ডিগ্রি প্রথম এবং অনার্স দ্বিতীয় বর্ষ ২০২৩ এর সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯

 ডিগ্রী সকল বই

ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণের কারণসমূহ উল্লেখ কর।

অথবা, বিকেন্দ্রীকরণের কারণ কী কী?
অথবা, বিকেন্দ্রীকরণের কারণগুলো লিখ।
অথবা, কী কারণে বিকেন্দ্রীকরণ প্রক্রিয়া ঘটে?
অথবা, ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণের প্রধান কারণগুলো উল্লেখ কর।
উত্তর।। ভূমিকা :
বিকেন্দ্রীকরণের মাধ্যমে আঞ্চলিক পর্যায়ে ক্ষমতা হস্তান্তরের ফলে স্থানীয় সংগঠনগুলো দায়িত্বশীল একক হিসেবে নিজেদের গড়ে তোলার সুযোগ পায়। বিকেন্দ্রীকরণের ক্ষেত্রে বেশির ভাগ সিদ্ধান্ত আঞ্চলিক সংগঠন বা সংস্থাগুলো গ্রহণ করে।
ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণের কারণসমূহ : ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণের তিনটি কারণ রয়েছে। এগুলো হলো : । প্রশাসনিক কারণ, । ক্রিয়ামূলক কারণ, । বাহ্যিক কারণ।
১. প্রশাসনিক কারণ : যেসব প্রশাসনিক কারণে বিকেন্দ্রীকরণ সহজেই সম্ভব হয় সেগুলো হচ্ছে জ্যেষ্ঠত্ব নীতি ও পদ্ধতির স্থিতিশীলতা আঞ্চলিক অফিসে কর্মরত অফিসারদের যোগ্যতা, প্রশাসনিক কার্য দ্রুত ও মিতব্যয়িতার সাথে সম্পাদনের জন্য চাপ সৃষ্টি ও প্রশাসনিক দক্ষতা। অনেক দিনের পুরো সংস্থা বা সংগঠনসমূহে। উন্নত নিয়মকানুন ও উপযুক্ত মানের কার্যবিধিও গড়ে উঠে। প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণের আর একটি কারণ স্বল্প খরচ ও প্রশাসনিক কার্যের গতিশীলতা। কেন্দ্রীয়করণ ব্যবস্থায় অফিসারদের প্রায়শ তদারককারীর ভূমিকা পালন করতে হয় এবং এতে তাদের যাতায়াত খরচও বেড়ে যায়। জনগণের সান্নিধ্যে প্রশাসনিক কার্যসম্পাদনের জন্য বিকেন্দ্রীকরণ করা হয়।
২. ক্রিয়ামূলক কারণ : কোনো সংস্থার কাজ বহুমুখী কিংবা কাজের চাপ অত্যধিক হলে সংগঠনের মাঠ অফিস বা অঞ্চলভিত্তিক অফিস স্থাপনের প্রয়োজন হয়ে পড়ে। জাতীয় একতা বা সামঞ্জস্য বিধানের জন্য কেন্দ্রীকরণ প্রশাসন ব্যবস্থা যেমন প্রয়োজন তেমনি আঞ্চলিক ও স্থানীয় বৈচিত্র্য ও তারতম্যের পূর্ণ ব্যবস্থার জন্য বিকেন্দ্রীকরণ প্রশাসনও প্রয়োজন।
৩. বাহ্যিক কারণ : উন্নয়ন পরিকল্পনা বা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে বিকেন্দ্রীকরণ ব্যবস্থা জনগণ বা আঞ্চলিক সমর্থন নিশ্চিত করা অপরিহার্য। বিকেন্দ্রীকরণ ব্যবস্থা ছাড়া স্থানীয় প্রশাসন কার্যকর ও অর্থবহ করে তোলা সম্ভব নয়।রাজনৈতিক দল, চাপ বা প্রভাব সৃষ্টিকারী গোষ্ঠী তাদের সুযোগ সুবিধা আদায়ের জন্য প্রশাসন ব্যবস্থাকে বিকেন্দ্রীকরণ করে। এরপ ব্যবস্থার মাধ্যমেই স্থানীয় প্রশাসনকে গণতান্ত্রিক ও জনগণের প্রতি দায়িত্বশীল করে তোলা হয়।
উপসংহার : পরিশেষে বলা যায় যে, আধুনিক শাসন ব্যবস্থায় প্রশাসন বিকেন্দ্রীকরণ করা না হলে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষে সমস্ত দেশের প্রশাসন যন্ত্রকে পরিচালনা করা সম্ভবপর নয়। স্থানীয় পর্যায়ে প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট নীতি নির্ধারণী বিষয়াবলিতে স্থানীয় জনগণের অংশগ্রহণ করা গণতান্ত্রিক বিকেন্দ্রীকরণের মতাদর্শ।



পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!