মার্কিন সাংবাদিক বেটি ফ্রাইডেন এর।
১৯৬৬ সালে বেটি ফ্রাইডেন ও অন্যান্য নারী মিলে কোন প্রতিষ্ঠান তৈরি করেন?
উত্তর : ১৯৬৬ সালে বেটি ফ্রাইডেন ও অন্যান্য নারী মিলে ‘National Organization for Women’ (NOW) প্রতিষ্ঠান তৈরি করেন।
‘নারীমুক্তি সভা’ কখন কোথায় অনুষ্ঠিত হয়?
উত্তর : ‘নারীমুক্তি সভা’ ১৯৭০ সালে অক্সফোর্ডের রাসকিন কলেজে অনুষ্ঠিত হয়।
‘নারীমুক্তি সভায়’ কয়টি বিষয় তুলে ধরা হয়?
উত্তর : ‘নারীমুক্তি সভায়’ চারটি বিষয় তুলে ধরা হয়।
নারীমুক্তি সভার চারটি বিষয় কী কী?
উত্তর : নারীমুক্তি সভার চারটি বিষয় হলো : ক. নারী-পুরুষের সমান বেতন ও ভাতা; খ. নারী-পুরুষের জন্য একই ধরনের শিক্ষা এবং সুযোগ; গ. ২৪ ঘণ্টা শিশু সেবা প্রদানের আশ্রম; ঘ. চাওয়ামাত্র বিনামূল্যে গর্ভনিরোধ এবং গর্ভপাতের ব্যবস্থা।
নারীদের অধিকার সম্পর্কিত একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কী?
উত্তর : নারীদের অধিকার সম্পর্কিত একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো যৌনতা (Sexuality).
জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠার কত বছর পর নারী অধিকারের প্রতি স্বীকৃতি প্রদানে এগিয়ে আসে?
উত্তর : জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠার ৩০ বছর পর নারী অধিকারের প্রতি স্বীকৃতি প্রদানে এগিয়ে আসে।
১৯৭২ সালে জাতিসংঘ সাধারণ সভায় কত সালকে ‘আর্ন্তজাতিক নারী বর্ষ’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়?
উত্তর : ১৯৭২ সালে জাতিসংঘ সাধারণ সভায় ১৯৭৫ সালকে ‘আন্তর্জাতিক নারী বর্ষ’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়।
জাতিসংঘ কর্তৃক নারী দশক মনোগ্রাম কী ছিল?
উত্তর : জাতিসংঘ কর্তৃক নারী দশক মনোগ্রাম ‘শান্তি, সমতা ও উন্নয়ন’ ছিল
১৯৭৭ সালে জাতিসংঘ ৮ মার্চকে কী দিবস হিসেবে ঘোষণা করে?
উত্তর : ১৯৭৭ সালে জাতিসংঘ ৮ মার্চকে আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে ঘোষণা করে।
আন্তর্জাতিক নারী দিবস কবে পালিত হয়?
উত্তর : আন্তর্জাতিক নারী দিবস ৮ মার্চ পালিত হয়।
১৯৭৯ সালে জাতিসংঘ নারীর প্রতি সকল বৈষম্য বিলোপের জন্য কোন সনদ অনুমোদন করে?
উত্তর : ১৯৭৯ সালে জাতিসংঘ নারীর প্রতি সকল বৈষম্য বিলোপের জন্য ‘সিডও’ (CEDAW) সনদ অনুমোদন করে।
নারীবাদী তত্ত্ব বা মতবাদ প্রধানত কয় ধারায় বিভক্ত?
উত্তর : নারীবাদী তত্ত্ব বা মতবাদ প্রধানত চারটি ধারায় বিভক্ত।
নারীবাদী তত্ত্ব বা মতবাদগুলো কী কী?ধারাগুলো কী কী?
উত্তর : নারীবাদী তত্ত্ব বা মতবাদগুলো হলো : ক. উদারপন্থি নারীবাদ; খ. আমূল বা প্রগতি বা র‍্যাডিক্যাল নারীবাদ; গ. মার্কসীয় নারীবাদ এবং ঘ. সমাজতান্ত্রিক নারীবাদ।
১. ‘উদারপন্থি নারীবাদ’ কোন তাত্ত্বিক চিন্তাধারা হতে উদ্ভূত হয়েছে?
উত্তর : ‘উদারপন্থি নারীবাদটি ‘উদারতাবাদ (Leiberalism) নামক রাজনৈতিক চিন্তাধারা হতে উদ্ভূত হয়েছে।
উদারপন্থি নারীবাদের সাথে যাদের নাম বিশেষভাবে জড়িত রয়েছে তারা কে কে?
উত্তর : উদারপন্থি নারীবাদের সাথে যাদের নাম বিশেষভাবে জড়িত রয়েছে তারা হলেন, মেরি ওলস্টোনক্রাফট, জন স্টুয়ার্ট মিল, হ্যারিয়েট টেইলর, বেটি ফ্রাইডেন প্রমুখ ।
মেরি ওলস্টোনক্রাফট কত সালে জন্মগ্রহণ করে?
উত্তর : মেরি ওলস্টোনক্রাফট ১৭৫৯ সালে জন্মগ্রহণ করে।
নারীবাদ চিন্তা জগতের প্রথম পথিকৃৎ এবং নারীবাদের জননী কে?
উত্তর : নারীবাদ চিন্তা জগতের প্রথম পথিকৃৎ এবং নারীবাদের জননী মেরি ওলস্টোনক্রাফট (Mary Wollstonecraft).
‘A vindication of the rights of women’ বইটির লেখক কে?
উত্তর : মেরি ওলস্টোনক্রাফট ।
মেরি ওলস্টোনক্রাফট এর প্রথম ও দ্বিতীয় গ্রন্থ কোনটি?
উত্তর : মেরি ওলস্টোনক্রাফট এর প্রথম গ্রন্থ হলো “মানুষের অধিকার” (A Vindication of the Rights of Men) এবং দ্বিতীয় গ্রন্থ হলো “নারীর অধিকার” (A Vindication of the Rights of Women).
“ইতিহাসের পাতা উল্টিয়ে এবং চারপাশের জগতের দিকে উদ্বিগ্ন উৎকণ্ঠায় তাকিয়ে আমার চেতনা পীড়িত হয়েছে বেদনার্ত ক্ষোভের সবচেয়ে বিষণ্ণ আবেগে এবং আমি দীর্ঘশ্বাস ফেলেছি একথা স্বীকার করে যে, হয়তো প্রকৃতিই পুরুষ ও নারীর মধ্যে সৃষ্টি করেছে বড় বিভেদ নয়তো পৃথিবীতে এ পর্যন্ত যে সভ্যতার বিকাশ ঘটেছে তা খুবই
পক্ষপাতপূর্ণ।”— উক্তিটি কোন গ্রন্থের প্রথম বাক্যে রয়েছে?
উত্তর : “ইতিহাসের পাতা উল্টিয়ে এবং চারপাশের জগতের দিকে উদ্বিগ্ন উৎকণ্ঠায় তাকিয়ে আমার চেতনা পীড়িত হয়েছে বেদনার্ত ক্ষোভের সবচেয়ে বিষণ্ণ আবেগে এবং আমি দীর্ঘশ্বাস ফেলেছি একথা স্বীকার করে যে, হয়তো প্রকৃতিই পুরুষ ও নারীর মধ্যে সৃষ্টি করেছে বড় বিভেদ নয়তো পৃথিবীতে এ পর্যন্ত যে সভ্যতার বিকাশ ঘটেছে তা খুবই পক্ষপাতপূর্ণ।”— উক্তিটি ‘A Vindication of the Rights of Women’ গ্রন্থের প্রথম বাক্যে রয়েছে।
‘পুরুষকে যদি নারীর মতো খাঁচায় আবদ্ধ করে রাখা হতো, তাহলে পুরুষের মধ্যেও নারীর মতো চরিত্র সৃষ্টি হতো।’ – উক্তিটি কার?
উত্তর : ‘পুরুষকে যদি নারীর মতো খাঁচায় আবদ্ধ করে রাখা হতো, তাহলে পুরুষের মধ্যেও নারীর মতো চরিত্র সৃষ্টি হতো।’ – উক্তিটি মেরি ওলস্টোনক্রাফট এর।
‘The Subjection of Women’ (1869) নারীমুক্তি বিষয়ক অন্যতম রচনাটা কার?
উত্তর : ‘The Subjection of Women’ (1869) নারীমুক্তি বিষয়ক অন্যতম রচনাটা জন স্টুয়ার্ট মিল এর।
‘Erfranchisement of Women’ (1851) রচনাটি কার?
উত্তর : ‘Enfranchisement of Women’ (1851) রচনাটি হ্যারিয়েট টেইলর মিল এর।
প্রথম পুরুষ নারীর অধস্তনতার বিভিন্ন দিক নিয়ে কথা বলেন তিনি কে?
উত্তর : প্রথম পুরুষ নারীর অধস্তনতার বিভিন্ন দিক নিয়ে কথা বলেন তিনি হলেন জন স্টুয়ার্ট মিল ।
যুক্তরাষ্ট্রের নারী আন্দোলনের অগ্রদূত কে?
উত্তর : যুক্তরাষ্ট্রের নারী আন্দোলনের অগ্রদূত হলো বেটি ফ্রাইডেন (Betty Freidan).
National Organization for Women (NOW) এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও প্রথম প্রেসিডেন্ট কে?
উত্তর : National Organization for Women (NOW) এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও প্রথম প্রেসিডেন্ট বেটি ফ্রাইডেন।
বেটি ফ্রাইডেন এর আলোড়ন সৃষ্টিকারী বইটির নাম কী?
উত্তর : ‘The Feminine Mystique.
‘অতিনারী’ বা ‘সুপার উইমেন’ বেটি ফ্রাইডান কাদের আখ্যা দেন?
উত্তর : বেটি ফ্রাইডেন গৃহস্থল ও কর্মস্থল উভয় ক্ষেত্রে অতিরিক্ত শ্রম দেয়া নারীকে ‘অতিনারী’ বা ‘সুপার উইমেন’ আখ্যা দেন।
গুলামিথ ফায়ারস্টোন-এর সাড়া জাগানো গ্রন্থটির নাম কী?
উত্তর : শুলামিথ ফায়ারস্টোন-এর সাড়া জাগানো গ্রন্থটির নাম ‘The Dialectic of Sex: The Case for Feminist Revolution’ |
র‍্যাডিকেল নারীবাদী শুলামিথ ফায়ার স্টোনের দৃষ্টিতে ইতিহাসের মূল চালিকাশক্তি কি?
উত্তর : নারী পুরুষের মধ্যকার প্রজননমূলক সম্পর্ক হচ্ছে ইতিহাসের মূল চালিকাশক্তি।
‘The Origin of the Family Private Property and the State’ (1895) গ্রন্থটি কে রচনা করেন?
উত্তর : The Origin of the Family Private Property and the State’ (1895) গ্রন্থটি এঙ্গেলস রচনা করেন।
আমূল নারীবাদের মূল বক্তব্য কী?
উত্তর : আমূল নারীবাদের মূল বক্তব্য হলো পুরুষ নারীকে লৈঙ্গিক পীড়নের মাধ্যমে শোষণ করে।
উদারপন্থি নারীবাদ কিসে বিশ্বাসী?
উত্তর : উদারপন্থি নারীবাদ সমাজ সংস্কারের মাধ্যমে নারীর মুক্তিতে বিশ্বাসী।
নারীবাদের ইতিহাসে প্রথম নারীবাদের নাম কী?
উত্তর : উদারপন্থি নারীবাদ।
উদারপন্থি নারীবাদী কে কে?
উত্তর : মেরি ওলস্টোনক্রাফট, জন স্টুয়ার্ট মিল, হ্যারিয়েট টেইলর, বেটি ফ্রাইডেন প্রমুখ।
কেট মিলেট-এর একটি গ্রন্থের নাম লিখ।
উত্তর : কেট মিলেট-এর একটি গ্রন্থের নাম ‘Sexual Politics’ ‘Sexual Politics’ বইটির লেখক কে?
উত্তর : কেট মিলেট
আদি পরিবার কেমন ছিল?
উত্তর : আদি পরিবার মাতৃতান্ত্রিক ছিল।
কেট মিলেটকে নারীবাদের প্রধান তাত্ত্বিক হিসেবে বর্ণনা করে কোন পত্রিকা?
উত্তর : নিউইয়র্ক টাইমস মিলেটকে নারীবাদের প্রধান তাত্ত্বিক হিসেবে বর্ণনা করে।
কেট মিলেট এর মতে সেক্স মূলত কী?
উত্তর : কেট মিলেট এর মতে সেক্স মূলত রাজনৈতিক ব্যবস্থা।
“নারী নির্যাতনের মূল শেকড় সেক্স বা জেন্ডার ব্যবস্থার গভীরে নিহিত ” -এ উক্তিটি কার?
উত্তর : “নারী নির্যাতনের মূল শেকড় সেক্স বা জেন্ডার ব্যবস্থার গভীরে নিহিত”-এ উক্তিটি কেট মিলেট এর।
মেরিলিন ফ্রেন্স কে?
উত্তর : মেরিলিন ফ্রেন্স হলেন একজন আমূল নারীবাদী দার্শনিক।
ফ্রেন্স এর মতে সকল প্রকার নির্যাতনের মুলে কী রয়েছে?
উত্তর : ফ্রেন্স এর মতে সকল প্রকার নির্যাতনের মূলে রয়েছে পিতৃতন্ত্র বা পুরুষতন্ত্র।
মার্কসীয় নারীবাদ কী?
উত্তর : মার্কসীয় নারীবাদ হলো নারী সম্পর্কে কার্ল মার্কস ও ফ্রেডারিক এঙ্গেলস-এর মতবাদের অনুসারীদের চিন্তাধারা ও দৃষ্টিভঙ্গি।
পুঁজিবাদ নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমত।বে কী করে?
উত্তর : পুঁজিবাদ নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতাকে কুক্ষিগত ও নিয়ন্ত্রিত করে।
লেনিন এর মতে নারীর স্বাধীনতা বা মুক্তির প্রথম শর্ত কী?
উত্তর : লেনিন এর মতে নারীর স্বাধীনতা বা মুক্তির প্রথম শর্ত হচ্ছে নারীদের গৃহস্থালির যন্ত্রণাদায়ক কাজ থেকে মুক্তি দেয়া।
অস্তিত্ববাদী নারীবাদের প্রধান প্রবক্তা কে?
উত্তর : অস্তিত্ববাদী নারীবাদের প্রধান প্রবক্তা হলেন সিমন দ্য বুভোয়ার (Simone de Beauvoir).
আধুনিক নারীবাদের সাথে জড়িতদের কয়েকজনের নাম লিখ।
উত্তর : আধুনিক নারীবাদের সাথে জড়িতদের কয়েকজনের নাম হলো মিশেলস ফুকো (Michel Foucault), জ্যাক ডারিডা (Jacques Darrida), জ্যাক লাকান (Jacque Lacan), হেলেন সিক্সাস (Helen Cixous), লুস ইরিগারে (Luce Irigaray), জুলিয়া ক্রিস্টিভা (Julia Kristeva) প্রমুখ নারীবাদী।
১৯৫৭ সালে প্রকাশিত ‘The Laugh of the Medusa’ গ্রন্থটি কার?
উত্তর : ১৯৫৭ সালে প্রকাশিত ‘The Laugh of the Medusa’ গ্রন্থটি হেলেন সিক্সাস এর।
পরিবেশ নারীবাদ বা ইকোফেমিনিজম (Eco Feminism) কথাটি প্রথমে কোথা হতে এসেছে?
উত্তর : পরিবেশ নারীবাদ বা ইকোফেমিনিজম (Eco Feminism) কথাটি প্রথমে ১৯৭৪ সালে ফ্রান্সের ফ্রান্সোয়া ডি ইউবোঁ এর থেকে এসেছে।
‘Feminism and Ecology’ গ্রন্থটি কার লেখা?
উত্তর : ‘Feminism and Ecology’ গ্রন্থটি কারেন জে. ওয়ারেন (Karen J. Warren) এর লেখা।
Staying Alive : Women Ecology and Survival in India’ গ্রন্থটি কার লেখা?
উত্তর : ‘Staying Alive : Women Ecology and Survival in India’ গ্রন্থটি ভারতের বন্দনা শিবার লেখা।
সমাজতান্ত্রিক নারীবাদের প্রবক্তা কে?
উত্তর : সমাজতান্ত্রিক নারীবাদের প্রবক্তা জুলিয়েট মিশেল।
‘Staying Alive : Women Ecology and Survival in India’ গ্রন্থটিতে কোন তিনটির মধ্যে সম্পর্ক দেখিয়েছেন?
উত্তর : ‘Staying Alive : Women Ecology and Survival in India’ গ্রন্থটিতে উন্নয়ন, ইকোলজি (পরিবেশ প্রতিবেশ বা বস্তুতন্ত্র) এবং নারী এই তিনটির মধ্যে সম্পর্ক দেখিয়েছেন।
চিপকো আন্দোলন মানে কী?
উত্তর : চিপকো আন্দোলন মানে হিমালয় বনাঞ্চলে বাণিজ্যিক কারণে বন কাটার বিরুদ্ধে নারীরা গাছে গাছে
জড়িয়ে থেকে গাছকে রক্ষা করেছিল।’
চিপকো আন্দোলন কোথায় হয়েছিল?
উত্তর : চিপকো আন্দোলন হয়েছিল হিমালয় বনাঞ্চলে ।
Eco-Feminism এর বাংলা প্রতিশব্দ কী?
উত্তর : পরিবেশ নারীবাদ ।
‘Eco Feminism’ গ্রন্থটি কারা যৌথভাবে লিখেন?
উত্তর : ‘Eco Feminism’ গ্রন্থটি মারিয়া মাইজ (Maria Mies) ও বন্দনা শিবা (Bandana Shiva) যৌথভাবে লিখেন।
এ পর্যন্ত কতজন নারীকে ডাইনি অপবাদ দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে?
উত্তর : এ পর্যন্ত প্রায় ৬০ লাখ নারীকে ডাইনি অপবাদ দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে।
১৭৫৭ থেকে ১৮২৯ সাল পর্যন্ত কতজন নারীকে সতীদাহ করা হয়েছিল?
উত্তর : ১৭৫৭ থেকে ১৮২৯ পর্যন্ত প্রায় সত্তর হাজার নারীকে সতীদাহ করা হয়েছিল।
কখন ফ্রান্সে নারীবাদী আন্দোলনের সূচনা হয়?
উত্তর : ১৯৩০ এর দশকে ফ্রান্সে নারীবাদী আন্দোলনের সূচনা হয়।
কে বাংলার নারী জাগরণের অগ্রদূত হিসেবে খ্যাত?
উত্তর : বেগম রোকেয়া বাংলার নারী জাগরণের অগ্রদূত হিসেবে খ্যাত।
সাংস্কৃতিক নারীবাদ কী?
উত্তর : সাংস্কৃতিক নারীবাদ হলো আমূল নারীবাদ ও সমাজতান্ত্রিক নারীবাদ এর মিলিত রূপ ।
কয়েকজন সাংস্কৃতিক নারীবাদীর নাম লিখ।
উত্তর : Margaret Fuller, Frances Willard, Jane Addams প্রমুখ সাংস্কৃতিক নারীবাদী হিসাবে খ্যাত।
সাংস্কৃতিক নারীবাদীরা নারীর কোন কোন শারীরিক বৈশিষ্ট্যের উপর গুরুত্বারোপ করেছেন?
উত্তর : সাংস্কৃতিক নারীবাদীরা নারীর সহনশীলতা, মমতাময়ী, মাতৃত্ব প্রভৃতি শারীরিক বৈশিষ্ট্যের উপর গুরুত্বারোপ করেছেন।
সাংস্কৃতিক নারীবাদীরা পুরুষকে কী হিসেবে বিবেচনা করে?
উত্তর : সাংস্কৃতিক নারীবাদীরা পুরুষকে শত্রু হিসেবে বিবেচনা করে
আধুনিক নারীবাদীরা কোন ধারণাকে বাতিল করতে আগ্রহী?
উত্তর : আধুনিক নারীবাদীরা আধুনিকতার ধারণা বাতিলে আগ্রহী।
মানুষে মানুষে বৈষম্যের মূল কারণ কী?
উত্তর : মানুষে মানুষে বিভেদের মূল কারণ লিঙ্গ বৈষম্য।
সাকসিয়া উইরিঙ্গা (Saksia Wieringa) প্রণীত গ্রন্থের নাম কী?
উত্তর : Subversive Women.
Existentialism (অস্তিত্ববাদ) কী?
উত্তর : Existentialism বা অস্তিত্ববাদ একটি দার্শনিক মতবাদ।
‘Epistemology’ শব্দের অর্থ কী?
উত্তর : জ্ঞানতত্ত্ব।
কোন গ্রন্থে সিমন দ্য বুডোয়ার অস্তিত্ববাদ নিয়ে আলোচনা করেছেন?
উত্তর : The Second Sex গ্রন্থে।
বুভোয়ারের অস্তিত্ববাদী নারীবাদ দ্বারা প্রভাবিত হয়েছিলেন কোন দার্শনিক?
উত্তর : জ্যা পল সার্ত্রে (Jean Paul Sartre) অস্তিত্ববাদী দর্শন দ্বারা প্রভাবিত হয়েছিলেন ।
নারী-পুরুষের স্বাধীনতার সংঘাতকে বুভোয়ার কী বলে উল্লেখ করেছেন?
উত্তর : নারী-পুরুষের স্বাধীনতার সংঘাতকে বুভোয়ার অস্তিত্ববাদের সংঘাত হিসেবে উল্লেখ করেছেন।
কোনো মানুষ নারী হয়ে জন্ম নেয় না এ সমাজ তাকে নারী বানায়” উক্তিটি কার?
উত্তর : উক্তিটি সিমন দ্য বুভোয়ারের।
হেলেন সিক্সাস (Helene Cixous) রচিত নারীবাদের উপর রচিত বিখ্যাত গ্রন্থ কোনটি?
উত্তর : ‘The Laugh of the Medusa’.
হেলেন সিক্সাসর মতে নারী-পুরুষের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করেছে কে?
উত্তর : হেলেন সিক্সাস মনে করেন নারী ও পুরুষের মধ্যে ব্যবধান সৃষ্টি করেছে পুরুষ।
পরিবেশ নারীবাদ কী?
উত্তর : পরিবেশ নারীবাদের মূল বক্তব্য হলো নারী ও পরিবেশ উভয়ই পিতৃতন্ত্রের উপর নির্ভর করে যাদেরকে পিতৃতন্ত্র বছরের পর বছর শোষণ করছে।
পরিবেশ নারীবাদ সর্বপ্রথম কার লেখনীতে প্রকাশ পায়?
উত্তর : ফ্রান্সের ফ্রান্সোয়া ডি ইউবোঁ (Francoise de Eanbcme) এর লেখনীতে সর্বপ্রথম পরিবেশ নারীবাদ প্রকাশ পায়।
কে সর্বপ্রথম পরিবেশ নারীবাদ (Eco Feminism) শব্দটি ব্যবহার করেন?
উত্তর : ফ্রান্সোয়া ডি ইউবো (Francoise de Eaubome) সর্বপ্রথম Eco Feminism শব্দটি ব্যবহার করেন।
ফ্রান্সোয়া ডি ইউবোঁ (Francoise de Eaubome) তাঁর কোন গ্রন্থে পরিবেশ নারীবাদ কথাটি ব্যবহার করেন?
উত্তর : ফ্রান্সোয়া ডি ইউবো তাঁর ‘Le Femenism cu la Mort’ গ্রন্থে ১৯৭৪ সালে Eco Feminism প্রত্যয়টি ব্যবহার করেন।
নারীর প্রকৃত মুক্তি কখন সম্ভব?
উত্তর : যখন নারীরা পুরুষ সৃষ্ট জগৎ থেকে বেরিয়ে আসবে তখন নারীর প্রকৃত মুক্তি সম্ভব হবে।
কারেন জে. ওয়ারেন (Karen. J. Warren) প্রণীত নারীবাদের উপর প্রণীত বিখ্যাত গ্রন্থ কোনটি?
উত্তর : কারেন জে. ওয়ারেন প্রণীত বিখ্যাত গ্রন্থটির নাম হলো Feminism and Ecology.
Black Feminism অর্থ কী?
উত্তর : Black Feminism অর্থ ‘কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদ’।
কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদ কী ধরনের মতবাদ?
উত্তর : কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদ মূলত কৃষ্ণাঙ্গ নারীদের জাতিগত, বর্ণগত, লিঙ্গগত ও শ্রেণিগত নিপীড়ন থেকে মুক্তির জন্য মতবাদ।
কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদ কোন যুক্তি প্রদর্শন করে?
উত্তর : কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদ যুক্তি প্রদর্শন করে যে “লিঙ্গবাদ, শ্রেণি নিপীড়ন ও জাতিবাদ এমনভাবে জটপাকিয়ে মিশে আছে যে এদেরকে ছাড়ানো অসম্ভব।”
কখন কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদী সংগঠনগুলোর উদ্ভব হয়?
উত্তর : বিংশ শতাব্দীর ৭০ এর দশকে কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদী সংগঠনগুলোর উদ্ভব হয়।
কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদ কী?
উত্তর : কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদ হলো কৃষ্ণাঙ্গ (কালো) নারীদের জাতি, বর্ণ, লিঙ্গ ও শ্রেণিগত বৈষম্য ও নিপীড়ন থেকে মুক্তির প্রক্রিয়া।
কয়েকটি কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদী সংগঠনের নাম লিখ।
উত্তর : কয়েকটি কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদী সংগঠনের নাম নিম্নরূপ : ক. The National Black Feminist Organization; খ. The Black Panther Party প্রভৃতি।
OP ‘NBFO’ এর পূর্ণরূপ কী?
উত্তর : ‘NBFO’ এর পূর্ণরূপ হলো The National Black Feminist Organization.
NBFO কত সালে প্রতিষ্ঠিত হয়?
উত্তর : NBFO ১৯৭৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।
NBFO কোথায় প্রতিষ্ঠিত হয়?
উত্তর : NBFO নিউইয়র্কে প্রতিষ্ঠিত হয়।
NBFO এর প্রতিষ্ঠাতা কে ছিলেন?
উত্তর : NBFO এর প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন মার্গারেট স্লোন, হান্টার ও অন্যান্য।
সর্বকালের গুরুত্বপূর্ণ কৃষ্ণাঙ্গ সমাজতান্ত্রিক নারীবাদী সংগঠনের নাম কী?
উত্তর : সর্বকালের গুরুত্বপূর্ণ কৃষ্ণাঙ্গ সমাজতান্ত্রিক নারীবাদী সংগঠনের নাম ছিল ‘The Combahee Riber Collective-CEC.’
কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদী সংগঠনকে কোন তিনটি বিশেষ চ্যালেঞ্জের সফলভাবে উত্তীর্ণ হতে হয়েছিল?
উত্তর : কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদী সংগঠনকে যে তিনটি বিশেষ চ্যালেঞ্জের সফলভাবে উত্তীর্ণ হতে হয়েছিল তা হলো : ক. কৃষ্ণাঙ্গ নারীদের কাজেই এ সংগঠনকে প্রমাণ করতে হয়েছিল যে, নারীবাদ শুধু শেতাঙ্গ নারীদের জন্যই নয়। খ. তারা দাবি করে যে শেতাঙ্গ নারীগণ তাদের সাথে যেন ক্ষমতা ভাগাভাগি করে নেয়। গ. তারা দাবি করে যে ‘‘বিচিত্রতার সমর্থন এ যুদ্ধ’ কৃষ্ণাঙ্গ নারীদের স্ত্রী-প্রবণতা।
‘Black Feminist Thought’-গ্রন্থটি কার?
উত্তর : ‘Black Feminist Thought’ গ্রন্থটির রচয়িতা Patricia Hill Collins.
তৃতীয় বিশ্ব নারীবাদ মূলত কোন নারীবাদের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পৃক্ত?
উত্তর : তৃতীয় বিশ্ব নারীবাদ মূলত ‘উত্তর উপনিবেশ নারীবাদ’ এর সাথে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পৃক্ত।
কোন দেশ নিয়ে তৃতীয় বিশ্ব গঠিত?
উত্তর : দীর্ঘকাল ধরে ঔপনিবেশিক শাসনে থাকার ফলে যারা শোষিত এবং বিকাশের সমস্ত সুযোগ থেকে বঞ্চিত
এসব দেশ নিয়েই তৃতীয় বিশ্ব গঠিত।
তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোকে কেন ‘স্বল্পোন্নত দেশ বলা হয়?
উত্তর : অর্থনৈতিক দিক থেকে তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলো অনেকখানি পশ্চাৎপদ সেজন্য এদেরকে ‘স্বল্পোন্নত’ দেশ বলা হয়।
যুক্তরাষ্ট্র কী ধরনের রাষ্ট্র?
উত্তর : যুক্তরাষ্ট্র পুঁজিবাদী রাষ্ট্র ।
যুক্তরাষ্ট্রের নারী অধিকার আন্দোলনের সূচনাকারী কে?
উত্তর : যুক্তরাষ্ট্রের নারী অধিকার আন্দোলনের সূচনাকারী ছিলেন সিমন দ্য বুভোয়ার ।
‘The Second Sex’ গ্রন্থটি কার রচিত?
উত্তর : ‘The Second Sex’ গ্রন্থটি সিমন দ্য বুভোয়ার রচিত।
The Second Sex’ গ্রন্থটি কত সালে প্রকাশিত হয়?
উত্তর : ‘The Second Sex’ গ্রন্থটি ১৯৪৯ সালে প্রকাশিত হয়।
‘নারীমুক্তির সবচেয়ে বড় দলিল বা বাইবেল’ কোন গ্রন্থটি ছিল?
উত্তর : ‘নারীমুক্তির সবচেয়ে বড় দলিল বা বাইবেল’ ছিল সিমনের ‘The Second Sex’ গ্রন্থটি।
কত সালে ভারতের নারী সমাজ অধিকার লাভ করে?
উত্তর : ১৯৩৫ সালে।
বাংলার প্রথম ফ্যাসিনিস্ট নারী কে?
উত্তর : সরলা দেবী চৌধুরানী।
মার্কসীয় নারীবাদের মূল লক্ষ্য কী?
উত্তর : মার্কসীয় নারীবাদের মূল লক্ষ্য হলো বিশ্বের সমগ্র নারী সমাজের মুক্তি।
Eco-Feminism এর বাংলা প্রতিশব্দ কি?
উত্তর : পরিবেশ নারীবাদ।
কয়েকজন নারী ব্যক্তিত্বের নাম লিখ।
উত্তর : মাদার তেরেসা, বেগম রোকেয়া, জোবেদা খাতুন চৌধুরী, হিলারি ক্লিনটন, দেবী চৌধুরানী, অ্যানি বেসান্ত,
বেগম সুফিয়া কামাল ।
ইংরেজি Feminism শব্দটি কোন শব্দ থেকে এসেছে?
উত্তর : ফরাসি শব্দ ‘Femme’ থেকে যার অর্থ হচ্ছে নারী (Women).
জে. এস. মিল কোন ধারার নারীবাদী ছিলেন?
উত্তর : উদারপন্থি।
সিমন দ্য বুভোয়ার পুরুষকে Self এবং নারীকে কী বলেছেন?
উত্তর : Other (অন্য বা অপর)।
ক্লারা জেটকিন কে?
উত্তর : জার্মান মার্কসীয় তাত্ত্বিক, সামাজিক গণতন্ত্রী, নারীর সম অধিকার প্রতিষ্ঠার সক্রিয় নেত্রী।
‘নারী’ বইটি কার লেখা?
উত্তর : ড. হুমায়ুন আজাদ এর।
উত্তর-আধুনিক নারীবাদ কি?
উত্তর : এ নারীবাদ আধুনিকতাকে নারীর অধস্তনতার জন্য দায়ী বলে মনে করে এবং আধুনিকতার উচ্ছেদ করে নারী-পুরুষের সমতার মাধ্যমে সমাজ গড়তে আগ্রহী।
নারীদের ইতিহাসে প্রথম নারীবাদী কে?
উত্তর : মেরি ওলস্টোনক্রাফট।
মানবসমাজের আদিম পর্যায় কী ছিল?
উত্তর : মাতৃতান্ত্রিক সমাজ।
Cherles কোন দেশের নাগরিক?
উত্তর : ফ্রান্সের।
একজন আদর্শ মা একটি ভালো জাতি গঠনে ভূমিকা রাখেন- এটি কার মন্তব্য?
উত্তর : নেপোলিয়ান বোনাপার্ট-এর।
মার্কসীয় নারীবাদে নারীমুক্তির উপায় কি?
উত্তর : পুঁজিবাদ ও পুরুষতন্ত্রের উচ্ছেদ।
ম্যাগনাকার্টা কত সালে হয়?
উত্তর : ১২১৫ খ্রিস্টাব্দে ম্যাগনাকার্টা স্বাক্ষরিত হয়।
নারী ও রাজনীতির অর্থ কি?
উত্তর : নারী ও রাজনীতির অর্থ হচ্ছে নারীর অধিকার বিষয়ক গবেষণা ও অধ্যয়ন।
মিল নারী-পুরুষের জন্য কি ধরনের শিক্ষার সুপারিশ করেছেন?
উত্তর : সর্বজনীন বা একই ধরনের শিক্ষার সুপারিশ করেছেন।
জৈবিক বিপ্লব কি?
উত্তর : জৈবিক বিপ্লব জৈবিক মাতৃত্ব গ্রহণ করার বিরুদ্ধে সচেতনতা সৃষ্টি।
“আমি নারীকে নিয়ে লিখি, নারী অবশ্যই নারীকে নিয়ে লিখবে”-উক্তিটি কার?
উত্তর : হেলেন সিক্স-এর।
Mill was a reformist, net revolutionary-কে বলেছেন?
উত্তর : রোজমেরি টং।
“সমাজের ভিত্তি হবে স্ত্রী সমতা এবং এ সমাজ হবে উভয় লিঙ্গ”-কে বলেছেন?
উত্তর : কেট মিলেট।
‘পৃথিবী গোল’-এ বক্তব্যটি কোন নারী বিজ্ঞানীর?
উত্তর : গ্রিক নারী বিজ্ঞানী হাসপাসিয়া ।
‘Ecology’ অর্থ কি?
উত্তর : পরিবেশ বিজ্ঞান।

খ-বিভাগ

প্রশ্ন॥১॥নারী ও রাজনীতি বলতে কী বুঝ?
প্রশ্ন॥২॥নারী ও রাজনীতি অধ্যয়নের গুরুত্ব কী?
প্রশ্ন॥৩॥নারী রাজনীতির বিষয়বস্তু কী?
প্রশ্ন॥৪॥উইমেন্স স্টাডিজ/নারী শিক্ষা কী?
প্রশ্ন॥৫॥নারী শিক্ষার পরিধি সংক্ষেপে আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৬৷উইমেন্স স্টাডিজের আলোচ্যবিষয়গুলো কী কী?
প্রশ্ন॥৭॥উইমেন্স স্টাডিজের গুরুত্ব সংক্ষেপে আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷॥৮॥উইমেন্স স্টাডিজের গবেষণায় ব্যবহৃত কয়েকটি পদ্ধতি উল্লেখ কর।
প্রশ্ন॥৯॥ নারী শিক্ষা ও অর্থনীতির সম্পর্ক সংক্ষেপে আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷১০৷৷নারী শিক্ষা ও সমাজবিজ্ঞানের সম্পর্ক সংক্ষেপে আলোচনা কর।
প্রশ্ন৷৷১১৷৷নারীবাদ বলতে কী বুঝ?
প্ৰশ্ন৷৷ ১২৷৷নারীবাদী তত্ত্বগুলো কী কী?
প্ৰশ্ন৷৷১৩৷৷নারীবাদের বিভিন্ন দিকগুলো কী?
প্ৰশ্ন৷৷১৪৷৷নারীবাদের বিভিন্ন ধারা বা প্রত্যয়গুলো কী কী?
প্রশ্ন৷ ১৫৷নারীর উদারনীতিবাদ কী?
প্রশ্ন৷৷১৬৷৷উদারপন্থি নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷১৭৷৷র‍্যাডিক্যাল নারীবাদ কী?
প্রশ্ন॥১৮৷৷র‍্যাডিক্যাল নারীবাদ প্রসঙ্গে মেরি ডেলির (উধষু) অভিমত কী?
প্ৰশ্ন৷১৯৷র‍্যাডিক্যাল নারীবাদ প্রসঙ্গে মেরিলিন ফ্রেন্স এর অভিমত কী?
প্ৰশ্ন৷৷২০৷৷মার্কসীয় নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷২১৷৷মার্কসের রাজনৈতিক নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷২২৷৷মার্কসের অর্থনৈতিক নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷২৩৷৷গৃহকর্ম সম্পর্কে মার্কসীয় নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷২৪৷৷নারীমুক্তির বিষয়ে মার্কসের ধারণা কী?
প্ৰশ্ন৷৷২৫৷শ্রমিকের স্বাধীনতা বিষয়ে মার্কসীয় নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷২৬৷৷শ্রেণি সচেতনতা সম্পর্কে মার্কসীয় নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷২৭৷সমাজতান্ত্রিক নারীবাদ প্রসঙ্গে Alison Jaggar এর অভিমত কী?
প্ৰশ্ন৷৷২৮৷৷সমাজতান্ত্রিক নারীবাদ প্রসঙ্গে Juliet Mitchell এর অভিমত কী?
প্ৰশ্ন৷৷২৯৷৷সমাজতান্ত্রিক নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷৩০৷৷সমাজতন্ত্রে মহিলাদের অবস্থান সংক্ষেপে আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৩১৷৷অস্তিত্ববাদী নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷৩২৷৷অস্তিত্ববাদ ও নারীবাদের সম্পর্ক কী?
প্ৰশ্ন৷৷৩৩৷তৃতীয় বিশ্বে নারীবাদের স্বরূপ কী?
প্ৰশ্ন৷৷৩৪৷৷মেরি ওলস্টোনক্রাফটের নারীবাদী দর্শন ব্যাখ্যা কর।
প্ৰশ্ন৷৩৫৷আধুনিক নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৩৬৷ উত্তর-আধুনিক নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷৩৭৷৷সাংস্কৃতিক নারীবাদ কী?
প্ৰশ্ন৷৷৩৮৷৷পরিবেশ নারীবাদ বলতে কী বুঝ?
প্ৰশ্ন৷৷৩৯৷৷ · পরিবেশ নারীবাদের মূল সূত্রগুলো কী কী?
প্রশ্ন॥৪০৷৷প্রকৃতি ও নারীর মধ্যে সম্পর্ক কী?
প্ৰশ্ন৷৪১৷৷ আদর্শ নারী সম্পর্কিত ধারণা ব্যাখ্যা কর।
প্ৰশ্ন৷৷ ৪২৷৷পুঁজিবাদে নারীর অবস্থান নির্ণয় কর।
প্ৰশ্ন৷৪৩৷৷সুযোগ্য নারী নেতৃত্বের অভাব নারীমুক্তির অন্তরায়-সংক্ষেপে আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৪৪৷ নারীমুক্তির ক্ষেত্রে নারী শিক্ষার গুরুত্ব সংক্ষেপে আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৪৫৷৷সুসম সমাজ প্রতিষ্ঠায় নারী শিক্ষার গুরুত্ব আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৷৪৬৷৷নারীবাদী আন্দোলনের কয়েকটি কারণ উল্লেখ কর।
প্ৰশ্ন৷৷ ৪৭৷৷ “অশিক্ষা নারীবাদী আন্দোলনের অন্যতম নেতিবাচক কারণ” সংক্ষেপে আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷৷৪৮৷৷জেন্ডার চাহিদা কী?
প্ৰশ্ন৷৷৪৯৷৷ বাস্তবমুখী জেন্ডার চাহিদা কী?
প্ৰশ্ন৷৷৫০৷৷ কৌশলগত জেন্ডার চাহিদা কী?
প্ৰশ্ন৷৷৫১৷৷আদিম সাম্যবাদী যুগে নারীর অবস্থান কেমন ছিল?
প্ৰশ্ন৷৷৫২৷ কৃষ্ণাঙ্গ নারীবাদ কী?

গ-বিভাগ

প্রশ্ন॥১॥জ্ঞানতত্ত্বীয় ভিত্তিতে জেন্ডার অধ্যয়ন ব্যাখ্যা কর।
প্ৰশ্ন৷৷২৷৷জেন্ডার পরিপ্রেক্ষিতে সুশাসন ব্যবস্থা আলোচনা কর।
প্রশ্ন॥৩॥বাস্তবমুখী ও কৌশলগত জেন্ডার চাহিদার তুলনামূলক আলোচনা কর ।
প্রশ্ন॥৪॥জেন্ডার বা লিঙ্গ বলতে কী বুঝ? জেন্ডার ও সেক্সের মধ্যে পার্থক্য কী?
প্রশ্ন॥৫॥বিভিন্ন ধরনের জেন্ডার ভূমিকা সম্পর্কে আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷॥৬॥উইমেন্স স্টাডিসের পরিধি আলোচনা কর।
প্রশ্ন॥৭॥উইমেন্স স্টাডিসের আলোচ্যবিষয়গুলো কী কী? আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷॥৮॥উইমেন্স স্টাডিসের গবেষণায় ব্যবহৃত বিভিন্ন পদ্ধতিগুলো আলোচনা কর।
প্রশ্ন॥৯॥উইমেন্স স্টাডিসের গুরুত্ব ও আবশ্যকতা/উপযোগিতা আলোচনা কর।
প্রশ্ন॥১০৷উইমেন্স স্টাডিস/নারী শিক্ষা ও বিভিন্ন সামাজিক বিজ্ঞানের সম্পর্ক আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷১১৷৷নারীবাদ আন্দোলনের কারণগুলো চিহ্নিত কর।
প্ৰশ্ন৷ ১২৷৷নারীবাদের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে আলোচনা কর।
প্রশ্ন৷৷১৩৷৷মার্কসীয় নারীবাদ সম্পর্কে নিবন্ধ লিখ।
প্ৰশ্ন৷৷ ১৪৷৷অর্থনৈতিক মতবাদের আলোকে মার্কসীয় নারীবাদ আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷১৫৷মার্কসের নারীবাদী রাজনৈতিক মতবাদ আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷১৬৷গৃহকর্ম সম্পর্কে মার্কসীয় নারীবাদ আলোচনা কর।
প্রশ্ন॥১৭৷মার্কসীয় ও সমাজতান্ত্রিক নারীবাদের মধ্যে পার্থক্য আলোচনা কর।
প্রশ্ন৷ ১৮৷৷নারীবাদ ও মার্কসবাদের মধ্যে সম্পর্ক দেখাও।
প্রশ্ন৷১৯৷উদারনীতিবাদ সম্পর্কে মেরি ওলস্টোন ক্রাফটের মতবাদ আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷২০৷৷সমাজতান্ত্রিক নারীবাদ প্রসঙ্গে Juliet Mitchell এর অভিমত ব্যক্ত কর।
প্ৰশ্ন৷৷২১৷৷র‍্যাডিক্যাল নারীবাদ সম্পর্কে বিভিন্ন তাত্ত্বিকের অভিমত ব্যাখ্যা কর।
প্ৰশ্ন৷৷২২৷মেরীলিন ফ্রেন্স এর র‍্যাডিক্যাল নারীবাদ আলোচনা কর।
প্ৰশ্ন৷২৩৷৷অস্তিত্ববাদ ও নারীবাদের সম্পর্ক আলোচনা কর ।
প্রশ্ন৷৷২৪৷৷ নারীবাদী চিন্তাচেতনার বিভিন্ন ধারা বিশ্লেষণ কর
প্ৰশ্ন৷৷২৫৷৷মৌলিক নারীবাদ বেশি গ্রহণযোগ্য হওয়ার কারণ আলোচনা কর ।
প্ৰশ্ন৷৷২৬৷৷নারীবাদের উদ্ভব ও বিকাশ আলোকপাত কর।
প্ৰশ্ন৷ ২৭৷বাংলাদেশের পরিপ্রেক্ষিতে একটি বিষয় হিসেবে নারী ও রাজনীতি অধ্যয়নের গুরুত্ব আলোচনা কর।
প্রশ্ন৷৷২৮৷ নারী ও রাজনীতি অধ্যয়নের প্রয়োজনীয়তা আলোচনা কর।



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!