General Knowledge

আগরতলা মামলার উদ্দেশ্য বর্ণনা কর।

অথবা, আগরতলা মামলার লক্ষ্য বর্ণনা কর।
উত্তর ভূমিকা :
আগরতলা মামলা ছিল আইয়ুব খানের শাসনামলের (১৯৫৮-৬৯) সর্বাপেক্ষা ঘৃণ্য ও প্রহসনমূলক ঘটনা। ১৯৬৬ সালে উত্থাপিত ছয়দফাকে কেন্দ্র করে যখন আন্দোলন হতে থাকে তখনই আইয়ুব খান
বাঙালির কণ্ঠ স্তব্ধ ও তার ক্ষমতাকে সুদৃঢ় করার লক্ষ্যে এ মামলা দায়ের করে।
আগরতলা মামলার উদ্দেশ্য : নিচে আগরতলা মামলার উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য আলোচনা করা হলো :
১. জাতীয়তাবাদী আন্দোলন নস্যাৎ করা : ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনকে কেন্দ্র করে পূর্ব পাকিস্তানের জনগণের মধ্যে যে বাঙালি জাতীয়তাবাদী চেতনার জন্ম হয়েছিল তা আরো দৃঢ় হচ্ছিল ছয়দফা আন্দোলনকে কেন্দ্র করে। আইয়ুব খান উপলব্ধি করেছিলেন পূর্ব পাকিস্তানে যে জাতীয়তাবাদী আন্দোলন শুরু হয়েছে তা রোধ করতে না পারলে পাকিস্তানের ভাঙন রোধ করা সম্ভব নয়। এজন্য তিনি আগরতলা মামলা দায়ের করে এ জাতীয়তাবাদী আন্দোলনকে নস্যাৎ করতে চেয়েছিলেন।
২. সেনাবাহিনীর সমর্থন দৃঢ় করা : আগরতলা মামলার আসামি ছিলেন ৩৫ জন। এর মধ্যে ৩৪ জনই ছিলেন পাকিস্তানের বিভিন্ন প্রতিরক্ষা বাহিনীতে কর্মরত। সেনাবাহিনীর সমর্থন দৃঢ় করা ও বাঙালি সৈন্যদের পাকিস্তানি সেনাদের নিকট বিশ্বাসঘাতক প্রমাণ করা এ মামলার অন্যতম উদ্দেশ্য ছিল।
৩. পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তানের মধ্যে ব্যবধান সৃষ্টি : এ মামলার মাধ্যমে পূর্ব পাকিস্তানের জনগণ ও তাদের নেতাকে বিশ্বাসঘাতক প্রমাণ করে পশ্চিম পাকিস্তানিদের কাছে তাদের গ্রহণযোগ্যতা শূন্যে নামিয়ে আনাই ছিল এ মামলার উদ্দেশ্য।
৪. শেখ মুজিবুর রহমানকে রাজনীতি থেকে নির্মূল করা : বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা শেখ মুজিবুর রহমানের জনপ্রিয়তা ছিল আকাশচুম্বী। আইয়ুব খানের শাসনামলে শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন সকল আন্দোলনের পুরোধা ও প্রত্যক্ষ নির্দেশদাতা। মূলত তার সুচিন্তিত নেতৃত্বের মাধ্যমেই সামরিক শাসন বিরোধী আন্দোলন চলছিল। আর সে জন্য আইয়ুব খান শেখ মুজিবুর রহমানকে পাকিস্তানের রাজনীতি থেকে নির্মূল করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন এবং তার বিরুদ্ধে আগরতলা মামলা দায়ের করেন।
৫. ভারতীয় জুজুকে ব্যবহার : আসামিদের বিরুদ্ধে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সহায়তায় পূর্ব পাকিস্তানকে স্বাধীন করার ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়। মূলত এর মাধ্যমে আইয়ুব খান ছয়দফা আন্দোলনকারীদের ভারতীয় চর হিসেবে প্রমাণ করতে চেয়েছিলেন।
উপসংহার : পরিশেষে বলা যায় যে, ছয়দফা ভিত্তিক আন্দোলন ও বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা শেখ মুজিবুর রহমানকে পাকিস্তানের রাজনীতি থেকে উচ্ছেদ করার উদ্দেশ্যেই আগরতলা মামলা দায়ের করা হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!